kalerkantho

শনিবার । ১০ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


পাঠ প্রস্তুতি

দশম শ্রেণি : ভূগোল এবং পৌরনীতি ও নাগরিকতা

তাহেরা খানম, সহকারী শিক্ষক, ইসলামিয়া সরকারি উচ্চ , বিদ্যালয়, ঢাকা   

৯ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



সপ্তম অধ্যায়

সৃজনশীল প্রশ্ন

উদ্দীপকটি পড়ে নিচের প্রশ্নের উত্তর দাও :

সিপলু একজন নিরক্ষর যুবক। সে নিজ দেশে কোনো কর্মসংস্থান করতে না পেরে লোকমুখে বিদেশে কর্মসংস্থানের সুযোগ-সুবিধার কথা শুনে প্ররোচিত হয় এবং স্থায়ীভাবে বসবাসের উদ্দেশ্যে বিদেশে গমন করে।

বিদেশে গিয়ে সিপলু নানা ধরনের অসুবিধার সম্মুখীন হয়।

ক. স্থূল জন্মহারের সূত্রটি লেখো।

খ. জনসংখ্যার ঘনত্ব বলতে কী বোঝো? 

গ. সিপলুর বিদেশ গমন কোন প্রক্রিয়াকে নির্দেশ করে? ব্যাখ্যা করো।

ঘ. উক্ত প্রক্রিয়ার ফলে সিপলু কোন কোন ধরনের সমস্যার সম্মুখীন হতে পারে বলে তুমি মনে করো। উদ্দীপকের আলোকে বিশ্লেষণ করো।

 

উত্তর :  ক. স্থ্থূল জন্মহারের সূত্র :

কোনো বছরের জন্মিত সন্তানের মোট সংখ্যা

 

১০০০ বছরের মধ্যকালীন মোট জনসংখ্যা

 

খ. উত্তর : কোনো দেশের মোট জনসংখ্যা এবং মোট ভূমির পরিমাণ বা আয়তনের অনুপাতকে জনসংখ্যার ঘনত্ব বলে।

পৃথিবীর বা কোনো দেশের জনসংখ্যার ঘনত্ব জানতে হলে পৃথিবী বা সে দেশের মোট জনসংখ্যা ও আয়তন জানতে হবে।

জনসংখ্যার ঘনত্ব নির্ণয়ে সূত্র—

মোট জনসংখ্যা শু মোট ভূমির পরিমাণ

উদাহরণ : বাংলাদেশের জনসংখ্যা ঘনত্ব = বাংলাদেশের মোট জনসংখ্যা শু বাংলাদেশের মোট ভূমির পরিমাণ

= ১৪৯৭৭২৩৬৪ শু ১৪৭৫৭০

= ১.০১৫ জনপ্রতি বর্গকিলোমিটারে।

উল্লেখ্য, দেশের জনসংখ্যার তুলনায় আয়তন বড় হলে তার জনসংখ্যার ঘনত্ব কমে আসে। আর ঘনত্ব বেশি হলে তা ভূমির ওপর চাপ সৃষ্টি করে।

 

গ. সিপলুর বিদেশ গমন ‘অভিবাসন’ প্রক্রিয়াকে নির্দেশ করে।

জীবন ধারণের মৌলিক ও নানা প্রয়োজনে মানুষ এক স্থান থেকে অন্য স্থানে কিংবা এক দেশ থেকে অন্য দেশে স্থায়ীভাবে বসবাসের উদ্দেশ্যে গমন করে। এভাবে মানুষের এক স্থান থেকে অন্য স্থানে গমন প্রক্রিয়াকে অভিবাসন বলা হয়। অভিবাসন গ্রাম থেকে শহরে, এক শহর থেকে অন্য শহরে কিংবা এক দেশ থেকে অন্য দেশে হতে পারে।

উদ্দীপকে সিপলু নিজ দেশে কোনো কর্মসংস্থান করতে না পেরে কর্মসংস্থানের লোভে স্থায়ীভাবে বসবাসের উদ্দেশ্যে বিদেশ গমন করে। এখানে লক্ষ করা যায়, শিপলু ব্যক্তিগত প্রয়োজনে স্বেচ্ছায় নিজের দেশ ত্যাগ করে অন্য দেশে স্থায়ীভাবে বসবাসের উদ্দেশ্যে গমন করে। অর্থাৎ সে এ দেশ থেকে অন্য দেশে স্থানান্তরিত হয়। অভিবাসনের সংজ্ঞা অনুযায়ী শিপলুর বিদেশ গমনের এ প্রক্রিয়াকে অভিবাসন বলা হয়। সুতরাং আমরা বলতে পারি, শিপলুর বিদেশ গমন ‘অভিবাসন’ প্রক্রিয়াকে নির্দেশ করে।

 

ঘ. অভিবাসনের ফলে সিপলু অর্থনৈতিক এবং সামাজিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে।

অর্থনৈতিক উন্নতির জন্যই মানুষ অভিবাসন করে। বেকার সমস্যার সমাধান, জীবনযাত্রার মান উন্নয়ন, অর্থনৈতিক উত্পাদন ও উন্নয়নের ধারা প্রভৃতি দ্বারা অর্থনৈতিক উন্নয়ন বোঝায়। আর সামাজিক ক্ষেত্র বলতে জনগণের গুণগত দিক নির্দেশ করে, যা অভিবাসনের ফলে পরিবর্তন ঘটে।

সিপলু একজন নিরক্ষর লোক। স্বল্পশিক্ষিত বা নিরক্ষর লোক সঠিক পদ্ধতিতে যদি অভিগমন না করে, তবে তারা অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়। আন্তর্জাতিক অভিগমনের ক্ষেত্রে কেউ বিদেশে যেতে চাইলে তিনি যে দেশে গমন করবেন, সে দেশে গিয়ে কী করবেন তা আগেই ঠিক করে যাওয়া উচিত। লোকমুখে শুনে প্ররোচিত হয়ে গমন করলে অন্য দেশের আইন দ্বারা সে বাধাগ্রস্ত হতে পারে। ফলে নিজের ও দেশের অর্থনৈতিক কোনো লাভ না হয়ে বরং ক্ষতি হয়। সিপলুর ক্ষেত্রে এমনটাই ঘটেছে।

সিপলু লোকমুখে প্রোরোচিত হয়ে বিদেশ গমন করে বিভিন্ন ধরনের অসুবিধার সম্মুখীন হয়েছে। এ ছাড়া অভিবাসনের ফলে বিভিন্ন রোগের বিস্তারও ঘটে থাকে। আবার অধিকভাবে অন্য সংস্কৃতি রপ্ত করার কারণে নিজের ও দেশের সামাজিক বৈশিষ্ট্য ক্ষুুণ্ন হতে পারে। উদ্দীপকে সিপলুর ক্ষেত্রেও এ ধরনের সমস্যা হতে পারে বলে আমি মনে করি।

বহু নির্বাচনী প্রশ্ন

 

১।   কোনটি সমাজের বৈশিষ্ট্য?

     i. বহু লোকের সংঘবদ্ধ বসবাস

     ii. সংঘবদ্ধতার পেছনে থাকবে সাধারণ উদ্দেশ্য

     iii. ঐক্য ও পারস্পরিক সহযোগিতা

     নিচের কোনটি সঠিক?

     ক. i       খ. i ও ii

     গ. i ও iii  ঘ. i, ii ও iii

২।   কোনটি সুনাগরিকের বৈশিষ্ট্য?

     i. বুদ্ধি     

ii. বিবেক

     iii. নির্ভরশীলতা

     নিচের কোনটি সঠিক?

     ক. i       খ. i ও ii

     গ. i ও iii  ঘ. i, ii ও iii

৩।   উত্তম সংবিধানের বৈশিষ্ট্য কোনটি?

     i. সুস্পষ্ট

     ii. অপরিবর্তনশীল

     iii. সংক্ষিপ্ত

     নিচের কোনটি সঠিক?

     ক. i       খ. i ও ii

     গ. i ও iii        ঘ. i, ii ও iii

     অনুচ্ছেদটি পড়ো এবং নিচের ৪ ও ৫ নম্বর প্রশ্নের উত্তর দাও

     রাসেল ‘ক’ নামক একটি দেশে বাস করে। তার রাষ্ট্রে সাধারণ নির্বাচনের মাধ্যমে সংখ্যাগরিষ্ঠের ভোটে সরকার প্রধান নির্বাচিত হয়।

৪।   ‘ক’ নামক রাষ্ট্র কী ধরনের রাষ্ট্র?

     ক. পুঁজিবাদী রাষ্ট্র

     খ. সমাজতান্ত্রিক রাষ্ট্র

     গ. গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র

     ঘ. একনায়কতান্ত্রিক রাষ্ট্র

৫।   ‘ক’ নামক রাষ্ট্রের শাসন ব্যবস্থার গুণ কোনটি?

     i. দায়িত্বশীল শাসন

     ii. বিপ্লবের সম্ভাবনা কম

     iii. সাম্য ও সম-অধিকারের প্রতীক

     নিচের কোনটি সঠিক?

     ক. i  খ. ii ও iii

     গ. i ও ii   ঘ. i, ii ও iii

উত্তরগুলো মিলিয়ে নাও

১. ঘ ২. খ ৩. গ ৪. গ ৫. ঘ


মন্তব্য