kalerkantho


‘পুজারীদের ওপর ট্রেন চলল নামাজিদের ওপর নয় কেন?’

ধর্মীয় সহিংসতা ছড়ানোর পাঁয়তারা উগ্র হিন্দুদের

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৩ অক্টোবর, ২০১৮ ১৬:৩৬



‘পুজারীদের ওপর ট্রেন চলল নামাজিদের ওপর নয় কেন?’

গত শুক্রবার ভারতের পাঞ্জাবের অমৃতসরে দুর্গা পুজার বিজয়া দশমীর দিন ভয়াবহ এক ট্রেন দুর্ঘটনায় কমপক্ষে ৫৯ জন নিহত হয়েছেন। রাবণ দাহ দেখার জন্য রেললাইনের ওপর দাঁড়িয়ে থাকা হিন্দু ভক্তদের ওপর চলন্ত ট্রেন যাওয়ার ঘটনায় আরও অন্তত ৭২ জন আহত হয়েছেন। কিন্তু এরইমধ্যে দেশটির কট্টরবাদী হিন্দু গ্রুপগুলো সাম্প্রদায়িকতার বীজ বুনতে শুরু করেছে।

সোশ্যাল মিডিয়ায় কয়েকটি ছবি পোস্ট করে কট্টরবাদীদের দাবি, রাবণ দাহের সময় রেললাইন দাঁড়িয়ে থাকাদের ওপর ট্রেন থামানো না গেলে, রেললাইনে ওপর নামাজিদের জন্য ট্রেন কেন থামানো হলো?

ছবিগুলোতে দেখা গেছে, রেললাইনের ওপর বসে মুসলিম ব্যক্তিরা নামাজ পড়ছে এবং রেললাইনের ওপর একটি ট্রেন দাঁড়িয়ে আছে। আর এই ছবি ব্যবহার করেই ধর্মীয় সহিংসতা ছড়ানোর পাঁয়তারা করছে একটি মহল।

কিন্তু টাইমস ইন্ডিয়া জানিয়েছে, এটি একটি ভুয়া খবর। তারা বলছে, ছবিটি ২০১৭ সালে রমজান মাসের শেষ শুক্রবার (জুমাতুল বি’দার) তোলা হয়। তাদের ফটো সাংবাদিক অনিন্দ্য চট্টোপাধ্যায় ওই ছবিটি তুলেছিলেন।

তিনি বলেন, নিউদিল্লি রেলওয়ে স্টেশন এবং সর্দার বাজার রেলওয়ে স্টেশনের মাঝে আচ্চান মিয়া মসজিদ অবস্থিত। ওই স্টেশনে বেশ কয়েকটি রেললাইন রয়েছে যেগুলো ব্যবহার হয় না। রমজান মাসের সময় নামাজিরা ওই রেললাইন ব্যবহার করছিল, আমি সেটাই কভার করেছি। মাঝে মাঝে এই রেললাইনগুলোর ওপর ট্রেনের ইঞ্জিন আনা হয় কিন্তু নামাজের জন্য কোনও ট্রেন থামানো হয়নি।

২০১৮ সালের মে মাসে তামিলনাড়ুতে ওই ছবিগুলো ব্যবহার করে সাম্প্রদায়িক সহিংসতা ছড়ানোর চেষ্টা করা হয়। সোশ্যাল মিডিয়ায় ওই ছবিগুলো পোস্ট করে সেগুলোর ক্যাপশনে লিখা হয়, তামিলনাড়ুতে পরীক্ষার্থীবোঝাই ট্রেনটি নামাজিদের জন্য থামিয়ে রাখা হয়েছে।

পরে বেঙ্গালুরু মিরর এক প্রতিবেদনে জানায় এটি ভুয়া খবর।



মন্তব্য