kalerkantho

শনিবার । ৩ ডিসেম্বর ২০১৬। ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ২ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


আলেপ্পোয় প্রচণ্ড বিমান হামলা, সর্বত্র লাশ আর ধ্বংসস্তূপ (ভিডিওসহ)

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১১:৩৫



আলেপ্পোয় প্রচণ্ড বিমান হামলা, সর্বত্র লাশ আর ধ্বংসস্তূপ (ভিডিওসহ)

মানবতা ভূলুণ্ঠিত বলতে যা বোঝায় ঠিক যেন তাই হচ্ছে সিরিয়ার আলেপ্পোতে। মুহুর্মুহু বিমান হামলায় প্রকম্পিত হচ্ছে শহরটি।

আর এ শহরে অবস্থানকারী শিশু-কিশোর, নারী কিংবা প্রাপ্তবয়স্ক মানুষ, কেউই সে বিমান হামলা থেকে বাঁচছে না। ক্রমে দীর্ঘ হচ্ছে নিহতের সারি। এ হামলা থেকে রক্ষা পাচ্ছে না এমনকি চিকিৎসক, উদ্ধাকারী ও ত্রাণকর্মীরাও।

সিরিয়ান ও রাশিয়ান বিমানগুলো গত কয়েক দিন ধরে এ শহরটিতে হামলা চালানো ঘোষণা দিয়ে বন্ধ রেখেছিল। সে সময়সীমা পার হওয়ার পর অবশ্য শহরটিতে নজিরবিহীন বিমান হামলা শুরু হয়েছে। এ হামলায় শুক্রবারই ৯১ জন নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। তবে বিমান হামলার পর বহু মানুষ ধ্বংসস্তূপের নিচে চাপা পড়ে রয়েছে। তাদের উদ্ধার করা না গেলে নিহতের প্রকৃত সংখ্যা জানা যাবে না।
\"\"
তিনটি চিকিৎসাকেন্দ্র ও দুটি হোয়াইট হেলমেট উদ্ধারকারীদের কেন্দ্রতেও বিমান হামলা চালানো হয়েছে। এ কারণে উদ্ধার কার্যক্রমও স্থবির হয়ে পড়েছে। সংকট দেখা দিয়েছে আহতদের চিকিৎসাতেও।

আলেপ্পোর বিদ্রোহী-নিয়ন্ত্রিত এলাকাগুলো পুনর্দখল করতে সিরিয়া ঘোষণা দিয়ে আক্রমণ শানানোর পরপরই শহরটিতে নতুন করে শুরু হয়েছে মুহুর্মুহু বিমান হামলা।

আলেপ্পোর বিদ্রোহী নিয়ন্ত্রিত এলাকাগুলোতে এযাবৎকালের মধ্যে শুক্রবারই সবচেয়ে প্রবল বিমান হামলা শুরু হয়েছে। সিরীয় সরকারের পক্ষ থেকে জনগণকে বিদ্রোহী নিয়ন্ত্রিত এলাকা থেকে সরে যাওয়ার আহ্বান জানানো হয়েছে। যদিও রাশিয়ার পক্ষ থেকে নতুন করে বিমান হামলায় অংশ নেওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়নি।

বৃহস্পতিবার রাতে রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে সিরীয় সরকারের পক্ষ থেকে বিদ্রোহী নিয়ন্ত্রিত এলাকায় অভিযান চালানোর ঘোষণা দেওয়া হয় এবং বেসামরিক নাগরিকদের সন্ত্রাসীদের অবস্থান থেকে দূরে অবস্থানের বিষয়ে সতর্ক করা হয়। তবে নতুন এ অভিযানে সম্মুখ সেনারা অংশ নেবে কিনা সে বিষয়ে পরিষ্কার করে কিছু জানানো হয়নি।

নতুন হামলার বিষয়ে 'দ্য হোয়াইট হেলমেটে' এর পক্ষ থেকে বলা হয়, শুক্রবার সকাল থেকে আলেপ্পোয় ক্রমাগত বিমান হামলা চলছে। আশ্রয়শিবিরগুলোতেও হামলা চালানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন তারা।

বোমা হামলায় হতাহতদের সাহায্য করতে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনটি আলেপ্পোয় চারটি আশ্রয়শিবির স্থাপণ করেছে, তার মধ্যে তিনটিই হামলার কারণে অচল হয়ে পড়েছে বলেও জানায় তারা।


মন্তব্য