kalerkantho

বুধবার । ৪ কার্তিক ১৪২৮। ২০ অক্টোবর ২০২১। ১২ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

গাধাবিষয়ক গল্প

চন্দন চৌধুরী

২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



গাধাবিষয়ক গল্প

অঙ্কন : প্রসূন

১.

পালনের উদ্দেশ্যে একবার এক রাজা একটি ঘোড়া কিনে নিয়ে এলেন। দেখে মন্ত্রীরও সাধ হলো ঘোড়া কেনার। দেরি না করে পরদিন তিনিও একটি ঘোড়া কিনলেন। রাজাকে বললেন, ‘রাজামশাই, আমিও একটি ঘোড়া কিনেছি।’ রাজা হেসে বললেন, ‘আমাকে অনুসরণ করে ভালো করেছ।’ অনুসরণ কথাটি ঠিক ভালো লাগেনি মন্ত্রীর। তাই পরদিনই তিনি ঘোড়া বিক্রি করে দিলেন। রাজাকে বললেন, ‘রাজামশাই, ঘোড়া বিক্রি করে দিয়েছি।’ শুনে রাজা হেসে বললেন, ‘ভালো করেছ। ঘোড়া পালন তোমার কর্ম নয়।’ এ কথাটিও ভালো লাগল না মন্ত্রীর। ঠিক পরদিনই তিনি একটি গাধা কিনে নিয়ে এলেন। রাজাকে বললেন, ‘রাজামশাই, আমি একটি গাধা কিনেছি।’ রাজা হেসে বললেন, ‘ভালো করেছ। এবার নিজের জাত চিনেছ।’

কথাটি বেশ গায়ে লাগল মন্ত্রীর। সেদিনই তিনি গাধা বিক্রি করে দিলেন। রাজাকে বললেন, ‘রাজামশাই, গাধা বিক্রি করে দিয়েছি।’ এবার রাজা হেসে বললেন, ‘খুব ভালো করেছ। দুই গাধা একসঙ্গে না থাকাই ভালো।’

 

২.

গাধা আর ঘোড়া সহমত হলো উচ্চ লাফ খেলবে। টস হলো, প্রথমে গাধা দাঁড়াবে, তার ওপর দিয়ে লাফিয়ে যাবে ঘোড়া। এরপর আসবে গাধার পালা। নিয়ম অনুযায়ী প্রথমে গাধা দাঁড়াল, দূর থেকে দৌড়ে এসে ঘোড়া তার ওপর দিয়ে লাফিয়ে চলে গেল। এবার গাধার পালা। সোজা হয়ে দাঁড়াল ঘোড়া। গাধা ভাবল, লাফ দিলে কত উঁচুতে উঠবে সে তো নিজেও জানে না, যদি আকাশে লেগে যায়, তাহলে তো আকাশ ভেঙে যেতে পারে। তাই দূর থেকে দৌড়ে ঘোড়ার কাছাকাছি এসে চোখ বন্ধ করে ফেলল গাধা। লাফ দিয়ে ঘোড়ার ওপর দিয়ে তো দূরের কথা একেবারে পেটের নিচ দিয়ে ঘোড়ার ওপাশে চলে গেল। যাওয়ার সময় গাধার পিঠে ঘোড়ার পেটের ঘষাও লাগল। এদিকে বিজয়ের আনন্দে লাফাতে লাগল গাধা। ঘোড়া বলল, ‘কী হলো বিষয়টা!’

গাধা বলল, ‘বুঝলে আমি কত উঁচু দিয়ে তোমায় পার হয়ে এলাম! আকাশে পর্যন্ত আমার পিঠে ঘষা লেগেছে!’ এ কথা শুনে গাধার গাধামিটা ধরে ফেলল ঘোড়া। বলল, ‘আকাশটা কেমন মনে হলো তোমার কাছে?’

গাধা বলল, ‘আকাশটা আমাদের শরীরের মতোই কিছুটা নরম আর লোমশ।

 

৩.

মরুভূমির পথে গাধার গাড়ি নিয়ে যাচ্ছে এক লোক। হঠাৎ দাঁড়িয়ে পড়ল গাধাটা। কোনোভাবেই হাঁটছে না। লোকটা তো অর্ধেক পথে এসে ভীষণ বিপদে পড়ল। আশপাশে লোকজনও দেখছে না। পিটিয়ে, বকাঝকা করে, লাথি মেরে চেষ্টা করল। না, গাধা তো নড়ে না। চেষ্টা করে তো লোকটার ঘাম ঝরে গেল। এমন সময় দেখল, একজন আসছে। কাছে এসে গাধার বিষয়টা বুঝতে পারল আগন্তুক। লোকটা বলল, ‘গাধা নিয়ে তো বিপদে পড়লাম রে ভাই। হাঁটছেই না। তুমি কি একটু চেষ্টা করবে?’ আগন্তুক হেসে একটু ভাবল। গাধার কানে কানে কী যেন বলল। শুনতেই গাধা ধীরে ধীরে হাঁটতে শুরু করল। আশ্চর্য হয়ে গেল লোকটা। আগন্তুকের কানে ফিসফিস করে বলল, ‘তুমি কী এমন বললে, যা শুনতেই গাধাটা হাঁটতে শুরু করল!’

আগন্তুক হেসে বলল, ‘শুধু একটু বলেছি, গাধার কথায় রাগ করার কিছু নেই। তুমি তোমার কাজ করো।’ শুনে হাঁ হয়ে গেল লোকটার মুখ।



সাতদিনের সেরা