kalerkantho

শুক্রবার । ৩ বৈশাখ ১৪২৮। ১৬ এপ্রিল ২০২১। ৩ রমজান ১৪৪২

[ BIG জ্ঞান ]

পেঁয়াজ কাটলে কান্না পায় কেন?

১ মার্চ, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



পেঁয়াজ কাটলে কান্না পায় কেন?

পেঁয়াজ একবার বিধাতার কাছে আরজি পেশ করল, ‘আমাকে তো মানুষ কেটে কেটে খেয়ে ফেলে; এতে আমার কোনো আপত্তি নেই। কিন্তু কাটার সময় যেন মানুষ আমার জন্য একটু দুঃখ প্রকাশ করে, একটু কাঁদে।’ বিধাতা  পেঁয়াজের আরজি শুনলেন। সঙ্গে সঙ্গে মঞ্জুরও করলেন। এর পর থেকে নাকি আমরা পেঁয়াজ কাটলেই কেঁদে ফেলি। পেঁয়াজের আরজির ঘটনা লোককথা, বলাবাহুল্য। কিন্তু পেঁয়াজ সত্যিই আমাদের কাঁদায়।

পেঁয়াজে থাকে সালফোক্সাইড ও এনজাইম। পেঁয়াজ কাটার সঙ্গে সঙ্গে এনজাইম সালফোক্সাইডের সঙ্গে বিক্রিয়া করে উৎপন্ন করে সালফেনিক এসিড। এই এসিড থেকে তৈরি হয় সিন-প্রোপেনেথিয়াল এস-অক্সাইড। এই রাসায়নিক নাকি বাতাসের চেয়েও হালকা। যখন কোনো কিছু বাতাসের চেয়ে হালকা হয়, তখন তা সহজেই বাতাসে ভেসে থাকতে পারে বা উড়তে পারে। ফলে পেঁয়াজ কাটার সময় এই রাসায়নিক সোজা এসে চোখে লাগে। আমাদের চোখে থাকে এক প্রকার কোষ, যা চোখকে ভিজিয়ে রাখে। চোখের এই ভেজা অংশের সঙ্গে সিনপ্রোপেনেথিয়াল এস-অক্সাইড আবার যুদ্ধ শুরু করে। সহজ কথায় বিক্রিয়া শুরু করে। যার ফলে তৈরি হয় সালফিউরিক এসিড। এই এসিড খুবই শক্তিশালী ও বিপজ্জনক, কিন্তু চোখে খুব সামান্য পরিমাণে এর আক্রমণ হয় বলে রক্ষা। তবে সামান্য হলেও স্নায়ুতন্ত্র সঙ্গে সঙ্গে মস্তিষ্ককে জানিয়ে দেয় চোখে এসিড আক্রমণ করেছে, অমনি মস্তিষ্ক চোখকে আদেশ দেয় ‘কাঁদো’। কেঁদে কেঁদে যতটা পারা যায় এসিডকে ধুয়ে-মুছে ফেলো। এ জন্যই পেঁয়াজ কাটলে চোখের জল বেরোয়।

     ►   আল সানি

মন্তব্য