kalerkantho

শুক্রবার । ১৪ কার্তিক ১৪২৭। ৩০ অক্টোবর ২০২০। ১২ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

[ খা ও য়া দা ও য়া ]

স্কুলের টিফিনেও নিয়ে যাও। রেস্টুরেন্টে গেলেও অর্ডার দাও। হ্যাঁ, পাস্তা তোমরা পছন্দ করো জানি। কিন্তু এটা কি জানো, পাস্তারও একটি দিন আছে? সেটি ২৫ অক্টোবর। জাহিদুল ইসলাম ভাইয়া আজ তোমাদের পাস্তার খবর বলছেন

১৯ অক্টোবর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



[ খা ও য়া দা ও য়া ]

চীনে না এক বাটি নুডলস জাতীয় খাবার পাওয়া গেছে! আর সেটা কিনা চার হাজার বছর আগের। মার্কো পোলোর কথাও তোমরা অনেকে শুনে থাকবে। তিনি চৌদ্দ শতকে চীনে গিয়েছিলেন। ভেনিস থেকে। এটি এখন ইতালির মধ্যে পড়ে। পোলোও তাঁর এক লেখায় বলেছেন, চীনে খ্রিস্টপূর্ব ৩০০০ অব্দ থেকেই পাস্তার চল আছে। তবে চীনারা পাস্তা বলতে নুডলসই বোঝে। আমরা এখন যে পাস্তা খাই তার সঙ্গে চীনাটির কিছু গরমিল আছে। পাস্তা শব্দটিও ইতালীয়। এসেছে লাতিন ভাষা থেকে। ইংরেজরা পাস্তা শব্দটি গ্রহণ করে ১৮৭৪ সালে।

 

পাস্তা আমেরিকায় যায়

ইতালিতে পাস্তা কিন্তু প্রধান খাদ্য। হিসাব করে দেখা গেছে, একজন ইতালিয়ান বছরে গড়ে ষাট পাউন্ড পাস্তা খায়। পাস্তা পছন্দ করে আমেরিকানরাও। জাহাজে করে পাস্তা প্রথম আমেরিকায় যায়। জানা গেছে, ১৭৯৮ সালে একজন ফরাসি ফিলাডেলফিয়ায় পাস্তার কারখানা বসিয়েছিল।  তারপর জনপ্রিয় হতে সময় বেশি লাগেনি। এটি মজাদার আর সেই সঙ্গে প্রোটিনসমৃদ্ধ। রেস্তোরাঁগুলোয় বিক্রিও হচ্ছিল চড়া দামে। পাস্তাকে আরো মজাদার করতে সবজি আর সস ব্যবহার শুরু হয় একসময়।

 

শুকনা পাস্তা

ইতালীয়রা টাটকা পাস্তা খেতেই বেশি পছন্দ করত। মানে বানিয়েই খেয়ে ফেলত। শুকানো পাস্তা খাওয়ার চল শুরু হয় আরবরা ইতালি আক্রমণের পর (দক্ষিণ ইতালির সিসিলিতে আরবরা গিয়েছিল সপ্তম ও অষ্টম শতকে)। যুদ্ধের সময় যখন-তখন যেন পাস্তা পাওয়া যায় তার জন্যই শুকানো পাস্তা বা প্যাকেট পাস্তার চল হয়।

 

কত রকম যে

প্রায় ৬০০ রকমের পাস্তা এখন পাওয়া যায় পৃথিবীতে। কে জানিয়েছে?  পাস্তা অ্যাসোসিয়েশন। দুরুম নামের একরকমের গম থেকে পাস্তা ভালো হয়। ডিমের কুসুম, পালংশাক আর সস মিশিয়ে পাস্তাকে করা হয় সুস্বাদু।  ব্রিটেনের রানী দ্বিতীয় এলিজাবেথের ছবিও তোমরা দেখেছ। তাঁর স্বামী প্রিন্স চার্লস ২০১৭ সালে ইতালির ভূমিকম্পবিধ্বস্ত এক শহরে গিয়ে পাস্তা বিতরণ করেন। 

 

কত রকম নাম

বাঁকানো, এক পাশে ঢেউ খেলানো ছোট পাস্তাকে বলা হয় ক্রেস্টে ডি গ্যাল্লো, বো টাইপের পাস্তার নাম ফ্যান্টোলিওনি। প্রজাপতির মতো দেখতে যে পাস্তা তার নাম ফারফাল্লে। খাটো, লম্বাটে কিন্তু ভেতরে ফাঁপা (মটরশুঁটির খোসার মতো) পাস্তাকে বলা হয় কাপুন্তি। কনচিগ্লিওনি পাস্তা অনেকটা শামুকের মতো দেখতে। সর্পিলাকার বাঁকানো এবং স্ক্রুর মতো প্যাঁচের এক পাস্তার নাম ফুসিলি। ইতালীয়রা প্রায়ই বলে আল দান্তে, যার অর্থ (পাস্তা) এমন হবে, খুব নরমও নয়, নয় খুব শক্তও। তাহলে হজমে সুবিধা হবে। আবার খুব নরম না হওয়ায় অনেকক্ষণ পেটেও ধরে রাখা যাবে।

মন্তব্য