kalerkantho

বুধবার । ৪ কার্তিক ১৪২৮। ২০ অক্টোবর ২০২১। ১২ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

গেম

মোহাম্মদ তাহমিদ   

২৬ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



গেম

সিনেমা ও টিভির পর্দা কাঁপানো মার্ভেল হিরোরা নতুন একটি গেমের মাধ্যমে হাজির হয়েছে স্মার্টফোনের পর্দায়ও। নতুন গেমটির নির্মাতা নেটমার্ভেল, যারা এর মধ্যেই স্মার্টফোনের জন্য উচ্চ মানের গ্রাফিকস ও কাহিনিভিত্তিক রোলপ্লেইং গেম তৈরি করে সুনাম কামিয়েছে। গেমটির নাম দেওয়া হয়েছে ‘মার্ভেল ফিউচার রেভল্যুশন’। ওপেন ওয়ার্ল্ড, থার্ড পার্সন রোল প্লেইং ঘরানার গেমটি খেলা যাবে বিনা মূল্যে।

গেমটির শুরুতে জানা যাবে, ভিলেন মোডোকের কীর্তিকলাপের ফলে মাল্টিভার্সের একাধিক পৃথিবী একে অন্যের দিকে ধেয়ে আসছে, ধ্বংস হয়ে যাবে সব কিছুই। তাকে থামাতে মার্ভেলের সব হিরো কাজ করছে, শেষ পর্যন্ত ভিশনের হাতে মোডক এবং তার নানা ধরনের মাল্টিভার্স সংস্করণ পরাজিত হলেও বিভিন্ন মাল্টিভার্সে ছিটকে পড়ে সব হিরো। এর পর থেকেই গেমটির কাহিনি শুরু। গেমারকে বেছে নিতে হবে একটি পছন্দের হিরো, সে অনুযায়ী মিশনে কিছুটা পার্থক্য পাওয়া যাবে। মূলত নতুন করে হিরো দল গঠন করে মোডকের বাহিনী এবং অন্য সব শত্রুকে পরাস্ত করে মাল্টিভার্সের সব বাসিন্দাকে রক্ষা করাই গেমটির কাজ।

দল গঠন ও মিশনের ফাঁকে গেমারের দায়িত্ব তাদের হিরোকে আপগ্রেড করা। নানা ধরনের স্কিল, সরঞ্জাম ও অস্ত্রপাতি থেকে শুরু করে তাদের পোশাক ও কাজের বেইস আপগ্রেড করাও গেমারের দায়িত্ব। সেগুলোর জন্য প্রয়োজনীয় রসদ জোগাড় করতে হবে গেমের মিশনগুলো খেলার মাধ্যমেই। গেমটি কিছুদূর খেলার পর অন্য গেমারদের সঙ্গেও নানা ধরনের মিশন খেলা যাবে অর্থাৎ গেমটিতে কিছু এমএমও ঘরানার মিশনও রয়েছে। নেটমার্ভেলের অন্যান্য গেম যারা আগেও খেলেছে তাদের কাছে এই ফিচারগুলো একেবারেই নতুন লাগবে না। আর এখানেই বলা যায়, মার্ভেল ফিউচার রেভল্যুশনের দুর্বলতা শুরু। নেটমার্ভেলের মূল সমস্যা, তারা একই গেম ইঞ্জিন ও ইন্টারফেস বারবার ব্যবহার করায় তাদের গেমগুলোকে নতুন বোতলে পুরনো শরবত বলেই মনে হতে শুরু করে। যারা এ প্রতিষ্ঠানের ‘লিনিয়েজ ২ : রেভল্যুশন’ খেলেছে, তাদের কাছে মনে হতেই পারে সে গেমে নতুন গ্রাফিকস আর গেম দুনিয়ার ম্যাপ বসিয়ে এ গেমটি তৈরি করা হয়েছে। এর মধ্যে আছে ইন্টারনেট ছাড়া গেমটি একেবারেই খেলা যাবে না এমন বিধি-নিষেধ, প্রতিনিয়ত নতুন সব আপডেট ডাউনলোডের হ্যাপা আর ইন অ্যাপ পারচেইসের জন্য ধীরে ধীরে চাপ প্রয়োগ এবং একগাদা নোটিফিকেশন দিয়ে প্রতিনিয়ত গেমারকে খেলার জন্য অনুরোধ করা। বলা যায়, ফ্রি-টু প্লে গেমিংয়ের যত সমস্যা আছে, তার বেশিটাই এই গেমটিতে পাওয়া যাবে।

তবে এত সব সমস্যার পরও গেমটি খারাপ নয়। চমৎকার সাউন্ডট্র্যাক ব্যবহার করা হয়েছে এতে, প্রতিটি হিরোর ভয়েস অ্যাক্টর চমৎকার কাজ করেছে সেটা বলা যেতেই পারে। লেভেলের ডিজাইন মোবাইল গেম হিসেবে যথেষ্ট ভালো। ইন অ্যাপ পারচেজ ছাড়াও গেমটির কাহিনি অনেক দূর সহজেই খেলা যাবে এবং গ্রাফিকস অত্যন্ত চমকপ্রদ। ইন্টারনেটনির্ভরতা আজ আর অত বড় সমস্যা নয়, নইলে মাল্টিপ্লেয়ার গেম এতটা জনপ্রিয় হতে পারত না। ইন্টারফেসটিও যথেষ্ট ভালো, রিয়েল টাইম অ্যাকশনগুলো খেলার সময় নিজেকে আসলেই মার্ভেল হিরো বলে মনে হবে। যারা দীর্ঘদিন ধরে পছন্দের হিরোদের পর্দায় দেখে আসছে, তাদের জন্য এটি হতে পারে অসাধারণ এক অভিজ্ঞতা।

 

খেলতে যা যা লাগবে

গেমটি খেলতে লাগবে বেশ শক্তিশালী ডিভাইস। অন্তত ৪ গিগাবাইট র‌্যাম, অক্টাকোর ৬৪ বিট প্রসেসর, অন্তত অ্যানড্রয়েড ৬ মার্শম্যালো অপারেটিং সিস্টেম। কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৬৬০ ব্যতীত ডিভাইসে খেলার চেষ্টা না করাই শ্রেয়। খেলতে পারবে কিশোর বয়সীরা।

 

ডাউনলোড লিংক

https://urlzs.com/YkHMR [অ্যানড্রয়েড]

https://apps.apple.com/us/app/marvel-future-revolution/id1453366542 [আইওএস]



সাতদিনের সেরা