kalerkantho

শুক্রবার। ৩১ বৈশাখ ১৪২৮। ১৪ মে ২০২১। ০২ শাওয়াল ১৪৪২

গেম

হারানো পৃথিবীর ছায়া শিকারি

এস এম তাহমিদ   

১১ এপ্রিল, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



হারানো পৃথিবীর ছায়া শিকারি

স্টিক ফাইট, শ্যাডো ফাইটের মতো গেমগুলো মোবাইল গেমারদের মধ্যে বেশ জনপ্রিয়। ফলাফল, বেশ কিছুদিন পরপরই এ ঘরানার নতুন একটি করে গেম অ্যাপ স্টোরগুলোতে হাজির হয়। তেমনি একটি গেম ‘শ্যাডো হান্টার : লস্ট ওয়ার্লড’। নতুনত্বের পরিমাণ কম হলেও গেমটি খেলতে চমৎকার।

গেমের শুরুতেই জানা যাবে, দুনিয়ায় অশুভ শক্তির হামলায় সবাই পর্যুদস্ত। এর মধ্যে এক নতুন নায়কের আবির্ভাব হয়। সে দুনিয়া উদ্ধারের কাজে নেমে পড়ে। শক্রদের পরাস্ত করতে তার আছে শুধু তলোয়ার, আর সে তলোয়ার চালানোয় বেশ দক্ষ। গেমারের দায়িত্ব এই হিরোকে নিয়ে শেষ পর্যন্ত সব শক্র পরাস্ত করে বিশ্ব থেকে সব অশুভ শক্তিকে হটানো।

গেমটি খেলতে হবে সাইড স্ক্রোলার হিসেবে, অর্থাৎ এটি থ্রিডি নয়, বরং টুডি। কিন্তু গেমটির গ্রাফিকস চমৎকার, আর এনিমেশনও মন মাতানো। টাচ স্ক্রিনেও সহজেই কন্ট্রোল করা যায় হিরোকে, এমনভাবেই গেমটি ডিজাইন করা হয়েছে। কন্ট্রোল সহজ হওয়াটা এ গেমে অত্যন্ত জরুরি, কেননা গেমটি শুরুতে কিছুটা ধীরগতির থাকলেও পরে একসঙ্গে চার-পাঁচটি শক্রর সঙ্গে একত্রে যুদ্ধ করার সময় দ্রুত চলাফেরা করতে হবে। হিরো তলোয়ার দিয়ে আঘাত করা ছাড়াও দৌড়ে গিয়ে আঘাত এবং বেশ কিছু স্পেশাল অ্যাটাক করতে সক্ষম, যেগুলো সময়মতো ব্যবহার করা রপ্ত করতে না পারলে গেমে বেশিদূর এগোনো যাবে না।

সিঙ্গল প্লেয়ার ক্যাম্পেইন বেশ কিছু পর্বে বিভক্ত। একেকটি পর্ব খুব বড় নয়, মোবাইল গেমিংয়ের জন্য যা বেশ গুরুত্বপূর্ণ। প্রতিটি পর্বে থাকবে বেশ কিছু চ্যালেঞ্জ, যেমন—নির্দিষ্ট সময়ে শেষ করা বা খুব বেশি আঘাতপ্রাপ্ত না হওয়া। সেসব পূরণ করতে পারলে পাওয়া যাবে আরো বেশি পুরস্কার। কিছু চ্যাপ্টারে আবার একটি বাড়তি অংশও থাকবে, যা শেষ করতে পারলে পাওয়া যাবে বিশেষ পুরস্কার। বেশ কিছু পর্ব শেষ করার পর আসবে বস ব্যাটল। বসকে হারাতে হলে গেমারের সর্বোচ্চ মনোযোগের প্রয়োজন হবে। বসকে হারাতে পারলে তবেই যাওয়া যাবে গেমের নতুন অংশে।

গেমারের চরিত্র কাস্টোমাইজ করার জন্য আছে অঢেল অপশন। হেলমেট, বর্ম, জুতা থেকে শুরু করে নতুন তলোয়ার, নতুন ম্যাজিক, নতুন স্কিল—এগুলো সবই লাগবে গেমে এগোতে হলে। আবার প্রতিটি জিনিস বিশেষ জাদুকরী রুনের মাধ্যমে করা যাবে আরো শক্তিশালী। এই পুরো সিস্টেমটির সঙ্গে ডিয়াবলো গেমগুলোর ভালো মিল আছে।

এখনো পরীক্ষাধীন থাকায় গেমটির আরেকটি বড় ফিচার এখনো চালু হয়নি, সেটা হচ্ছে মাল্টিপ্লেয়ার। একে অপরের সঙ্গে যুদ্ধে নামা যাবে ভবিষ্যতে, আর সে জন্য থাকবে আরো কিছু নতুন পুরস্কার। নতুন লেভেল ও বস ফাইটও সামনে যুক্ত করা হবে।

গেমটির সবচেয়ে বাজে দিক, প্রতিবার মিশন খেলতে লাগবে একটি করে কী। অর্থাৎ একই মিশন বারবার খেলতে হলে একসময় কি ফুরিয়ে যাবে, সেটি কিনতে হবে ইন-অ্যাপ পারচেজের মাধ্যমে অথবা অপেক্ষা করতে হবে বেশ কিছু সময়। এই সিস্টেমটি প্রায় এক দশক পুরনো, ঠিক কেন নতুন গেমেও নির্মাতারা এটি যুক্ত করেছে তা বোধগম্য নয়। এর সঙ্গে আছে ব্যাটল পাস, আবার নানা ধরনের মুদ্রা, যা গেম খেলে কামানোর চেয়ে সরাসরি কিনে নেওয়াই সহজ। বিনা মূল্যে গেমটি খেলা গেলেও এই ইন-অ্যাপ পারচেজের চাপ গেমারদের মনে বিরক্তির কারণ হবে।

 

ডাউনলোড লিংক

https://play.google.com/store/apps/details?id=com.enigma.shadowhunter&hl=bn&gl=US  

 

বয়স

গেমটি সব বয়সীর জন্য, খেলতেও তেমন শক্তিশালী ডিভাইস লাগবে না।