kalerkantho

বুধবার । ২৩ অক্টোবর ২০১৯। ৭ কাতির্ক ১৪২৬। ২৩ সফর ১৪৪১                 

মোবাইল রিভিউ

শাওমির এন্ট্রি লেভেলের ফোন

আশরাফুল ইসলাম   

১৬ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



শাওমির এন্ট্রি লেভেলের ফোন

দেশের বাজারে এসেছে শাওমির এন্ট্রি লেভেলের ডিভাইস ‘রেডমি গো’। ডিভাইসটিতে রয়েছে অ্যানড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেমের ‘গো’ সংস্করণের ওএস।

 

ডিজাইন

ডিভাইসটির ডিজাইন সাদামাটা। প্লাস্টিক বডির ডিভাইসটির পেছনে রয়েছে ক্যামেরা ও ফ্ল্যাশ। ফোনের ডান পাশে রয়েছে পাওয়ার এবং ভলিউমের আপ ও ডাউন বাটন। বাম পাশে রয়েছে সিম ও মেমোরি কার্ড স্লট। ডিভাইসটির নিচের দিকে রয়েছে স্পিকার ও মাইক্রো ইউএস রিচার্জিংপোর্ট। ওপরের দিকে রয়েছে ৩.৫ এমএম অডিও জ্যাক।

্এন্ট্রি লেভেলের ডিভাইসের মধ্যে সম্প্রতি দেশে উন্মোচন হওয়া ‘ইউমিডিজি এ৩’র রয়েছে গ্লাস বডি। এ ছাড়া এই বাজেটের কাছাকাছি ‘ইনফিক্স হট এস৩’র ডিজাইনও গো থেকে সুন্দর। ডিভাইস দুটিতেই রয়েছে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর, যা শাওমি গো ফোনে নেই।

 

ডিসপ্লে

ফোনটিতে রয়েছে আইপিএসএলসিডি ক্যাপাসিটিভ ৫ ইঞ্চি ডিসপ্লে। এটির রেজল্যুশন ৭২০ বাই ১২৮০ পিক্সেল এবং যা ২৯৪পিপি আইসমৃদ্ধ। বাজেট অনুযায়ী ফোনটি ব্যবহার করে মোটামুটি মানের ভিডিও দেখা যাবে। দিনের আলোতে ভিউ অ্যাঙ্গেল তেমন ভালো নয়। বাজেট অনুযায়ী ডিসপ্লে মান মন্দ নয় বলা যায়।

তবে ডিসপ্লের সাইজ যদি আরেকটু বড় হতো, তাহলে ভালো হতো। ব্যবহারকারীরা ভিডিও দেখে মজা পেতেন। প্রায় একই বাজেটের এ থেকে বড় ডিসপ্লের ফোন রয়েছে। যেমন—‘ওয়ালটন প্রিমো জিএম৩’, ইউমিজির ‘এ৩’,  ‘ইনফিনিক্স হট এস৩’ ফোনের ডিসপ্লে সাইজ যথাক্রমে ৫.৩, ৫.৫ এবং ৫.৭ ইঞ্চি।

 

হার্ডওয়্যার

ডিভাইসটিতে রয়েছে কোয়াড কোর ১.৪ গিগাহার্টজ কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৪২৫ প্রসেসর। এই বাজেটের ফোনে স্ন্যাপড্রাগন প্রসেসর ফোনটির একটি ভালো দিক বলা যায়।

এতে রয়েছে ১ গিগাবাইট র‌্যাম ও ৮ গিগাবাইট অভ্যন্তরীণ মেমোরি। চাইলে মাইক্রো এসডি কার্ড ব্যবহার করে মেমোরি ১২৮ গিগাবাইট পর্যন্ত বাড়িয়ে নেওয়া যাবে।

তবে দেশের বাজারে এই বাজেটের বেশির ভাগ ফোনে ২/৩ গিগাবাইট র‌্যাম রয়েছে। ১ গিগাবাইট র‌্যাম থাকায় একত্রে একাধিক অ্যাপ ব্যবহারে ল্যাগের দেখা মিলবে গো ফোনটিতে। তবে অ্যানড্রয়েড গো-এর জন্য বিশেষভাবে তৈরি গুগলের লাইট অ্যাপগুলো চালাতে কোনো সমস্যা হবে না।

‘টেম্পল রান’, ‘সাবওয়ে সাফার’-এর মতো লো গ্রাফিকসের গেইমগুলো সহজেই খেলা যাবে। তবে হাই গ্রাফিকসের কোনো গেইম চলবে না। যদিও এই বাজেটের ফোনে হাই গ্রাফিকসের গেইম খেলার আশা করাও বোকামি।

গেইম খেললে ডিভাইসটি গরম হয় দ্রুত। সাবওয়ে সাফার টানা ১০ মিনিট খেলার পরে লক্ষ করা গেছে ডিভাইসটি গরম হয়ে গিয়েছে। এ ছাড়া ফোনটিতে ব্লুটুথ, ওয়াই-ফাই, এফএম ইত্যাদি সুবিধা তো রয়েছেই।

 

ব্যাটারি

ডিভাইসটিতে রয়েছে তিন হাজার মিলি-অ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি, যা দিয়ে মোটামুটি একদিন ব্যাকআপ সুবিধা পাওয়া যাবে। তবে জিপিএস বা মোবাইল ডাটা ব্যবহার করলে দিনে দুইবার চার্জ দিতে হবে ডিভাইসটি।

 

দাম

এক বছরের অফিশিয়াল ওয়ারেন্টিসহ ডিভাইস মূল্য ছয় হাজার ৯৯৯ টাকা।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা