kalerkantho

শনিবার । ২৪ শ্রাবণ ১৪২৭। ৮ আগস্ট  ২০২০। ১৭ জিলহজ ১৪৪১

টিপস

ল্যাপটপ গরম হওয়া থেকে বাঁচার উপায়

তামজীদ রহমান লিও   

৫ জুলাই, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ল্যাপটপ গরম হওয়া থেকে বাঁচার উপায়

ডেস্কটপ কম্পিউটার থেকে ল্যাপটপ ব্যবহারের সবচেয়ে বড় ও হতাশাজনক যে সমস্যার মুখোমুখি হতে হয় তা হচ্ছে, ল্যাপটপ খুব দ্রুত গরম হয়ে যায়। এটা যেমন খুবই বিরক্তিকর, সেই সঙ্গে অসুবিধার কারণও বটে। ল্যাপটপ বেশি গরম হলে তার প্রভাব এটির বিভিন্ন যন্ত্রাংশের ওপরও পড়ে। অর্থাৎ যন্ত্রাংশগুলো খুব তাড়াতাড়ি নষ্ট হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা তৈরি হয়। যদিও ডেস্কটপ কম্পিউটারের তুলনায় ল্যাপটপ ঠাণ্ডা করতে বেশ কিছুটা বেগ পেতে হয়, তার পরও কিছু বিষয় মানলে ল্যাপটপ খুব বেশি গরম হয়ে যাওয়ার হাত থেকে রক্ষা করা যাবে।

 

সব সময় পরিষ্কার রাখুন

ল্যাপটপে যদি প্রচুর পরিমাণে ধুলাবালি জমে, তাহলে ল্যাপটপ ঠাণ্ডা করার জন্য যে কুলিং ফ্যান থাকে সেটি ঠিকমতো কাজ করতে পারে না। ফলে ল্যাপটপ অধিক গরম হয়ে যায়। ঘরবাড়ি যতই পরিষ্কার রাখুন না কেন, সামান্য হলেও ধুলাবালি ল্যাপটপে প্রবেশ করবেই। এ ক্ষেত্রে নির্দিষ্ট দিন পর পর ল্যাপটপ পরিষ্কার করতে হবে, যেন ল্যাপটপের ফ্যান যথাযথভাবে চলতে পারে।

 

ল্যাপটপ রাখুন সমান্তরাল জায়গায়

ল্যাপটপটি আপনি যদি টেবিল অথবা যেকোনো সমান্তরাল জায়গায় রেখে ব্যবহার করেন, তাহলে ল্যাপটপ গরম হওয়ার আশঙ্কা অনেকখানি কমে যায়। তবে এটা খুব কষ্টসাধ্য ব্যাপার। কারণ বেশির ভাগ মানুষ ল্যাপটপ কেনে আরাম করে বিছানায় বসে পায়ের ওপর অথবা পাশে রেখে ব্যবহার করার জন্য। তবে যদি ল্যাপটপ গরম হওয়া থেকে বাঁচাতে চান, তাহলে আপনাকে অবশ্যই এ অভ্যাস ছাড়তে হবে।

 

কুলার ব্যবহার

ল্যাপটপকে গরম হওয়া থেকে বাঁচানোর সবচেয়ে সহজ উপায় হচ্ছে কুলারের ব্যবহার। ল্যাপটপের আঁটসাঁট ডিজাইনের কারণে ল্যাপটপ গরম হওয়া খুব স্বাভাবিক। কেননা অল্প জায়গার কারণে ঠাণ্ডা করার জন্য প্রয়োজনীয় যন্ত্রাংশ ল্যাপটপে দেওয়া সম্ভব হয় না। তাই বাইরে থেকে আলাদাভাবে ঠাণ্ডা করার ব্যবস্থা করতে হয়। বাজারে অনেক ধরনের ল্যাপটপ কুলার পাওয়া যায়। চাইলে সেসব সংগ্রহ করে নিতে পারেন।

 

ল্যাপটপের সেটিংস পরিবর্তন

ল্যাপটপের কিছু সেটিংস পরিবর্তন করেও ল্যাপটপটি ঠাণ্ডা রাখা যায়। তবে এটুকু নিশ্চিত করতে হবে যে যেই মানের গেম খেলা অথবা কাজের জন্য ল্যাপটপটি কিনেছেন সেই কাজ করার মতো ক্ষমতা আপনার ল্যাপটপটির আছে কি না। সেই সঙ্গে ল্যাপটপের ড্রাইভারগুলো নিয়মিত পরীক্ষা করতে হবে এবং হালনাগাদ রাখতে হবে। স্ক্রিনের উজ্জ্বলতা কমিয়ে দেওয়ার পাশাপাশি কাজ করছেন না এমন প্লাগ-ইনগুলোও বন্ধ করে দিতে পারেন। এ ছাড়া পাওয়ার ম্যানেজমেন্ট সেটিংসে কিছু অপশন পাওয়া যায়, যেখান থেকে কতখানি শক্তি ব্যবহৃত হবে সেটাও নিয়ন্ত্রণ করা যায়।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা