kalerkantho

মঙ্গলবার । ৫ ফাল্গুন ১৪২৬ । ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০। ২৩ জমাদিউস সানি ১৪৪১

আগাম দেখা মিলল তাদের

প্রতিবছরের মতো এবারও বসেছিল বিশ্বের অন্যতম বড় প্রযুক্তি প্রদর্শনী ‘কনজিউমার ইলেকট্রনিকস শো’ বা ‘সিইএস’। লাস ভেগাসে হয়ে যাওয়া এই প্রদর্শনীতে নির্মাতারা হাজির হয়েছিলেন নতুন সব প্রযুক্তি ও গ্যাজেট নিয়ে। সেসবের খোঁজ নিয়ে জানাচ্ছেন এস এম তাহমিদ

১৯ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



আগাম দেখা মিলল তাদের

অ্যাভাটার কনসেপ্ট গাড়িটির সঙ্গে ‘অ্যাভাটার’-এর পরিচালক জেমস ক্যামেরন

এ বছর নতুন যত প্রযুক্তি ও গ্যাজেট আসবে তার প্রায় সবই তুলে ধরেছিল অংশ নেওয়া প্রতিষ্ঠানগুলো। বর্তমান ডিভাইসগুলোর নতুন মডেল থেকে শুরু করে সায়েন্স ফিকশনকে বাস্তব করার চেষ্টা বা শুধু খেয়ালের বশে তৈরি প্রযুক্তির সবই হাজির ছিল এবারের মেলায়।

 

টিভি ও অডিও

স্যামসাং দেখিয়েছে বেজেলহীন ৮কে পর্দার টিভি, এ বছর থেকেই সেটি বাজারে পাওয়া যাবে। মাইক্রোএলইডি প্রযুক্তির টিভিটির কন্ট্রাস্ট আগের চেয়ে অনেক বেশি, কালারের গভীরতাও আগের চেয়ে বেশ বৃদ্ধি পেয়েছে। ডলবি ভিশনের নতুন সংস্করণও সিইএসে প্রকাশ করা হয়েছে। নতুন টিভিগুলো আরো অনেক বেশি জীবন্ত ছবি দেখাতে পারবে। এলজি হাজির করেছিল হাইব্রিড টিভি, যা ফ্ল্যাট বা কার্ভ—দুইভাবেই ব্যবহার করা যাবে। এনভিডিয়া ও আসুস ৩০০ হার্জ রিফ্রেশ রেটের গেমিং মনিটর উন্মোচন করেছে এবারের প্রদর্শনীতে। টেকনিকস, অডিও টেকনিকা ও জেবিএল নতুন হেডফোন উন্মোচন করেছে। এসব দেখে মনে হচ্ছে, প্রতিটি কম্পানি ট্রু-ওয়্যারলেস হেডফোনের দিকেই ঝুঁকছে।

 

ছিল সব বিস্ময়কর প্রযুক্তিও

মার্সিডিজ যে প্রদর্শনীতে গাড়ি নিয়ে হাজির হবে এটাই তো স্বাভাবিক। হয়েছেও তা-ই, তাদের অ্যাভাটার কনসেপ্ট গাড়িটিতে থাকছে ড্যাশবোর্ডজোড়া ডিসপ্লে, পেছনের গ্লাস অস্বচ্ছ করে দেওয়ার প্রযুক্তি, পুরোপুরি ইলেকট্রিক ড্রাইভিং এবং আরো অনেক কিছু। সনিও সবাইকে অবাক করে দিয়ে নিজস্ব ডিজাইনের গাড়ি দেখিয়েছে, যদিও তারা সেটি উৎপাদনে যাবে কি না তা পরিষ্কার নয়।

হুন্দাই ও উবার ঘোষণা দিয়েছে যৌথভাবে ২০২৩ সালে উড়ন্ত ট্যাক্সিসেবা শুরু করার। টয়লেট পেপার বহনকারী রোবট কতটুকু কাজে লাগবে সেটা পরিষ্কার না হলেও সেটিও হাজির হয়েছিল সিইএসে। স্যামসাং তাদের কৃত্রিম মানব ও রোবট প্রজেক্টের নতুন আবিষ্কারগুলো তুলে ধরেছে। নতুন একটি রোবট তারা সম্ভবত এ বছরই বাজারে আনতে যাচ্ছে।

কম্পিউটিং

নতুন প্রসেসর নিয়ে হাজির হয়েছিল ইন্টেল ও এএমডি। ইন্টেল তেমন নতুন কিছু দেখাতে না পারলেও এএমডি দেখিয়ে দিয়েছে তাদের নতুন ল্যাপটপের প্রসেসরের বিস্ময়কর শক্তি এবং ব্যাটারিসাশ্রয়ী প্রযুক্তি। গেমিং নির্মাতা প্রতিষ্ঠান এলিয়েনওয়্যার প্রজেক্ট ইউএফওর মাধ্যমে দেখিয়েছে, নিনটেন্ডো সুইচের আকারের গেমিং পিসি তৈরি করা শুধু সম্ভবই নয়, বাজারেও আনা সম্ভব। রেজার এনেছে ‘মডিউলার পিসি’, এটিকে বলা যায় ম্যাক প্রোর উইন্ডোজ সংস্করণ। ডেল, লেনোভো এবং অন্য নির্মাতারা তুলে ধরেছে নিজেদের নতুন মডেলের সব ল্যাপটপ, যার মধ্যে সবার নজর কেড়েছে লেনোভোর ভাঁজযোগ্য ডিসপ্লের ল্যাপটপ।

 

ছিল স্মার্টফোনও

ওয়ানপ্লাস, স্যামসাং থেকে টিসিএল পর্যন্ত সবাই নতুন ফোন মডেল নিয়ে হাজির হয়েছিল। তবে নতুন ফোন নয়, বরং ভবিষ্যতের ফোনগুলোতে নতুন কী প্রযুক্তির দেখা মিলবে তারই কিছু ঝলক দেখা গেছে এবারের সিইএস আসরে। স্যামসাং দেখিয়েছে, ব্যবহারকারীরা ফোনের সামনে টেবিলে কি-বোর্ডে টাইপ করার মতো করে আঙুল নাড়লেই তা স্ক্যান করে ব্যবহারকারী কী লিখছেন তা শনাক্ত করতে পারবে। আর সে জন্য তাদের কোনো লেজার বা মোশন স্ক্যানারেরও দরকার হবে না, শুধু সেলফি ক্যামেরাতেই তা কাজ করবে। এ বছর তারা নতুন একটি ফোল্ডিং ফোন বাজারে আনবে আর সেটি হবে মটো রেজারের মতো ভার্টিক্যাল ফোল্ডিং, সেটিও তারা দেখিয়েছে। টিসিএল দেখিয়েছে নতুন কিছু মডেলের ফোন আর রেজার দেখিয়েছে গেম স্ট্রিমিং সেবার সঙ্গে ব্যবহারের জন্য নতুন কন্ট্রোলার।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা