kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১ নভেম্বর ২০২২ । ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ ।  ৬ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

বায়ার্নের রেকর্ডের রাতে বার্সার হার

৬ অক্টোবর, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বায়ার্নের রেকর্ডের রাতে বার্সার হার

‘মৃত্যুকূপ’-এ তলিয়ে যাওয়ার শঙ্কায় এখন বার্সেলোনা। নিজেদের হারিয়ে খোঁজা ইন্টার মিলান লেভানদোস্কিদের হারিয়েছে ১-০ গোলে। ২০১০ সালের পর চ্যাম্পিয়নস লিগে এবারই প্রথম কাতালানদের হারাল ইন্টার। গ্রুপের অপর ম্যাচে ভিক্তোরিয়া প্লজেনকে ৫-০ গোলে বিধ্বস্ত করে নতুন উচ্চতায় বায়ার্ন মিউনিখ।

বিজ্ঞাপন

জোড়া গোল লিরয় সানের, একবার করে লক্ষ্যভেদ সাদিও মানে, সার্জ জিনাব্রি ও এরিক চোপো মোটিংয়ের। এই জয়ে গ্রুপ পর্বে টানা ৩১ ম্যাচ অপরাজিত থাকার রেকর্ডটা এখন বায়ার্নের। ২০১২-২০১৭ পর্যন্ত ৩০ ম্যাচ অপরাজিত থাকার আগের কীর্তিটা ছিল রিয়াল মাদ্রিদের। গ্রুপ ‘সি’তে সমান তিন ম্যাচ শেষে বায়ার্নের পয়েন্ট ৯, ইন্টারের ৬, বার্সেলোনার ৩ আর প্লজেনের ০।

অন্য ম্যাচে নাপোলি ৬-১ গোলে বিধ্বস্ত করেছে ১০ জনের আয়াক্সকে। দুই গোল গিয়াকোমো রাসপাডোরির, একটি করে গোল দি লরেঞ্জো, পিওতর জিলেনেস্কি, খভিচা কভারতসখেলিয়া ও জিওভানি সিমিওনর। নিজেদের ৯৬ বছরের ইতিহাসে ইউরোপিয়ান প্রতিযোগিতায় এটাই সবচেয়ে বড় জয় নাপোলির। তেমনি চ্যাম্পিয়নস লিগে আয়াক্সেরও বড় হার এটা। পরশু রেঞ্জার্সকে ২-১ গোলে হারিয়ে দুইয়ে উঠে এসেছে লিভারপুল। একটি করে গোল আলেকজান্ডার আরনল্ড ও মো সালাহর। গ্রুপ ‘বি’তে ক্লাব ব্রুজের কাছে ২-০ গোলে হেরে এখন তলানিতে অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদ।

মিলানে বিরতির ঠিক আগে হাকান চালহানোলুর গোলে বার্সার বিপক্ষে এগিয়ে যায় ইন্টার। রবার্ত লেভানদোস্কি বিবর্ণ ছিলেন ম্যাচজুড়ে। ৬৬ মিনিটে পেদ্রি বল জালে পাঠালেও আনসু ফাতির হ্যান্ডবলের জন্য বাতিল হয় গোলটি। এরপর ইনজুরি টাইমে ডামফ্রিসের হাতে বল লাগলেও ভিএআরে দেখে রেফারি পেনাল্টি না দেওয়ায় বার্সা কোচ জাভি এর্নান্দেসের ক্ষোভ, ‘ভীষণ রেগে আছি। খোলাখুলি বলছি, এটা অবিচার। রেফারির মুখ খোলা উচিত। ’ ইএসপিএন



সাতদিনের সেরা