kalerkantho

মঙ্গলবার । ৬ ডিসেম্বর ২০২২ । ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ । ১১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

আসল পরীক্ষা তো শুরু আজ

নিগার সুলতানারা অবশ্য জানতেন, দেশে ফিরেই এশিয়া কাপের শিরোপা ধরে রাখার লড়াইটা অত সহজ হবে না। কারণ এই আসরে আছে প্রবল প্রতিপক্ষ ভারত আর পাকিস্তানও। সুবাদে কঠিন একেকটি পরীক্ষার মুখে পড়াও নিশ্চিত তাঁদের। সিলেটে যেমন আজ স্বাগতিকদের প্রথম পরীক্ষায় সামনে এসে দাঁড়াচ্ছে পাকিস্তান।

ইয়াহইয়া ফজল, সিলেট   

৩ অক্টোবর, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



আসল পরীক্ষা তো শুরু আজ

বিশ্বসেরা : অলরাউন্ডার রুমানা আহমেদ বলেছেন, বিশ্বসেরা স্পিনার আছেন বাংলাদেশ দলেই। তিনি সালমা খাতুন। সিলেটে আজ নারী টি-টোয়েন্টি এশিয়া কাপের ম্যাচে পাকিস্তানকে স্পিন দিয়ে কাবু করার লক্ষ্যে এ অফস্পিনারই হবেন অধিনায়ক নিগার সুলতানার সবচেয়ে বড় অস্ত্র। ছবি : বিসিবি

আবুধাবিতে নারী টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ বাছাই পর্বে বাংলাদেশের চ্যাম্পিয়ন হওয়াটা প্রত্যাশিতই ছিল। সহযোগী সদস্য দেশগুলোর সঙ্গে প্রতিটি লড়াই যে অসম ছিল একরকম। নিগার সুলতানারা অবশ্য জানতেন, দেশে ফিরেই এশিয়া কাপের শিরোপা ধরে রাখার লড়াইটা অত সহজ হবে না। কারণ এই আসরে আছে প্রবল প্রতিপক্ষ ভারত আর পাকিস্তানও।

বিজ্ঞাপন

সুবাদে কঠিন একেকটি পরীক্ষার মুখে পড়াও নিশ্চিত তাঁদের। সিলেটে যেমন আজ স্বাগতিকদের প্রথম পরীক্ষায় সামনে এসে দাঁড়াচ্ছে পাকিস্তান।

দুই দলের মুখোমুখি লড়াইয়ের ইতিহাসে অবশ্য বিসমাহ মারুফের দলেরই একচ্ছত্র আধিপত্য। যদিও মালয়েশিয়ায় ২০১৮ সালে টি-টোয়েন্টি সংস্করণে হওয়া এশিয়া কাপে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পথে পাকিস্তানকেও হারিয়েছিল বাংলাদেশ। যে কারণে এখন মাঠে দেখা হলে সেটি শুধু আর পাকিস্তানের চোখ রাঙানির গল্প হয়ে থাকে না। পাল্টা চোখ রাঙায় বাংলাদেশও। যেমন রাঙালেন অলরাউন্ডার রুমানা আহমেদও। এই সংস্করণে ১৭ বারের দেখায় নিষ্পত্তি হয়েছে ১৫ ম্যাচে। এর মধ্যে বাংলাদেশের একমাত্র জয়টি সর্বশেষ এশিয়া কাপেই। রুমানা সেই উদাহরণ টানলেন, একই সঙ্গে এ বছরই ওয়ানডে বিশ্বকাপে পাকিস্তানকে হারানোর কথাও মনে করিয়ে দিতে ভুললেন না, ‘সর্বশেষ (ওয়ানডে) বিশ্বকাপে আমরা ওদের হারিয়েছি। ওদের বিপক্ষে জিতেছি টি-টোয়েন্টিও। পাকিস্তানের বিপক্ষে বেশ কিছু অর্জনই তাই আছে আমাদের। শেষ অনেক দিন ওদের কাছে আমরা হারিওনি। এবারও আমাদের মেয়েরা অবশ্যই ভালো কিছু করবে। আগের এশিয়া কাপেও আমরা ভালো করেছি। এখানেও আমরা খুব সিরিয়াস। নিজেদের সেরাটাই দেব। ’

বর্তমান চ্যাম্পিয়নদের মুখোমুখি হওয়ার আগে কাল মালয়েশিয়াকে ৯ উইকেটে হারিয়েছে পাকিস্তান। আসরের উদ্বোধনী ম্যাচে থাইল্যান্ডের বিপক্ষে একই ব্যবধানে জিতেছে বাংলাদেশও। যে ম্যাচে ১৭.৪ ওভারই বোলিং করেছেন স্পিনাররা। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ভারতীয় দলও এক পেসারদের দিয়ে করিয়েছিল মাত্র ২ ওভার। তা ছাড়া সিলেটের আউটার স্টেডিয়ামের উইকেট যখন স্পিনারদের দিকেই বন্ধুত্বের হাত বাড়িয়ে রাখছে, তখন দুই দলই জেতার জন্য স্পিনে আস্থা রাখছে। কিন্তু পাকিস্তানের ব্যাটারদের আবার ভালো স্পিন সামলানোর খ্যাতি আছে। যদিও রুমানার কাছে এই তথ্যও খুব গুরুত্ব পেল না বোধ হয় এ জন্যই যে বিরুদ্ধ কন্ডিশনেও স্পিন নিয়ে পাকিস্তানি ব্যাটারদের নাকাল করে ছাড়া গেছে। নিউজিল্যান্ডের হ্যামিল্টনে গত ১৪ মার্চের ওয়ানডে বিশ্বকাপের ম্যাচেই যেমন পাকিস্তানের ৬ উইকেট তুলে নিয়েছিলেন বাংলাদেশের স্পিনাররা। ৯ রানের জয়ে লেগস্পিনার ফাহিমা খাতুন ৩৮ রানে নিয়েছিলেন ৩ উইকেট। আরেক লেগি রুমানাও ২ শিকার ধরেন ২৯ রানে। অফস্পিনার সালমা খাতুনও অবদান রাখেন ২৯ রানে ১ উইকেট নিয়ে। এবার যখন খেলা নিজেদের মাঠেই, তখন স্পিনে প্রতিপক্ষকে আরো বেশি কাবু করার আশা রুমানার। নিজেদের দলেই যিনি একজন বিশ্বসেরা স্পিনারের উপস্থিতি দেখেন, ‘আমরা যাকে বিশ্বের সেরা স্পিনার মনে করি, তিনি সালমা আপু। উনি যে স্পেলটি করেন, সেটি অসাধারণ। ’

সালমাকে যোগ্য সংগত দেওয়ার মতো স্পিনারও দলে আছেন একাধিক। যে কারণে একদিকে পাকিস্তানি ব্যাটাররা স্পিন ভালো খেলেন বলে রুমানা মানছেন বটে, একই সঙ্গে স্পিন দিয়েই তাদের হারানোর হুঙ্কারও দিয়ে রাখছেন। আর নিজেদের স্পিনারদের ক্রমেই আরো পরিণত হতে দেখার ব্যাপারটিও এই অলরাউন্ডারকে এমন আত্মবিশ্বাসী করে তুলেছে যে পাকিস্তানকে হারাতে স্পিনাররাই যথেষ্ট বলে মনে করছেন, ‘এটি ঠিক যে ওরা স্পিন ভালো খেলে। কিন্তু আমরা তো বরাবরই স্পিন দিয়েই ওদের আক্রমণ করে এসেছি। তা ছাড়া আমাদের স্পিনাররা আগে যেমন করত, তার চেয়েও বেশি ভালো বোলিং করছে এখন। আমরা যে ম্যাচগুলো খেলেছি, দেখেছি যে স্পিনাররা নিজেদের সেরাটিই দিয়ে আসছে। আমি মনে করি, এখানেও (সিলেটে) পাকিস্তানকে হারাতে আমাদের স্পিনই যথেষ্ট। ’ আদৌ যথেষ্ট হবে কি না, আজ সকাল ৯টায় শুরু হতে যাওয়া ম্যাচ থেকেই মিলবে এর উত্তর।



সাতদিনের সেরা