kalerkantho

শনিবার । ১০ ডিসেম্বর ২০২২ । ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ । ১৫ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

কক্ষে বায়ার্ন, লন্ডন ডার্বি আর্সেনালের

২ অক্টোবর, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কক্ষে বায়ার্ন, লন্ডন ডার্বি আর্সেনালের

গ্যাব্রিয়েল জেসুস : ৯ ম্যাচে ৫ গোল

তাঁর বাবা নাইজেরীয়, মা জার্মান। বেড়ে ওঠা ইংল্যান্ডে। ইংল্যান্ডের জার্সিতে খেলেছেন অনূর্ধ্ব-২১ দলে। প্রতিভার বিচ্ছুরণ দেখালেও জামাল মুসিয়ালাকে ধরে রাখেনি ইংল্যান্ড।

বিজ্ঞাপন

বায়ার্ন মিউনিখে আলো ছড়ানো ১৯ বছরের এই তরুণ বেছে নিয়েছেন জার্মানিকে। লেফট উইঙ্গার, অ্যাটাকিং মিডফিল্ডার কিংবা সেন্ট্রাল মিডফিল্ডার—খেলতে পারেন সব পজিশনে। জার্মান কিংবদন্তি লোথার ম্যাথুজ গত সপ্তাহেই লিওনেল মেসির সঙ্গে তুলনা করেছেন তাঁর, ‘জামালকে দেখে আমার তিন বছর আগের মেসির কথা মনে হয়। বড় তারকা হতে যাচ্ছে ও। ইংল্যান্ডকে ধন্যবাদ, এমন একজন প্রতিভাবে জার্মানির হাতে তুলে দেওয়ার জন্য!’

সেই জামাল মুসিয়ালার দ্যুতিতে বুন্দেসলিগায় কক্ষে ফিরল বায়ার্ন মিউনিখ। আন্তর্জাতিক বিরতির আগে টানা তিন ড্রর পর অগসবুর্গের কাছে হেরেই গিয়েছিল ইউলিয়ান নাগালসমানের দল। বেয়ার লেভারকুজেনকে ৪-০ গোলে উড়িয়ে চার ম্যাচ পর জিতল তারা। জামাল এক গোল করার পাশাপাশি অ্যাসিস্ট করেছেন দুটি।

এ ছাড়া গতকাল নর্থ লন্ডন ডার্বিতে ১০ জনে পরিণত হওয়া টটেনহামকে ৩-১ গোলে হারিয়েছে আর্সেনাল। একটি করে গোল থমাস পার্টি, গ্যাব্রিয়েল জেসুস ও গ্রানিত জাকার। টটেনহামের হয়ে পেনাল্টি থেকে একমাত্র গোলটি হ্যারি কেইনের। তাতে প্রিমিয়ার লিগে প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে প্রতিপক্ষের মাঠে ১০০ গোল করার রেকর্ডটা এখন কেইনের। ৬২ মিনিটে এমারসন রয়াল লাল কার্ড দেখলে আর লড়াই করতে পারেনি টটেনহাম। এছাড়া রোমাঞ্চকর ম্যাচে ৩-৩ গোলে ড্র করেছে লিভারপুল-ব্রাইটন। অন্য ম্যাচে শেষ মিনিটের গোলে চেলসি ২-১ ব্যবধানে হারায় ক্রিস্টাল প্যালসকে।

নিজেদের মাঠে তৃতীয় মিনিটেই লিরয় সানের গোলে এগিয়ে গিয়েছিল বায়ার্ন মিউনিখ। ১৭ মিনিটে জামাল ব্যবধান দ্বিগুণ করেন টমাস মুলারের সঙ্গে ওয়ান টু ওয়ানে খেলে। ৩৯ মিনিটে জামালের অ্যাসিস্টে পাঁচ ম্যাচের গোলখরা কাটান সাদিও মানে। ৮৪ মিনিটে শেষ গোলটি মুলারের। লেভারকুজেনকে বিধ্বস্ত করলেও এক জয়ে যে বায়ার্ন স্বরূপে ফেরেনি, সেটা স্মরণ করিয়ে দিলেন মুসিয়ালা, ‘আমাদের আরো অনেক ম্যাচ এ রকম খেলতে হবে। তাই বলতে পারি না, এখনই আমরা ফিরে এসেছি। ’ ইএসপিএন



সাতদিনের সেরা