kalerkantho

শুক্রবার । ৯ ডিসেম্বর ২০২২ । ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ । ১৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

তারকাদের শুভ কামনায় হকির নতুন শুরু

১ অক্টোবর, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



তারকাদের শুভ কামনায় হকির নতুন শুরু

হকির স্বপ্নযাত্রায় শুভ কামনা জানাতে আসেন অন্য খেলার তারকারাও। ক্রিকেট তারকা মাহমুদ উল্লাহ, আর্চার রোমান সানা, শাটলার এলিনা সুলতানা, হকির রাসেল মাহমুদের সঙ্গে মঞ্চে ওঠেন ফিফা কাউন্সিল সদস্য মাহফুজা আক্তার কিরন, অভিনেত্রী নাজিফা তুষি ও ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্যাকোর ব্যবস্থাপনা পরিচালক শেহজাদ মুনিম। তাঁরাই হকির চ্যাম্পিয়নস ট্রফির লোগো অবমুক্ত করেন। ছবি : কালের কণ্ঠ

হকির ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগের স্লোগান ‘হকির স্বপ্নযাত্রার এইতো শুরু’। এই শুরুটা করে দিতেই গতকাল বসুন্ধরা কনভেনশন হলে বসে তারার মেলা। হকির রাসেল মাহমুদ তো ছিলেনই, সঙ্গী অন্য খেলার তারকারাও। ক্রিকেটের নুরুল হোসেন সোহান ও মাহমুদ উল্লাহ, আর্চার রোমান সানা, নারী ব্যাডমিন্টনের এলিনা সুলতানা।

বিজ্ঞাপন

তাঁদের পাশে ফিফার কাউন্সিল সদস্য মাহফুজা আক্তার কিরণ, অভিনেত্রী নাজিফা তুষি ও ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্যাকোর ব্যবস্থাপনা পরিচালক শেহজাদ মুনিম। তাঁরাই টুর্নামন্টের লোগো অবমুক্ত করে হকির স্বপ্নযাত্রায় শুভ কামনা জানিয়েছেন।

 

ক্রীড়া প্রতিবেদক : হকির ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগের স্লোগান ‘হকির স্বপ্নযাত্রার এইতো শুরু’। এই শুরুটা করে দিতেই গতকাল বসুন্ধরা কনভেনশন হলে বসে তারার মেলা। হকির রাসেল মাহমুদ তো ছিলেনই, সঙ্গী অন্য খেলার তারকারাও। ক্রিকেটের নুরুল হোসেন সোহান ও মাহমুদ উল্লাহ, আর্চার রোমান সানা, নারী ব্যাডমিন্টনের এলিনা সুলতানা। তাঁদের পাশে ফিফার কাউন্সিল সদস্য মাহফুজা আক্তার কিরণ, অভিনেত্রী নাজিফা তুষি ও ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্যাকোর ব্যবস্থাপনা পরিচালক শেহজাদ মুনিম। তাঁরাই টুর্নামন্টের লোগো অবমুক্ত করে হকির স্বপ্নযাত্রায় শুভ কামনা জানিয়েছেন।

হকির পুনর্জাগরণ ঘটাতে স্পোর্টস ম্যানেজমেন্ট কম্পানি ‘এইস’ ও হকি ফেডারেশনের উদ্যোগে ছয়টি দল নিয়ে ঢাকায় হবে হকি চ্যাম্পিয়নস ট্রফি। অংশ নিচ্ছে ছয়টি দল। আগামী ২৮ অক্টোবর শুরু হবে এই ফ্রাঞ্চাইজি হকি লিগ। অক্টোবরের দ্বিতীয় সপ্তাহে হবে প্লেয়ারস ড্রাফট, বিপ টেস্টে উত্তীর্ণ হয়েই ড্রাফটে নাম লিখিয়েছেন খেলোয়াড়রা। এর আগে ছয়টি দল পেয়ে গেছে তাদের প্রধান ও সহকারী কোচ। প্রতিটি দলের প্রধান কোচ হিসেবে থাকছেন একজন বিদেশি। আর সহকারী হিসেবে থাকছেন একজন দেশি কোচ, যা এরই মধ্যে চূড়ান্ত হয়ে গেছে। বাংলাদেশ হকিতে ফ্রাঞ্চাইজি লিগ এই প্রথম। তাই ক্রীড়াঙ্গনে এ নিয়ে আগ্রহও বেশ। এটা দিয়েই যদি হকি ফেরে তার যৌবনে।

টুর্নামেন্টের শুভেচ্ছা দূত ক্রিকেটার নুরুল হাসান সোহান ফ্রাঞ্চাইজি হকি লিগ নিয়ে বেশ রোমাঞ্চিত। কাল লোগো উন্মোচন অনুষ্ঠানে এসে এই খেলার সম্ভাবনার কথা বলে গেলেন, ‘হকি খেলা অনেক মজার, কিন্তু অনেক কঠিনও। এটা আমার কাছে বেশ ভালোই লাগে। হকিস্টিক হাতে নিলে আলাদা একটা পাওয়ার চলে আসে। কখনো হকি খেলিনি, তবে যদি হকি খেলতাম তাহলে গোলকিপার হতাম। ’ এই ফ্রাঞ্চাইজি লিগেই হকির ভবিষ্যৎ দেখতে পাচ্ছেন এই ক্রিকেটার, ‘ক্রিকেটে বিপিএল আয়োজনের পরে অনেক উন্নতি হয়েছে। এবার আশা করি, এই লিগের মাধ্যমে হকিরও অনেক উন্নতি হবে। বাংলাদেশ এখন হকি র্যাংকিংয়ে ২৭ নম্বরে আছে। নিয়মিত খেললে ভালো সুযোগ আছে বিশ্বকাপে খেলার। আশা করি, বাংলাদেশ দ্রুতই হকিতে বিশ্বকাপে খেলবে। ’

হকি খেলোয়াড়দের কাছে এখনো স্বপ্নের মতো মনে হচ্ছে এই ফ্রাঞ্চাইজি লিগ। এমন একটি টুর্নামেন্ট খেলার যে স্বপ্ন দেখতেন রাসেল মাহমুদ-খোরশেদরা, তা এখন বাস্তবে রূপ নেওয়ার পথে। দীর্ঘদিন ধরে বাংলাদেশকে প্রতিনিধিত্ব করা ফরোয়ার্ড রাসেল মাহমুদ জিমি বিশ্বাস করেন এই লিগের মাধ্যমে হকির সুদিন ফিরবে, ‘এমন টুর্নামেন্ট হবে সেটা শুধু স্বপ্ন দেখতাম, এখনো মাঝে মাঝে মনে হয় স্বপ্নের মধ্যে আছি। কিন্তু বাস্তবতা হচ্ছে এই লিগ নিয়ে আমি দারুণ রোমাঞ্চিত। আমার ক্যারিয়ারে এমন টুর্নামেন্ট কখনো খেলতে পারিনি। আমি মনে করি, এই লিগের মাধ্যমেই হকির স্বপ্নযাত্রার শুরু হবে। ’

বিদেশি কোচের পাশাপাশি প্রতিটি দলেই থাকবে চারজন করে বিদেশি খেলোয়াড়। হকির বিশ্বকাপ ও অলিম্পিকে খেলা খেলোয়াড়দের দলে টানার কথা বলছে ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলো। বিদেশি কোচ ও উঁচুমানের খেলোয়াড়দের কাছ থেকে নতুন কিছু শেখার আশা করছেন হকি খেলোয়াড়রা। হকির এই লিগ যদি ধারাবাহিকতা ধরে রাখে, তবে অনেক নতুন খেলোয়াড় উঠে আসবে মনে করছেন ডিফেন্ডার খোরশেদুর রহমান, ‘আমাদের হকির অগ্রযাত্রায় এই ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগ বড় ভূমিকা পালন করবে। বিদেশি কোচ থাকবে প্রতিটি দলের সঙ্গে। কোচদের কাছ থেকে আমরা ভুলগুলো শুধরে নিতে পারব, শিখতে পারব নতুন কিছু। এই লিগ যদি ধারাবাহিকভাবে হয় তবে তরুণরা অন্য খেলায় মনোযোগ না দিয়ে হকিতে আরো মনোযোগ দেবে। ’

অনিয়মিত খেলার কারণে সারা দেশে হকির যে দুর্দশা, সেটা চলমান যুব হকি দিয়েই বোঝা যাচ্ছে। খেলাটার চর্চাই কমে গেছে ভয়ংকরভাবে। অনেক খেলোয়াড় হকি ছেড়ে ভবিষ্যৎ খুঁজে নিয়েছেন অন্য কিছুতে। ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগ হয়তো এবার কিছুটা আশা জাগাবে তাঁদের মনে।

 

 



সাতদিনের সেরা