kalerkantho

রবিবার । ৪ ডিসেম্বর ২০২২ । ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ । ৯ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

সেরা চারে স্পেন

২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সেরা চারে স্পেন

ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোদের বিদায়ঘণ্টা বাজিয়ে উয়েফা নেশনস লিগের সেমিফাইনালে স্পেন। খেলার অন্তিম বেলায় আলভারো মোরাতার একমাত্র গোলে কপাল পুড়েছে পর্তুগালের। ৮৮ মিনিটে দানি কারভাহালের ক্রসে হেড করে মোরাতাকে বল বাড়িয়ে দেন নিকো উইলিয়ামস। ব্রাগার গ্যালারি স্তব্ধ করে বল জালে জড়িয়ে দেন জুভেন্টাস তারকা।

বিজ্ঞাপন

সেরা চারে জায়গা পাওয়া অন্য তিন দল হচ্ছে ক্রোয়েশিয়া, ইতালি ও নেদারল্যান্ডস।

অথচ ব্রাগায় ড্র করলেই সেমিফাইনালের টিকিট পেয়ে যেত পর্তুগাল। নিজ মাঠে পুরো ম্যাচে কর্তৃত্ব করে খেলে অনেক সুযোগও তৈরি করেছে তারা। কিন্তু সেগুলোর একটিও গোলে রূপ দিতে পারেননি রোনালদোরা। ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড তারকা নিজে নষ্ট করছেন একাধিক সুযোগ। এর খেসারত দিয়ে সেরা চারের আগে বিদায় নিতে হয়েছে পর্তুগালকে। অমন ব্যর্থতার পরও রোনালদোর সমর্থনে কথা বলছেন কোচ ফের্নান্দো সান্তোস, ‘ওরা বল দখলে রাখলেও সুযোগ তৈরি করতে পারেনি। আর আমরা অনেক সুযোগ পেয়েও গোল করতে পারিনি। রোনালদো নিজেও তিন-চারটি সুযোগ পেয়েছে। এর মধ্যে অন্তত দুটিতে গোলও পাওয়া উচিত ছিল। সাধারণত এগুলোতে সে গোল করেও। আজ পারেনি। এটাই ফুটবল। ’

সুইজারল্যান্ডের বিপক্ষে আগের ম্যাচে হেরে যাওয়া দলের সাতজনকে বসিয়ে একাদশ গড়েছিলেন লুই এনরিকে। এই পরিবর্তিত দল বলের দখলে এগিয়ে থাকলেও পর্তুগিজ রক্ষণভাগের বড় কোনো পরীক্ষা নিতে পারেনি প্রথমার্ধে। প্রতিপক্ষের গোলমুখে তারা প্রথম শট নেয় খেলার ৭০ মিনিটে। দ্বিতীয়ার্ধে বেশ কয়েকজন খেলোয়াড় বদলানোর পর স্পেনের খেলার ধরনও যায় পাল্টে। শেষ দিকে মোরাতার পায়ে কাঙ্ক্ষিত গোলও তারা পেয়ে যায়। সেরা চার নিশ্চিত করে স্বভাবত উচ্ছ্বাসে ভাসছেন স্পেন কোচ লুই এনরিকে, ‘সবাই হয়তো বলবে দ্বিতীয়ার্ধটা অসাধারণ ছিল, তবে এ জন্য প্রথমার্ধের ওই খেলাটাও দরকার ছিল। আমরা আবারও সেরা চারে, এটাই সবচেয়ে আনন্দের। সবাই মিলে এখন উপভোগ করি। ’ মার্কা



সাতদিনের সেরা