kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১ ডিসেম্বর ২০২২ । ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ ।  ৬ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

নেপালকে হারাতে তৈরি ছেলেরা

২৬ সেপ্টেম্বর, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নেপালকে হারাতে তৈরি ছেলেরা

ক্রীড়া প্রতিবেদক : কাঠমাণ্ডুর দশরথ স্টেডিয়ামে আগামীকাল আরেকবার মুখোমুখি নেপাল-বাংলাদেশ। মেয়েদের সাফ ফাইনালের আগে যেমন অনিশ্চয়তা ছিল, তেমন একটা আবহ আছে এই ম্যাচ ঘিরেও। নেপালকে কখনোই বলে-কয়ে হারাতে পারেনি বাংলাদেশ। তবে এবার জামাল ভুঁইয়ারা জয়ের কথা বলেই গিয়েছেন কাঠমাণ্ডুতে।

বিজ্ঞাপন

মেয়েদের সাফ জয়ের পর ছেলেদের এই ম্যাচ ঘিরে প্রত্যাশাও বেড়েছে। জামাল-আনিসুররাও চান না ফুটবলের এই সুন্দর সময়টা নষ্ট করতে।

গতকাল নেপাল আর্মি হেডকোয়ার্টার মাঠে অনুশীলন শেষে গোলরক্ষক আনিসুর রহমান যেমন বলছিলেন, ‘জয়ের ধারাবাহিকতা রাখতে চাই। ভালো খেলেই জিততে চাই এ ম্যাচে। ’ দলের সঙ্গে সহকারী কোচ হিসেবে আছেন জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক হাসান আল মামুন। নেপালকে হারানোর ব্যাপারে আশাবাদী তিনিও, ‘নেপালের মাঠে নেপালের বিপক্ষে খেলাটা সহজ নয়। তবে বাংলাদেশ কম্বোডিয়াকে হারিয়ে যে আত্মবিশ্বাস সঞ্চয় করেছে, তা এ ম্যাচে কাজে লাগাবে বলে আমার বিশ্বাস এবং জয় তুলে নেবে। ’ দলকে ওই কঠিন লড়াইয়ের যতটা নিখুঁতভাবে তৈরি করা যায় সেই কাজই করছেন তাঁরা। মামুন যেমন বলেছেন, ‘বিল্ডআপ ফুটবলে কিছুটা ঘাটতি দেখেছি আমরা আগের ম্যাচে। বল পায়ে রাখতে অনেক সময়ই সমস্যা হচ্ছে। সেটা নিয়ে এখানে এসেও আমরা কাজ করেছি। তা ছাড়া নেপালের বিপক্ষে রক্ষণ নিয়েও আলাদা করে ভাবতে হচ্ছে। কারণ ওরা প্রতি-আক্রমণে খুব দ্রুত এবং লং বল খেলে, সেটা আমাদের সামলাতে হবে। ’

আনিসুর বলেছেন, ‘কোচ মূলত দুটি ধারায় আমাদের খেলাচ্ছেন। বড় দলের বিপক্ষে ডিফেন্সে মনোযোগী হয়ে এবং সমমানের দলগুলোর বিপক্ষে বিল্ডআপ। নেপালের বিপক্ষে যেহেতু জিততে নামছি আমরা, তাই ডিফেন্সিভ খেলার প্রশ্ন নেই। আমরা আক্রমণাত্মক খেলব জেতার জন্য। ’ কম্বোডিয়া ও নেপাল—এই দুটি ম্যাচ থেকে ৬ পয়েন্ট তুলে র‌্যাংকিংয়েও বাংলাদেশকে এগিয়ে দেওয়ার লক্ষ্য ফুটবলারদের। কম্বোডিয়ার বিপক্ষে প্রথম মিশন সফল, কাঠমাণ্ডুতে আগামীকাল মেয়েদের কীর্তির পুনরাবৃত্তি করতে পারলে ছেলেদের ফেরাটাও হবে সার্থক।



সাতদিনের সেরা