kalerkantho

শনিবার । ১০ ডিসেম্বর ২০২২ । ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ । ১৫ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

আবার আকর্ষণীয় সুপার কাপ

কাজী সালাউদ্দিনের কণ্ঠেও মিলেছে কোটি টাকা প্রাইজ মানির টুর্নামেন্ট ফেরানোর ইঙ্গিত, ‘সুপার কাপ ফেরানোর ব্যাপারে আমরা সিদ্ধান্তে পৌঁছেছি। এই টুর্নামেন্ট হবে। তবে বাজেট বড়। অর্থ পাওয়া নিশ্চিত হলে আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা করা হবে সুপার কাপের।’

২৫ সেপ্টেম্বর, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আবার আকর্ষণীয় সুপার কাপ

ক্রীড়া প্রতিবেদক : মেয়েদের হিমালয় জয়ের পর ছেলেরা হারিয়েছেন কম্বোডিয়াকে। এমন সুসময় খুব কমই দেখেছে দেশের ফুটবল। আর এই সময়ে বাফুফে উদ্যোগ নিচ্ছে সাম্প্রতিক সময়ের সবচেয়ে আকর্ষণীয় টুর্নামেন্ট সুপার কাপ ফেরানোর। গতকাল বাফুফে সভাপতির নেতৃত্বে অনুষ্ঠিত পেশাদার লিগ ব্যবস্থাপনা কমিটির সভায় এ নিয়ে ইতিবাচক আলোচনা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

এরপর কাজী সালাউদ্দিনের কণ্ঠেও মিলেছে কোটি টাকা প্রাইজ মানির টুর্নামেন্ট ফেরানোর ইঙ্গিত, ‘সুপার কাপ ফেরানোর ব্যাপারে আমরা সিদ্ধান্তে পৌঁছেছি। এই টুর্নামেন্ট হবে। তবে বাজেট বড়। এক জায়গা থেকে অর্থ পাওয়ার (স্পন্সর) আশ্বাস পেয়েছি। এটা নিশ্চিত হলে আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা করা হবে সুপার কাপের। ’ স্পন্সরে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা আটকে থাকলেও আট বছর পর এই টুর্নামেন্ট হওয়ার ব্যাপারে কোনো সন্দেহ নেই। ২০০৯ সালে এটা শুরুতেই বেশ সাড়া ফেলেছিল ফুটবলাঙ্গনে। চ্যাম্পিয়ন দলের জন্য এক কোটি টাকার প্রাইজ মানিই ছিল এর বড় আকর্ষণ। এরপর আরো দুটি আসর হয়েছিল ২০১১ ও ২০১৩ সালে। তিনটি শিরোপাই দেশের দুই ঐতিহ্যবাহী ক্লাব মোহামেডান-আবাহনীর দখলে।

কালকের সভায় আসন্ন ফুটবল মৌসুম নিয়ে আলোচনা হয়েছে। সেখানে গুরুত্ব পেয়েছে দলবদল, সেটি ঘোষণার আগে ক্লাবগুলোর সঙ্গে কথা বলা জরুরি। তাই কয়েক দিন সময় লাগবে। এর মধ্যে পেশাদার লিগ ব্যবস্থাপনা কমিটির সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নের জন্য একটি আলাদা বাস্তবায়ন কমিটি করা হবে। এর পরই দলবদলের সূচি ঘোষণা করা হবে। বাফুফে চিন্তা করছে এবার বিশ্বকাপের সময়ও ঘরোয়া ফুটবল চালানোর। আগে এ সময় ঘরোয়া ফুটবল বন্ধ থাকলেও এবার বিশ্বকাপের সময়ই হবে প্রিমিয়ার লিগ। সভায় এ বিষয়ে আলোচনার পর কাজী সালাউদ্দিন বলেছেন, ‘আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি বিশ্বকাপের সময় আমাদের লিগ পরিচালনা করার। বিশ্বকাপের সেমিফাইনাল থেকে ফাইনাল পর্যন্ত ঘরোয়া ফুটবল বন্ধ রাখা যায়। এ জন্য যেন ফুটবলারদের বিশ্বকাপ দেখা বিঘ্নিত না হয়, সেটাও নিশ্চিত করতে হবে আমাদের। খেলার সূচি সেভাবেই করতে হবে। ’ খেলায় লম্বা বিরতি পড়লে ক্লাবগুলো ক্ষতিগ্রস্ত হয়, তাদের পক্ষে টেম্পো ধরে রাখা কঠিন। এসব দিক বিবেচনা করেই পেশাদার লিগ ব্যবস্থাপনা কমিটি বিশ্বকাপ চলাকালীন লিগ চালানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে।



সাতদিনের সেরা