kalerkantho

মঙ্গলবার । ৬ ডিসেম্বর ২০২২ । ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ । ১১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

কাতারের কাছে হারল যুবারা

বাহরাইনের সঙ্গে ড্রয়ের পর কাতারের বিপক্ষে জিততে চেয়েছিল বাংলাদেশ। কিন্তু রোখাই যায়নি কাতারিদের। গতকাল ৩-০ গোলে হারিয়েছে তারা বাংলাদেশি যুবাদের।

১৭ সেপ্টেম্বর, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ক্রীড়া প্রতিবেদক : বাহরাইনের সঙ্গে ড্রয়ের পর কাতারের বিপক্ষে জিততে চেয়েছিল বাংলাদেশ। কিন্তু রোখাই যায়নি কাতারিদের। গতকাল ৩-০ গোলে হারিয়েছে তারা বাংলাদেশি যুবাদের। বাছাই পেরিয়ে  বাংলাদেশের এশিয়ান কাপের মূল পর্বে খেলার স্বপ্নও তাতে ধাক্কা খেয়েছে।

বিজ্ঞাপন

বাহরাইনের আল মুহাররাক স্টেডিয়ামে শুরু থেকেই কাতারিরা চড়াও হয়ে খেলতে থাকে। বাংলাদেশ গোলরক্ষক শান্ত কুমারের ভুলে প্রথম মিনিটেই বিপদ হতে চলেছিল। ডিফেন্ডার রাজিবের ব্যাক পাস নিয়ন্ত্রণে নিতে গিয়ে কাতারি নাম্বার নাইন রশিদ আব্দুল আজিজের চার্জের মুখে পড়েন তিনি। শেষ পর্যন্ত অবশ্য বলটা নিয়ন্ত্রণে নিতে পেরেছিলেন। ম্যাচের ২০ মিনিটে মিডফিল্ডার ফারেজ সাঈদের শটও শেষ মুহূর্তে আটকে পোস্ট অক্ষত রেখেছিলেন শান্ত। কিন্তু পরের মিনিটেই আহমেদ আল রাওয়ায়ির শটে তাঁর বিশেষ কিছু করার ছিল না। ডান দিক থেকে ক্রস পেয়ে কাতারি ফরোয়ার্ড বক্সের ভেতর থেকে যখন শট নিচ্ছেন, বাংলাদেশের তিনজন ডিফেন্ডার তাঁকে বাধা দেন। কিন্তু রাওয়ায়ি ঠিকই শট নিয়েছেন, ডান দিকের পোস্টের ওপরের কোণ দিয়ে তা জালে।

বাহরাইনকে আটকে রাখার যে চ্যালেঞ্জ ছিল, আক্রমণাত্মক কাতারের বিপক্ষেও সেই চ্যালেঞ্জের মুখেই পড়ে যায় বাংলাদেশ। রাওয়ায়ি প্রথম সেই প্রতিরোধ ভাঙেন। প্রথমার্ধ পর্যন্ত কাতারকে ওই এক গোলে আটকে রেখে দ্বিতীয়ার্ধে সেই গোল শোধেরও চেষ্টা করছিল বাংলাদেশ। কিন্তু ৬০ মিনিটে গোলরক্ষক শান্তর আরেক ভুলে ব্যবধান বাড়িয়ে নেয় কাতার। রাওয়ায়ির গড়ানো একটি শটই হাতে জমাতে পারেননি তিনি, কাতারি ফরোয়ার্ড নিজেই দৌড়ে এসে সেই বল জালে পাঠিয়ে দিয়েছেন দুরূহ কোণ থেকে। অতিরিক্ত সময়ে পেনাল্টি থেকে হজম করতে হয়েছে আরো এক গোল।



সাতদিনের সেরা