kalerkantho

শনিবার । ১ অক্টোবর ২০২২ । ১৬ আশ্বিন ১৪২৯ ।  ৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

নতুন ইংল্যান্ডের ছন্দঃপতন

ইনিংস জয় প্রোটিয়াদের

২০ আগস্ট, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নতুন ইংল্যান্ডের ছন্দঃপতন

লর্ডসে আড়াই দিনেই ইনিংস ব্যবধানে ইংল্যান্ডকে হারিয়ে দিল দক্ষিণ আফ্রিকা। প্রথম ইনিংসে ১৬৫ রান করার পর এবার স্বাগতিকরা গুঁড়িয়ে গেছে ১৪৯ রানে। টানা চার জয়ের পর পাঁচ দিনের ক্রিকেটে ‘নতুন ইংল্যান্ডে’র এটা প্রথম হার। ব্রেন্ডন ম্যাককালাম ও বেন স্টোকস জমানায় আক্রমণাত্মক ক্রিকেটে প্রতিপক্ষকে দুমড়ে-মুচড়ে দিয়ে টেস্টের ধারণাই পাল্টে দিয়েছিল ইংল্যান্ড! লর্ডসের বিশাল হারে ছন্দঃপতন হলো স্বপ্নিল ওই পথচলায়ও।

বিজ্ঞাপন

প্রথম ইনিংসে দক্ষিণ আফ্রিকার চেয়ে ১৬১ রানে পিছিয়ে থেকে দ্বিতীয়বার ব্যাটিংয়ে নেমে চরম ব্যাটিং বিপর্যয়ে ৮৬ রানে ছয় উইকেট হারিয়ে তারা ইনিংস হারের শঙ্কায় পড়ে। ধ্বংসস্তূপে দাঁড়িয়ে বেন স্টোকস ও স্টুয়ার্ট ব্রড হাফসেঞ্চুরির একটা জুটি গড়লেও লজ্জাটা আর এড়াতে পারেনি ইংল্যান্ড। এনরিকে নরজে, কাগিসো রাবাদা, মার্কো জানসেন, লুঙ্গি এনগিডি—এই পেস চতুষ্টয়ের সঙ্গে বাঁহাতি স্পিনার কেশব মহারাজও এবার ধ্বংসযজ্ঞে যোগ দিলে ইংল্যান্ড গুঁড়িয়ে যায় দেড় শর নিচে! এক ইনিংস ও ১২ রানের বিশাল জয়ে মাঠ ছাড়ে দক্ষিণ আফ্রিকা।

লর্ডসে ইংলিশ ব্যাটিংয়ে কাল প্রথম আঘাতটা হানেন বাঁঁহাতি স্পিনার কেশব মহারাজ। প্রথম বদলেই তাঁর হাতে বল তুলে দিয়েছিলেন অধিনায়ক ডিন এলগার। আস্থার প্রতিদান দিয়েছেন এই স্পিনার ১৮ রানের ব্যবধানে জ্যাক ক্রাউলি ও অলি পোপেকে আউট করে। এ ধাক্কা সামলে ওঠার আগে লুঙ্গি এনগিডির শিকার হন জো রুট। এরপর শুরু নরজের ধ্বংসলীলা! টপাটপ তিন উইকেট তুলে নিয়ে ইংল্যান্ডকে খাদের কিনারে পাঠিয়ে দেন নরজে। ধ্বংসস্তূপে দাঁড়িয়ে বেন স্টোকসের সঙ্গে স্টুয়ার্ট ব্রডের হাফসেঞ্চুরির একটা জুটি গড়ে উঠলেও স্বাগতিকদের কক্ষপথে ফেরানোর জন্য সেটা মোটেও যথেষ্ট ছিল না। এর আগে ৭ উইকেটে ২৮৯ রান নিয়ে গতকাল খেলতে নেমে প্রথম ইনিংসে ৩২৬ রানে অল আউট হয় প্রোটিয়ারা। এএফপি

ইংল্যান্ড : ১৬৫ এবং ৩৭.৪ ওভারে ১৪৯ (ব্রড ৩৫, লিস ৩৫; নরজে ৩/৪৭, জানসেন ২/১৩, রাবাদা ২/২৭, মহারাজ ২/৩৫)। দক্ষিণ আফ্রিকা : ৮৯.১ ওভারে ৩২৬ (এরউই ৭৩, ইয়ানসের ৪৮, এলগার ৪৭, মহারাজ ৪১; স্টোকস ৩/৭১, ব্রড ৩/৭১)। ফল : দক্ষিণ আফ্রিকা ইনিংস ও ১২ রানে জয়ী। ম্যান অব দ্য ম্যাচ : কাগিসো রাবাদা।



সাতদিনের সেরা