kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৬ আগস্ট ২০২২ । ১ ভাদ্র ১৪২৯ । ১৭ মহররম ১৪৪৪

ব্যাটে-বলে বুমরাহ

৩ জুলাই, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ব্যাটে-বলে বুমরাহ

রান খরচায় আবার অগৌরবের বিশ্বরেকর্ডে জড়িয়ে গেল স্টুয়ার্ট ব্রডের নাম। ২০০৭ সালে ডারবানে ওয়ার্ল্ড টি-টোয়েন্টিতে তাঁর এক ওভারে ছয় ছক্কা মেরেছিলেন ভারতের যুবরাজ সিং। এবার ১৪৫ বছরের টেস্ট ক্রিকেট ইতিহাসে সবচেয়ে খরুচে ওভারটিও করলেন এই ইংলিশ পেসার। ঘটনা বার্মিংহাম টেস্টে ভারতীয় ইনিংসের ৮৪তম ওভারের।

বিজ্ঞাপন

জাসপ্রিত বুমরাহর বেদম প্রহারে ব্রডের করা ওই ওভারে রান উঠে  ৪, ৪ (ওয়াইড), ৬, (নো), ৪, ৪, ৪, ৬, ১—মোট ৩৫! টেস্টের এক ওভারে সবচেয়ে বেশি রান দেওয়ার যা নতুন রেকর্ড!

বার্মিংহামে ব্রডের সেই ওভারে বুমরাহর ব্যাট থেকে এসেছে ২৯ রান! পাঁচ দিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে এক ওভারে সর্বোচ্চ রানের আগের রেকর্ড ছিল ২৮ রান। এটা ঘটেছিল আবার মোট তিনবার। ২০১৯ সালে পোর্ট এলিজাবেথে কেশব মহারাজের বিপক্ষে ইংল্যান্ডের জো রুট, ২০১৩ সালে পার্থে জেমস অ্যান্ডারসনের বিপক্ষে অস্ট্রেলিয়ার জর্জ বেইলি এবং ২০০৩ সালে জোহানেসবার্গ টেস্টে দক্ষিণ আফ্রিকান স্পিনার রবিন পিটারসেনের এক ওভারে ২৮ রান নিয়েছিলেন ক্যারিবীয় কিংবদন্তি ব্রায়ান লারা। টেস্টের এক ওভারে সর্বোচ্চ রান নেওয়ার এই রেকর্ডটা এখন শুধু জসপ্রিত বুমরাহর। অথচ ব্রডের ওপর চড়াও হওয়ার আগে খেলা ৭ বলে কোনো রানই করতে পারেননি ভারতের এই পেসার। এক ওভারে সবচেয়ে বেশি রান দেওয়ার মন খারাপ করা রেকর্ডের দিনে গৌরবের এক কীর্তিও গড়েছেন ব্রড। মোহাম্মদ সামিকে আউট করে টেস্ট ইতিহাসের ষষ্ঠ বোলার এবং তৃতীয় পেসার হিসেবে তিনি ছুঁয়েছেন ৫৫০ উইকেটের অনন্য মাইলফলক।

বুমরাহ-ব্রডের আলাদা আলাদা কীর্তির আগের গল্প শুধু ঋষভ পান্ট ও রবীন্দ্র জাদেজার। ৯৮ রানে ৫ উইকেটে হারিয়ে ধ্বংসস্তূপে পরিণত হওয়ার পরও ভারতের স্কোর ৪০০ ছুঁয়েছে এই দুজনের অসাধারণ ব্যাটিংয়ে। ষষ্ঠ উইকেটে পান্ট ও জাদেজা যোগ করেছেন ২২২ রান। শতরান করেছেন তাঁরা দুজনই। বিস্ফোরক ব্যাটিংয়ে ১৯টি চার এবং চারটি ছক্কায় ১১১ বলে ১৪৬ রানের ইনিংস খেলেছেন পান্ট। তুলনায় কিছুটা ধীরলয়ে খেলা জাদেজা ১৩টি চারে ১০৪ রান করে আউট হয়েছেন। পান্ট ও জাদেজার পর শেষ দিকে ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক বুমরাহর ওই ঝড়ে শুরুর বিপর্যয় সামলে ভারতের প্রথম ইনিংস থেমেছে ৪১৬ রানে। পাঁচ উইকেট নিয়ে ইংল্যান্ডের সফলতম বোলার অ্যান্ডারসন।

ইংল্যান্ডের শুরুও একদম ভালো হয়নি। দুই উদ্বোধনী ব্যাটার আউট হয়েছেন দুই অঙ্ক ছোঁয়ার আগেই। এই প্রতিবেদন লেখার সময় বৃষ্টিতে খেলা বন্ধ ছিল। সে সময় স্বাগতিকরা করেছিল ৫ উইকেটে ৮৪ রান। তিনটি উইকেট বুমরাহর। ক্রিকইনফো



সাতদিনের সেরা