kalerkantho

মঙ্গলবার। ৯ আগস্ট ২০২২ । ২৫ শ্রাবণ ১৪২৯ । ১০ মহররম ১৪৪৪

বদলে দিয়ে গেলেন মরগান

২৯ জুন, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বদলে দিয়ে গেলেন মরগান

বপন করেছিলেন আক্রমণাত্মক ক্রিকেটের বীজ। তাঁর ভয়ডরহীন ক্রিকেটের মন্ত্রে ২০১৯ ওয়ানডে বিশ্বকাপ জিতেছে ইংল্যান্ড। গড়েছে ওয়ানডের সর্বোচ্চ রানের তিনটি বিশ্বরেকর্ড। ২০১০ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ জয়েরও অন্যতম নায়ক এউইন মরগান।

বিজ্ঞাপন

কিন্তু বয়সের ভার আর চোটের কারণে আক্রমণাত্মক এই ক্রিকেটের সঙ্গে তাল মেলাতে পারছিলেন না আর। যোগ্য নেতা বলেই চাননি দলের বোঝা হয়ে থাকতে। তাই আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে গতকাল বিদায় জানালেন ইংল্যান্ডকে ওয়ানডে বিশ্বকাপ জেতানো একমাত্র এই অধিনায়ক। বিদায়ি বার্তায় জানালেন, ‘আমার ক্যারিয়ারের সবচেয়ে উপভোগ্য অধ্যায়ের সমাপ্তি টানার সিদ্ধান্ত নেওয়াটা সহজ ছিল না। তবে আমার বিশ্বাস—এটাই সঠিক সময়। ’

ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টির সর্বশেষ ২৬ ইনিংসে মাত্র একটি ফিফটি মরগানের। সর্বশেষ নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে ৩-০ ব্যবধানে জেতা সিরিজের দুই ম্যাচে আউট হয়েছেন কোনো রান না করে। নিজের রান না পাওয়ার শঙ্কায় নেদারল্যান্ডস সফরের আগে দিয়েছিলেন অবসরের ইঙ্গিত। সেই ঘোষণাটাই দিলেন গতকাল, ‘খেলোয়াড় ও অধিনায়ক হিসেবে যা অর্জন করেছি তাতে আমি গর্বিত। বিশ্বকাপজয়ী দুটি দলে খেলা সৌভাগ্যের ব্যাপার। এখন শুধু ঘরোয়া ক্রিকেট খেলব, পাশাপাশি ধারাভাষ্যও দেব। ’

বিদায় বেলায় মরগানকে প্রশংসায় ভাসালেন ইংল্যান্ড ছেলেদের ক্রিকেটের ম্যানেজিং ডিরেক্টর রব কি, ‘খেলাটাই (সাদা বলের) বদলে দিয়েছে মরগান। একটা প্রজন্ম ও পরবর্তী প্রজন্মকে শিখিয়ে গেছে কিভাবে খেলতে হয়। ’ একই সুর ইংল্যান্ডের টেস্ট কোচ ব্রেন্ডন ম্যাককালামের কণ্ঠেও, ‘শুধু ইংল্যান্ড নয়, বিশ্ব ক্রিকেটেরই সবচেয়ে প্রভাবশালী চরিত্রদের একজন হয়ে থাকবে মরগান। ইংল্যান্ডের নেতৃত্ব পেয়ে ও যেসব পদক্ষেপ নিয়েছে, যেভাবে সবার মানসিকতা বদলে দিয়েছে—সব কিছুর জন্য। বিশ্বজুড়েই এর প্রভাব পড়েছে। ’

ইংল্যান্ডের হয়ে ওয়ানডে আর টি-টোয়েন্টিতে সবচেয়ে বেশি রান করা ও ম্যাচ খেলার রেকর্ডটা আয়ারল্যান্ডে জন্মানো মরগানের। ২২৫ ওয়ানডেতে করেছেন ৬৯৫৭ রান। ১১৫ টি-টোয়েন্টিতে তাঁর রান ২৫৪৮। ২০১৫ সালে দায়িত্ব পাওয়ার পর নেতৃত্ব দিয়েছেন ১২৬ ওয়ানডে ও ৭২ টি-টোয়েন্টি ম্যাচে। তাঁর চেয়ারে বসতে পারেন ২০১৫ থেকে সহ-অধিনায়ক থাকা জস বাটলার। বিবিসি



সাতদিনের সেরা