kalerkantho

শনিবার । ২০ আগস্ট ২০২২ । ৫ ভাদ্র ১৪২৯ । ২১ মহররম ১৪৪৪

দ্বিতীয় দেখায় গোলহীন বাংলাদেশ

মালয়েশিয়ার বিপক্ষে গোল মেলেনি বাংলাদেশের। দুই ম্যাচের আন্তর্জাতিক সিরিজে তাই ৬-০ এর পর ০-০।

২৭ জুন, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



দ্বিতীয় দেখায় গোলহীন বাংলাদেশ

ক্রীড়া প্রতিবেদক : প্রথম ম্যাচে ৬ গোল হজম করা মালয়েশিয়া যে একেবারে খালি হাতে মাঠ ছাড়েনি গতকালের ম্যাচ তার প্রমাণ। সেই ম্যাচ থেকে তারা নিয়েছে শিক্ষা। কমলাপুর স্টেডিয়ামে সেই একই মালয়েশিয়ার বিপক্ষে তাই গোলের জন্য মাথা কুটেও আর গোল মেলেনি বাংলাদেশের। দুই ম্যাচের আন্তর্জাতিক সিরিজে তাই ৬-০ এর পর ০-০।

বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশের মেয়েরা এদিন শুরু থেকেই আগের দিনের মতো আক্রমণাত্মক। কিন্তু সেদিন মালয়েশিয়ানদের ডিফেন্স যেমন ছিল ছন্নছাড়া, কাল তা অনেক গোছানো। গোলরক্ষক নুরুল আজুরিনও খেলেছেন দায়িত্ব নিয়ে। অষ্টম মিনিটেই বক্সের সামনে থেকে নেওয়া আঁখি খাতুনের শট ঝাঁপিয়ে পড়ে ফেরান আজুরিন। ১১ মিনিটে বাংলাদেশের মাসুরা পারভীনই অবশ্য সুযোগ নষ্ট করেন। মনিকা চাকমার তুলে দেওয়া বল গোলমুখ থেকে তিনি বাইরে মেরেছেন। ১৭ মিনিটে আবারও সাবিনার শটে মালয়েশিয়ান গোলরক্ষকের প্রতিরোধ। দূর থেকে নেওয়া বাংলাদেশ অধিনায়কের শট লাফিয়ে আঙুলের টোকায় পাঠান পোস্টের বাইরে। বিরতির আগেও আরো একবার বাংলাদেশ অধিনায়ককে হতাশ করেছেন আজুরিন।

প্রতিপক্ষের আক্রমণের তোড় সামলে প্রতি-আক্রমণের পরিষ্কার কৌশল নিয়েই খেলেছে এদিন মালয়েশিয়া। বাংলাদেশ কোচ গোলাম রব্বানীর কোনো কৌশলই শেষ পর্যন্ত সফলতার মুখ দেখেনি। দ্বিতীয়ার্ধে সিরাত জাহানের জায়গায় নামেন রিতুপর্ণা। পরে সানজিদা আক্তারকেও তুলে নামানো হয় শামসুন্নাহারকে। কিন্তু তাঁরাও পার্থক্য তৈরি করতে পারেননি। ৭১ মিনিটে কর্নারে বক্সের ভেতর জটলায় আরো সুযোগ পেয়েছিলেন মাসুরা। মারিয়া মান্দার শটটি বেরিয়ে যাওয়ার সময় পা ছোঁয়াতে পারলে হতো, কিন্তু পারেননি।

বাংলাদেশকে ঠেকিয়ে মালয়েশিয়াও গোলের চেষ্টা করেছে। তবে ৭৭ মিনিটে হেনেরিতা জাস্টিনের শট সরাসরি যায় বাংলাদেশ গোলরক্ষক রুপনা চাকমার হাতে। আগের দিনের গোলবন্যায় এদিন কমলাপুর স্টেডিয়ামে দর্শকেরও ঢল নেমেছিল। কিন্তু এদিন সেই গোলটাই যে দেখা হয়নি তাদের। শেষ দিকে কৃষ্ণা রানীর জোরালো শট মালয়েশিয়ান গোলরক্ষকের হাত এড়াতে পারেনি। অতিরিক্ত সময়ে মনিকার কর্নারে আঁখি মাথা ছোঁয়াতে পারলে হতো, কিন্তু হয়নি। শেষ পর্যন্ত তাই গোলশূন্য সমতা আর বাংলাদেশের ১-০ ব্যবধানের সিরিজ জয়ের স্বস্তি। মালয়েশিয়ার বিপক্ষে দ্বিতীয় এই ম্যাচটা নিশ্চিত সাবিনাদের জন্যও একটি শিক্ষা হয়ে থাকবে।



সাতদিনের সেরা