kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৩০ জুন ২০২২ । ১৬ আষাঢ় ১৪২৯ । ২৯ জিলকদ ১৪৪৩

সাকিবে মুগ্ধ ডোনাল্ড পঞ্চমুখ এবাদতেও

সাকিবের ৩ উইকেট

২৬ মে, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



সাকিবে মুগ্ধ ডোনাল্ড পঞ্চমুখ এবাদতেও

ছবি : মীর ফরিদ

ক্রীড়া প্রতিবেদক : দিমুথ করুনারত্নেকে অসাধারণ এক ডেলিভারিতে বোল্ড করার পর থেকেই দিনভর সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে সাকিব আল হাসানকে নিয়ে গবেষণায় ঘুরেফিরে এসেছেন শেন ওয়ার্নও। ড্রাইভ খেলতে গিয়ে টার্নে যেভাবে পরাস্ত হয়েছেন শ্রীলঙ্কান অধিনায়ক, সেভাবেই অস্ট্রেলিয়ান লেগস্পিন কিংবদন্তির ৭০০তম টেস্ট শিকারে পরিণত হয়েছিলেন ইংল্যান্ডের অ্যান্ড্রু স্ট্রাউসও। এমন মিল খোঁজা যে বাহুল্য ছিল না, দিনের শেষে যেন সেই সার্টিফিকেটই নিয়ে এলেন অ্যালান ডোনাল্ড। এমনিতে বাংলাদেশ দলের ফাস্ট বোলিং কোচের স্পিনকেন্দ্রিক আলোচনায় ঢুকে পড়ার কথা ছিল না।

বিজ্ঞাপন

তবে কেউ একজন গতকাল বিকেলের সংবাদ সম্মেলনে সাকিবের কথা তুলতেই ‘সাদা বিদ্যুৎ’ খ্যাত দক্ষিণ আফ্রিকার সাবেক ফাস্ট বোলারের মুখে কখনো উচ্চারিত হলো ওয়ার্নের নাম, আবার কখনো এবি ডি ভিলিয়ার্সেরও!

সাকিব প্রসঙ্গ উঠতেই পাল্টা প্রশ্নে ওয়ার্নকে টেনে এনে ডোনাল্ড বলছিলেন, ‘আমার প্রশ্ন হলো সাকিবের মতো একজনকে আপনি নতুন করে আর কী শেখাবেন? শেন ওয়ার্নের মতো সে এতটাই অভিজ্ঞ! সারা বিশ্ব ঘুরে প্রায় সব কন্ডিশনেই সে খেলেছে। সঠিক জায়গায় বল করেই যেতে থাকে। ’ সাকিবের বল খেলা কত কঠিন, সে ধারণা তাঁকে দিয়েছিলেন এবি ডি ভিলিয়ার্সও, ‘আমি সাকিবের অনেক বড় ভক্ত। যখন এবির মতো ক্রিকেটার বলে যে সাকিবের বলে ক্রিজ ছেড়ে বেরিয়ে খেলা কঠিন, তখন সেটি অবশ্যই কঠিন। ’ বোলিংয়ে সাকিবের বুদ্ধিমত্তায় মুগ্ধ ডোনাল্ড মিরপুর টেস্টের চতুর্থ দিনে বল হাতে এই অলরাউন্ডারের আরো সাফল্যও যেন আগাম দেখে ফেললেন, ‘খুবই বুদ্ধিমান বোলার সে। বলে গতির হেরফের ঘটায়ও দারুণ। যা আজ আবার দেখিয়েছে। আশা করছি, আগামীকাল (আজ) সে ৫ উইকেট নিয়েই বেরিয়ে যাবে। ওর মতো একজনকে দলে পাওয়াটা দারুণ ব্যাপার। কারণ ওর অভিজ্ঞতা ও নেতৃত্বগুণ অমূল্য। ’

সাকিবকে নিয়ে মুগ্ধতার কথা জানানো ডোনাল্ড প্রশংসায় পঞ্চমুখ হলেন পেসার এবাদত হোসেনকে নিয়েও। যদিও এটি মেনে নিতে দ্বিধা করলেন না যে মিরপুর টেস্টে সাফল্যে এগিয়ে লঙ্কান পেসাররাই, ‘ধারাবাহিকতার কথা যদি বলেন, তাহলে টেস্টের প্রথম দিনে লঙ্কান পেসাররা ছিল অসাধারণ। ২৪ রানে ৫ উইকেট তুলে নিয়ে এর পুরস্কারও ওরা পেয়েছে। বল সুইং করিয়েছে যেমন, তেমনি সঠিক জায়গায়ও ফেলেছে। আমি আগেও বলেছি বাংলাদেশের এই উইকেটে নতুন বলের ব্যবহারটা খুব গুরুত্বপূর্ণ। ওরা সেটি সত্যিই খুব ভালো করেছে। ’ তৃতীয় দিনে নিজ দলের পেসার সৈয়দ খালেদ আহমেদ তেমন সুবিধা করে উঠতে না পারলেও এবাদতকে নিয়ে উচ্ছ্বসিত ডোনাল্ড। এই পেসার দারুণ বোলিং করেও প্রাপ্য পুরস্কার পাননি বলেও মনে করছেন তিনি, ‘আজ এবাদত ছিল এক কথায় অসাধারণ। কখনো কখনো কারো ওয়ার্ম আপ দেখেই মনে হয় আজ সে দারুণ কিছু করতে পারে। যদিও স্কোরকার্ডে ওর দারুণ বোলিংয়ের প্রতিফলন দেখা যাচ্ছে না। সে এমনকি ৪-৫ উইকেট নিয়েও বেরিয়ে যেতে পারত। এতটাই ভালো বোলিং করছিল সে। ’ এবাদতকে যোগ্য সংগত দিতে না পারা খালেদের কাছেও আজ চতুর্থ দিনের সকালে ভালো কিছুর প্রত্যাশা থাকছে ডোনাল্ডের। এই পেসার এলোমেলো লাইন আর লেন্থে বোলিং করায় বাংলাদেশও লঙ্কানদের ওপর চাপ অব্যাহত রাখতে পারেনি। তবে ফাস্ট বোলিং কোচের আশা, ‘খালেদ আজ ওর কাজ ঠিকঠাক করতে পারেনি। তবে কাল খুব গুরুত্বপূর্ণ দিন। সকালে কিছু উইকেট তুলে নিতে হবে আমাদের। আর উইকেটও প্রতিদিন সকালে কিছুটা সহায়তার হাত বাড়িয়ে রাখছে। ’



সাতদিনের সেরা