kalerkantho

সোমবার । ২৭ জুন ২০২২ । ১৩ আষাঢ় ১৪২৯ । ২৬ জিলকদ ১৪৪৩

উৎসবে ভাসছে ম্যানসিটি-মিলান

২৪ মে, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



উৎসবে ভাসছে ম্যানসিটি-মিলান

ম্যানসিটি নামটা একটু বদলে দ্য সানের শিরোনাম ‘ম্যাডসিটি’! খুশিতে পাগলামিই শুরু করেছিল সমর্থকরা। অ্যাস্টন ভিলার বিপক্ষে দুই গোলে পিছিয়ে পড়েও পাঁচ মিনিটের ঝড়ে ৩-২ ব্যবধানের রুদ্ধশ্বাস প্রত্যাবর্তন পেপ গার্দিওলার দলের। ইংল্যান্ডের আকাশে আবারও ওঠে নীল চাঁদ। পাঁচ বছরে চতুর্থ প্রিমিয়ার লিগ নিশ্চিত হওয়ার পর আত্মহারা সমর্থকরা নেমে আসে মাঠে।

বিজ্ঞাপন

ভেঙে ফেলে গোল পোস্ট! ভিলার গোলরক্ষকের ওপর চড়াও হয়েছিল কয়েকজন। ম্যাচ শেষে আর্সেন ওয়েঙ্গার ও হোসে মরিনহোর চেয়ে (তিনটি) একটি বেশি প্রিমিয়ার লিগ জেতা পেপ গার্দিওলার সন্তুষ্টি, ‘আমরা কিংবদন্তি। পাঁচবারের মধ্যে চারবার প্রিমিয়ার লিগ জেতা সাধারণ অর্জন নয়। এর একটাই কারণ, ছেলেরা অসাধারণ। মানুষ যুগ যুগ ধরে মনে রাখবে আমাদের। ’

শেষ ম্যাচে উলভসকে ৩-১ গোলে হারিয়েও ১ পয়েন্টের ব্যবধানে রানার্স আপ লিভারপুল। তবু গর্বিত কোচ ইয়ুর্গেন ক্লপ, ‘অন্তত ৫০০ বার বলেছি, এরাই আমার সেরা ছাত্র। আমি গর্বিত। আশা করছি, এই ছেলেদের নিয়ে মৌসুমের তৃতীয় শিরোপাটা জিতব। ’

সিরি ‘এ’তে এসি মিলানের পারফরম্যান্সও স্মরণীয় হয়ে থাকার মতোই। এক দশক ‘স্কুদেত্তো’ জেতেনি ঐতিহ্যবাহী এই দল। শেষ ম্যাচে সাসুউলোকে ৩-০ গোলে হারিয়ে ১১ বছর পর মর্যাদার টুর্নামেন্টটা জিতেছে তারা। ৪০ বছর বয়সী সুইডিশ কিংবদন্তি জ্লাতান ইব্রাহিমোভিচের গুরুত্বপূর্ণ অবদান তাতে। মুখে সিগারেট নিয়ে ইব্রার উচ্ছ্বাস, ‘মিলানকে আবার শীর্ষ পর্যায়ে ফেরানোর কথা বলেছিলাম। অনেকে হাসাহাসি করেছিল তখন। আমরা অনেক ত্যাগ স্বীকার করেছি। প্রমাণ করেছি, কোনো কিছু অসম্ভব নয়। ’ মিলানে ফেরার পর তিন মৌসুমে লিগে ৩৬ গোল করেছেন ইব্রা। ইএসপিএন

প্রিমিয়ার লিগ

চ্যাম্পিয়ন : ম্যানসিটি (৯৩)

রানার্স আপ : লিভারপুল (৯২)

গোল্ডেন বুট : মো সালাহ ও সন হিউং মিন (২৩ গোল)

চ্যাম্পিয়নস লিগে : ম্যানসিটি, লিভারপুল, চেলসি ও টটেনহাম

ইউরোপায় : আর্সেনাল, ম্যানইউ

অবনমন : বার্নলি, ওয়াটফোর্ড, নরউইচ

 

সিরি ‘এ’

চ্যাম্পিয়ন : এসি মিলান (৮৬)

রানার্স আপ : ইন্টার মিলান (৮৪)

গোল্ডেন বুট : চিরো ইম্মোবিলে (২৭ গোল)

চ্যাম্পিয়নস লিগে : মিলান, ইন্টার, নাপোলি, জুভেন্টাস

ইউরোপায় : লািসও, রোমা

অবনমন : ক্যালিয়ারি, জেনোয়া, ভেনেজিয়া



সাতদিনের সেরা