kalerkantho

রবিবার । ৩ জুলাই ২০২২ । ১৯ আষাঢ় ১৪২৯ । ৩ জিলহজ ১৪৪৩

দুঃস্বপ্নের পুনরাবৃত্তি নাকি অন্য কিছু?

সেই টেস্ট ম্যাচটির কথা খুব ভালোই মনে থাকার কথা বাংলাদেশ দলের বর্তমান স্পিন বোলিং কোচ রঙ্গনা হেরাথের। খুব বেশিদিন আগের কথা তো আর নয়। মাত্র সাড়ে চার বছর আগে দুই টেস্টের সিরিজে স্বাগতিক দলের উত্থান আর পতন পরপরই দেখেছিলেন শ্রীলঙ্কার সাবেক এই বাঁহাতি স্পিনার। সেটি লঙ্কানদের সর্বশেষ বাংলাদেশ সফরে খেলোয়াড় হিসেবেই।

২১ মে, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



দুঃস্বপ্নের পুনরাবৃত্তি নাকি অন্য কিছু?

ক্রীড়া প্রতিবেদক : সেই টেস্ট ম্যাচটির কথা খুব ভালোই মনে থাকার কথা বাংলাদেশ দলের বর্তমান স্পিন বোলিং কোচ রঙ্গনা হেরাথের। খুব বেশিদিন আগের কথা তো আর নয়। মাত্র সাড়ে চার বছর আগে দুই টেস্টের সিরিজে স্বাগতিক দলের উত্থান আর পতন পরপরই দেখেছিলেন শ্রীলঙ্কার সাবেক এই বাঁহাতি স্পিনার। সেটি লঙ্কানদের সর্বশেষ বাংলাদেশ সফরে খেলোয়াড় হিসেবেই।

বিজ্ঞাপন

সেবারও চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামেই ছিল সিরিজের প্রথম টেস্ট। ২০১৮-র জানুয়ারির সেই ম্যাচ স্বাগতিকদের বীরত্বপূর্ণ ড্র-ই দেখেছিল। রানোৎসবের সেই ম্যাচে প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশের ৫১৩ রানের জবাবে সফরকারীরা ৯ উইকেটে ৭১৩ রান তুলে দান ছেড়েছিল। এরপর বাংলাদেশের দ্বিতীয় ইনিংস ঘোষণা ৫ উইকেটে ৩০৭ রানে। দুই ইনিংসেই সেঞ্চুরি করা মমিনুল হক অবশ্য এবার নিজের প্রিয় ভেন্যুতে তেমন সুবিধা করে উঠতে পারেননি। তবে আগেরবারও দ্বিতীয় ইনিংসে ৯৪ রানে আউট হওয়া লিটন কুমার দাস আবারও লঙ্কানদের বিপক্ষে ঘরের মাঠে পুড়েছেন সেঞ্চুরিবঞ্চনায়। এবার প্রথম ইনিংসে আউট হয়েছেন ৮৮ রানে। তবে এই না পাওয়াকে ছাপিয়ে বড় হয়ে উঠেছিল দলের ব্যাটিং সাফল্য।

আবারও সেই চট্টগ্রামেই এবার ব্যাটিং সাফল্যের ফুল ফুটেছে। প্রথম ইনিংসে লিডও নিয়েছে স্বাগতিকরা। তবে ২৩ মে থেকে মিরপুর শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে শুরু হতে যাওয়া দ্বিতীয় ও শেষ টেস্টের আগে সাড়ে চার বছর আগের দুঃস্মৃতি মনে পড়তে বাধ্য। এমনিতেই মিরপুরের উইকেট ব্যাটারদের জন্য ‘বধ্যভূমি’ বলে কুখ্যাতি আছে। লঙ্কানদের আগের টেস্ট সফরে সেটি যেন তুঙ্গেই পৌঁছেছিল। আগের টেস্টেই পাঁচ শ পার করা দল মিরপুরে প্রথম ইনিংসে মাত্র ১১০ রানে গুটিয়ে যাওয়ার লজ্জায় ডোবে। অবস্থা বদলায়নি দ্বিতীয় ইনিংসেও, ১২৩ রানে অল আউট বাংলাদেশ টেস্ট হারে ২১৫ রানের বিশাল ব্যবধানেই। অফস্পিনার আকিলা ধনঞ্জয়ার (৫/২৪) সঙ্গে ৪৯ রানে ৪ উইকেট নেওয়া হেরাথও স্বাগতিকদের বিপর্যয়ে রেখেছিলেন বড় ভূমিকা।

চাকরি ছেড়ে যাওয়া চন্দিকা হাতুরাসিংহে সেই সফরেই শ্রীলঙ্কার হেড কোচ হিসেবে ফিরেছিলেন বাংলাদেশে। মিরপুর বিপর্যয়ের পর কিউরেটর গামিনি ডি সিলভাকে জড়িয়ে তাই ‘ষড়যন্ত্র তত্ত্ব’ আবিষ্কারের চেষ্টাও চলেছিল ক্রিকেটমহলে। বিশেষ করে ক্রিকেটাররা কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়েছিলেন কিউরেটরকে। যদিও বর্তমান টিম ডিরেক্টর খালেদ মাহমুদ থেকে শুরু করে ক্রিকেট প্রশাসকরা ব্যাটারদের ব্যর্থতাকেই বড় করে দেখতে চেয়েছেন সেই সময়। এবার মিরপুরেই শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে যখন আরেকটি টেস্ট শুরু হওয়ার অপেক্ষা, তখন অবধারিতভাবেই এই প্রশ্ন আসে যে এবারও সেই দুঃস্বপ্নের পুনরাবৃত্তি হবে, নাকি অন্য কিছু ঘটবে?

মিরপুরের মাঠ নিশ্চিতভাবেই চট্টগ্রামের মতো ব্যাটিংস্বর্গ নয়। এখানে যা আছে, তাতে চট্টগ্রাম টেস্ট শেষ হওয়া মাত্রই নিজেদের গেম প্ল্যান ঘোষণা করে দিয়েছেন ধনঞ্জয়া ডি সিলভা। আগের সফরের প্রথম টেস্ট খেলা এই অফস্পিনার সম্প্রতি ঢাকা প্রিমিয়ার লিগেও (ডিপিএল) বেশ কিছু ম্যাচ খেলেছেন মিরপুরেই। যে কারণে আগাম বলে দিতে পারলেন, ‘আমরা সম্ভবত এক পেসার ও তিন স্পিনার নিয়ে নামব। ’ হেরাথ অবসরে গেলেও লঙ্কান স্পিন আক্রমণে তাঁর উত্তরসূরি লাসিথ এমবুলদেনিয়া মিরপুর টেস্টে বড় প্রভাবক হয়ে উঠতে পারেন। এখানকার ধীরগতির বল নিচু হওয়া উইকেটে ১৬ টেস্টে ৭১ উইকেট নেওয়া বাঁহাতি স্পিনার কার্যকর হয়ে উঠতে পারেন আরো। তা ছাড়া দক্ষিণ আফ্রিকায় এক বাঁহাতি স্পিনার কেশব মহারাজেই শেষ হয়ে যাওয়া বাংলাদেশের ব্যাটারদের সামনে তাই বড় চ্যালেঞ্জ নিয়ে অপেক্ষায় মিরপুরের উইকেটও।



সাতদিনের সেরা