kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৩০ জুন ২০২২ । ১৬ আষাঢ় ১৪২৯ । ২৯ জিলকদ ১৪৪৩

বোলারদের ঋণ চুকাচ্ছেন ব্যাটাররা

মুশফিক-লিটনের ৯৮* রানের জুটি

সাইদুজ্জামান, চট্টগ্রাম থেকে   

১৮ মে, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ৫ মিনিটে



বোলারদের ঋণ চুকাচ্ছেন ব্যাটাররা

ছবি : মীর ফরিদ, চট্টগ্রাম থেকে

তিনি ৩ উইকেটে ৩১৮ রান তুলে ফেলা দলের ব্যাটিং কোচ। তাই দিনশেষের সংবাদ সম্মেলনে হাজির জেমি সিডন্সের অভিব্যক্তিতে গর্ব মিশে থাকা অভাবিত নয়। অবলীলায় কৌতুক করেন, ‘আজ তৃতীয় দিনের খেলা শেষ হলো। এখনো যদি ক্যামেরায় উইকেট দেখেন, তবে দেখবেন সামান্য আঁচড়ও পড়েনি।

বিজ্ঞাপন

খুব ভালো উইকেট। ’ এমন উইকেটে ব্যাটাররা রান করবেন, এটাই স্বাভাবিক। কিন্তু পরক্ষণেই ভ্রু নাচিয়ে জেমি মনে করিয়ে দেন, ‘আমরা এখানে শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত কক্ষে বসে আছি বলে বুঝতে পারছি না। এখান থেকে বেরিয়ে মাঠে নামলে বুঝতে পারবেন পরিস্থিতি কতটা নাজুক। ’

আগের রাতে থেমে থেমে ভোর পর্যন্ত বৃষ্টি হলেও চট্টগ্রামের উত্তপ্ত আবহাওয়া সহনীয় হয়নি। ফিল্ডিং তো বটেই, ব্যাটারদের শরীরের পানিও শুষে নিচ্ছে ভাপসা গরম। সেঞ্চুরি পূর্ণ করা রানটা খুঁড়িয়ে খুঁড়িয়ে নিয়েছেন তামিম ইকবাল। এক পর্যায়ে পানিশূন্যতা থেকে হাতে ক্র্যাম্প হয় তাঁর। এরপর পায়ের পেশিতেও টান পড়ায় চা-বিরতির পর ব্যাটিংয়েই নামেননি তামিম। এর মধ্যেই প্রায় ছয় ঘণ্টা ব্যাটিং করে ফেলেছেন তিনি। জেমি আশ্বস্ত করেছেন, ‘পুরো একটি রাত বিশ্রাম পাচ্ছে তামিম। কাল (আজ) ব্যাটিং করতে পারবে। ’ শিষ্যকে চলমান টেস্টে শ্রীলঙ্কার অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুজের মতোই মনে হচ্ছে বাংলাদেশ দলের ব্যাটিং কোচের, ‘এটা সহজ নয়। দেড় দিনেরও বেশি সময় এই গরমে ফিল্ডিং করার পর লম্বা ইনিংস খেলা কঠিন। আজ খুব দ্রুত রানের জন্য যায়নি তামিম। আমার ওকে মনে হয়েছে অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুজের মেজাজে ব্যাটিং করছে। সুযোগ পেলেই সিঙ্গল নিয়েছে। বাউন্ডারি বল পেলেই শুধু মেরেছে। কোনো বোলারকে টার্গেট করে মারেনি, আগে ওকে যেটা করতে দেখতাম। ’

ব্যাটিং সঙ্গী যখন দায়িত্বশীল ব্যাটিং করে, আর তিনি যদি তামিমের মতো জ্যেষ্ঠ ক্রিকেটার হন, তাহলে মাহমুদুল হাসানের মতো তরুণদের মনে বাড়তি অনুপ্রেরণা ছড়িয়ে পড়ে। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ রানের উদ্বোধনী জুটির রহস্য এটাকেই মনে করছেন জেমি, ‘তামিম ও জয় (মাহমুদুল হাসান) দারুণ ব্যাটিং করেছে। ইনিংস শুরু করা মোটেও সহজ কাজ নয়। লম্বা সময় ফিল্ডিং করার পর গতকাল (পরশু) শেষ ভাগে ব্যাটিংয়ে নেমেছিল বাংলাদেশ। বিনা উইকেটে ৭৫ (আসলে ৭৬) রান ছিল, আজ (গতকাল) ওখান থেকেই শুরু করেছিল। তামিমের পারফরম্যান্স দুর্দান্ত। ফিট হলে আবার ব্যাট করবে। আজকের সবচেয়ে ভালো দিক শৃঙ্খলা। এটাই আমরা চাচ্ছিলাম। ’

সর্বশেষ টেস্ট সিরিজে ৫৩ ও ৮০ রানে বিধ্বস্ত হওয়ার দগদগে স্মৃতি আছে বাংলাদেশ দলের। সেই দলের ব্যাটিং ১৮০ ডিগ্রি ঘুরে যাওয়ার পেছনে একটা কারণই দেখছেন সিডন্স, ‘আমি খুব বেশি কাজ করার সুযোগ পাইনি। দুই সপ্তাহের মতো কাজ করেছি। ছোটখাটো বিষয় নিয়ে কথা হয়েছে। আমার মনে হয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজের পর আত্মবিশ্বাস ফিরে পাওয়াই সবচেয়ে জরুরি ছিল। ব্যাটিংয়ে শৃঙ্খলা নিয়ে কথা হয়েছে। সেটারই প্রতিফলন আমরা দেখছি। যদি খেয়াল করে থাকেন তবে দেখবেন, একমাত্র লিটন ছাড়া কেউ তুলে মারেনি। সবাই দারুণ শৃঙ্খলার সঙ্গে ব্যাটিং করেছে। মুশির (মুশফিকুর রহিম) ব্যাটিং দেখুন, এটাই আমরা চেয়েছি। ’

তৃতীয় দিনের উইকেটও সামান্য ক্ষতিগ্রস্ত হয়নি। স্পিনারদের জন্য টার্ন নেই, পেসারদের জন্য বাড়তি বাউন্সের তো প্রশ্নই ওঠে না। এমন উইকেটেই কিনা রান পেলেন না নাজমুল হোসেন ও মমিনুল হক, যাঁদের কাছে রানের চাহিদাপত্র দেওয়া আছে। স্কোরবোর্ডের দিকে তাকিয়ে এতে কোনো সমস্যা দেখছেন না জেমি, ‘ওরা (মমিনুল ও নাজমুল) রানে ফিরবে। ব্যাটিং দুজনের ব্যাপার না। দল ভালো ব্যাটিং করলে এমন দুজনকে বয়ে বেড়ানো যায়। আমি চিন্তিত নই। ’

ম্যাচ হারা নিয়েও আর কোনো দুশ্চিন্তা নেই বাংলাদেশ দলের। বরং আজ শ্রীলঙ্কাকে তাদের ‘ওষুধে’ চিকিৎসা করার পরিকল্পনার কথাই বলেছেন জেমি সিডন্স, ‘কাল (আজ) সারা দিন ব্যাটিং করে শেষ দিন ওদের চাপে ফেলতে চাই। লিটন দ্রুত রান করে। সাকিবকে তো আমরা সবাই জানি। তামিম আছে। আমাদের এমন কিছু খেলোয়াড় আছে যারা শ্রীলঙ্কার ওপর চাপ তৈরি করতে পারে। ওরা ক্লান্ত থাকবে। এই গরমের মধ্যে লম্বা সময় ফিল্ডিং করিয়ে এরই মধ্যে আমরা ওদের ওষুধের স্বাদ ওদের ফিরিয়ে দিয়েছি। কালও এটা করব। ৭০ রানের মতো পিছিয়ে আছি। ওদের প্রথম ইনিংসের খুব কাছাকাছি পৌঁছে গেছি। ’

টপকে যাওয়া সময়ের ব্যাপার মাত্র, যদি শৃঙ্খলা বজায় থাকে। মরা উইকেটে বোলারদের দুর্দান্ত নৈপুণ্যের পর ব্যাটারদের দাপটের মূলে এই শৃঙ্খলা, যা দিয়ে নাঈম-সাকিবদের দুর্দান্ত বোলিংয়ের ঋণ চুকাচ্ছেন তামিম-লিটনরা।



সাতদিনের সেরা