kalerkantho

বৃহস্পতিবার ।  ১৯ মে ২০২২ । ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ । ১৭ শাওয়াল ১৪৪৩  

নতুন শ্রীলঙ্কার লক্ষ্য পুরনো

১৫ মে, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নতুন শ্রীলঙ্কার লক্ষ্য পুরনো

চট্টগ্রাম থেকে প্রতিনিধি : পুরো শ্রীলঙ্কার ওপর দিয়েই ঝড় বয়ে গেছে। সেই ক্ষয়ক্ষতি কবে পুষিয়ে ওঠা যাবে, কেউ জানে না। এমনই অবস্থা যে দেশবাসীর মুখে হাসি ফোটানোর উপলক্ষ হওয়ার লক্ষ্য নিয়ে বাংলাদেশে এসেছে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট দল। এই দলের কোচ নতুন, ক্রিস সিলভারউড।

বিজ্ঞাপন

সফরকারী দলে পালাবদল হয়েছে অনেক। তাই বলে অধিনায়ক দিমুথ করুণারত্নে দলটিকে নতুন বলতে নারাজ।

‘দলে অনেক নতুন ক্রিকেটার আছে বলে আমি মনে করি না। ওরা অনেক খেলেছে, গোটা দশেক ম্যাচ তো হবেই। আমাদের দলে একজনই নতুন, আমাদের কোচ’, দলের শক্তিক্ষয়ের ব্যাপারটিকে পাত্তাই দিচ্ছেন না দিমুথ। তবে ভারতের বিপক্ষে সর্বশেষ সিরিজের দলে ওলটপালট হওয়ায় সিনিয়র ক্রিকেটারদের কাছ থেকে বাড়তি চাওয়া আছে করুণারত্নের, ‘সবারই দায়িত্ব আছে। অ্যাঞ্জেলো (ম্যাথুজ) এবং আমার মতো সিনিয়র ব্যাটারদের এই কন্ডিশনে বড় রান করতে হবে, যেন তরুণদের ওপর খুব বেশি চাপ না পড়ে। ’

চট্টগ্রামের উইকেটে আগে খেলেছেন, ইতিহাসও জানেন। আর এবারের উইকেট দেখে শ্রীলঙ্কার অধিনায়ক ধরেই নিয়েছেন এখানে হাজার রান আছে, ‘আমাদের সঙ্গে এখানকার কন্ডিশনের মিল আছে। চট্টগ্রামেরটা একেবারে ফ্ল্যাট উইকেট। তাই আমাদের ব্যাটারদের বড় রান করতে হবে, যেন প্রতিপক্ষ চাপে পড়ে। এখানে (চট্টগ্রামে) তা-ই হয়ে থাকে। এটা ১০০০ রানের উইকেট। তবে আমাদের ঠিকঠাক হোমওয়ার্ক করতে হবে। ছোটখাটো কিছু পরিবর্তন ঘটাতে পারি, আমি মনে করি এখান থেকে জিতে ঢাকায় যেতে পারব। ’

জিততে হলে প্রতিপক্ষের ২০ উইকেট চাই। সুরঙ্গা লাকমাল অবসরে চলে যাওয়ায় পেস বোলিং আক্রমণ কিছুটা মলিন হলেও শ্রীলঙ্কার স্পিন বোলিং নিয়ে দুর্ভাবনায় আছে বাংলাদেশ দল। আর কে না জানে, চট্টগ্রামের ব্যাটিংস্বর্গে হুল ফোটাতে যদি পারেন, তবে সেটা স্পিনাররাই। লাসিথ এম্বুলদেনিয়া ও প্রবীন জয়বিক্রমের বাঁহাতি স্পিনে বিষ আছে পর্যাপ্ত।

দুই দলের মুখোমুখি লড়াইয়ের পরিসংখ্যানও প্রবলভাবে শ্রীলঙ্কার দিকে ঝুঁকে। ২২ টেস্টের ১৭টিই জিতেছে শ্রীলঙ্কা। বাংলাদেশের বিপক্ষে করুণারত্নের ব্যাটিং রেকর্ডও চোখ-ধাঁধানো, ১০ টেস্টের ১৭ ইনিংসে তিন সেঞ্চুরি আছে।



সাতদিনের সেরা