kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৮ জুন ২০২২ । ১৪ আষাঢ় ১৪২৯ । ২৭ জিলকদ ১৪৪৩

কীর্তির পর মরিনহোর কান্না

৭ মে, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কীর্তির পর মরিনহোর কান্না

চ্যাম্পিয়নস লিগ জিতেছেন দুইবার। আছে দুটি ইউরোপার শিরোপাও। সেই হোসে মরিনহোর চোখে জল তৃতীয় মর্যাদার টুর্নামেন্ট উয়েফা কনফারেন্স লিগের ফাইনালে পৌঁছে। তিনি যে ফুরিয়ে যাননি এটাই হয়তো স্মরণ করিয়ে দিলেন এএস রোমাকে শিরোপার মঞ্চে নিয়ে গিয়ে।

বিজ্ঞাপন

সেমিফাইনালের দ্বিতীয় লেগে লিস্টারকে তারা হারায় ১-০ গোলে।   দুই লেগ মিলিয়ে অগ্রগামিতা ২-১। তাতে প্রথম কোচ হিসেবে চারটি আলাদা ক্লাবের হয়ে ইউরোপের মর্যাদার চারটি ফাইনালে মরিনহো।

পোর্তোর হয়ে ২০০২-০৩ মৌসুমে উয়েফা কাপ (বর্তমান ইউরোপা) আর পরের মৌসুমে চ্যাম্পিয়নস লিগ জিতেছিলেন মরিনহো। ইন্টার মিলানের হয়ে চ্যাম্পিয়নস লিগ জিতেছেন ২০০৯-১০ মৌসুমে। এরপর ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডকে ইউরোপা জেতান ২০১৬-১৭ মৌসুমে। এবার রোমাকে নিয়ে কনফারেন্স লিগের ফাইনাল খেলা আর আবেগের কান্না নিয়ে মরিনহো জানালেন, ‘অবশ্যই এর চেয়ে বড় মুহূর্ত আমার ক্যারিয়ারে এসেছে। তবে এই ক্লাবে আমরা যেভাবে একটা পারিবারিক আবহ তৈরি করতে পেরেছি, সেদিক দিয়ে আমার কাছে এটা বিশেষ কিছু। খেলোয়াড় ও সমর্থকদের আবেগ ছুঁয়ে গেছে আমাকে। এটাই আমার কাছে চ্যাম্পিয়নস লিগ ফাইনাল। ’ সেমিফাইনালের অপর লেগে ফেইনুর্ড গোলশূন্য ড্র করেছে মার্শেইয়ের সঙ্গে। প্রথম লেগ ৩-২ গোলে জেতায় ফাইনালের টিকিট ফেইনুর্ডেরই।

এদিকে ইউরোপা লিগের ফাইনালে সুযোগ ছিল দুই জার্মান ক্লাবের মুখোমুখি হওয়ার। কিন্তু সেমিফাইনালের দ্বিতীয় লেগে লিপজিগকে ৩-১ গোলে হারিয়ে ফাইনালের টিকিট স্কটল্যান্ডের ক্লাব রেঞ্জার্সের। ১৮ মের ফাইনালে তাদের প্রতিপক্ষ জার্মানির ফ্রাংকফুর্ট। দ্বিতীয় লেগে ১-০ গোলে ওয়েস্ট হামকে হারায় তারা। দুই লেগ মিলিয়ে ফ্রাংকফুর্টের অগ্রগামিতা ৩-১। ইএসপিএন

 



সাতদিনের সেরা