kalerkantho

শুক্রবার ।  ২৭ মে ২০২২ । ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ । ২৫ শাওয়াল ১৪৪

৪০০-তে পঞ্চম‘ ডাবল’-এ দ্বিতীয়

২৫ জানুয়ারি, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



৪০০-তে পঞ্চম‘ ডাবল’-এ দ্বিতীয়

ক্রীড়া প্রতিবেদক : বোলিংয়ে শূন্য হাতেই ম্যাচ শেষ করার অপেক্ষায় ছিলেন সাকিব আল হাসান। তাঁর নেতৃত্বাধীন ফরচুন বরিশালের হারও নিশ্চিত হয়ে গেছে ততক্ষণে। জেতার জন্য যখন আর মাত্র ৭ রান লাগে মিনিস্টার গ্রুপ ঢাকার, তখনই নিজের শেষ ওভারটি করতে আসেন এই অলরাউন্ডার। উইকেট না পেলেও আগের তিন ওভারে মিতব্যয়ীই ছিলেন, খরচ মাত্র ১৪ রান।

বিজ্ঞাপন

শেষ ওভারের প্রথম বলেই তাঁকে ছক্কায় উড়িয়ে দুই দলের স্কোরও সমান করে ফেলেন মাহমুদ উল্লাহ। দলের হারের পাশাপাশি উইকেটহীন ম্যাচ পার করা একরকম নিশ্চিত যখন, তখনই দারুণ এক অর্জনের চৌকাঠ পেরোনোর ক্ষণ এসে যায় সাকিবের।

ছক্কা মারার পরের বলেই কাভারের ওপর দিয়ে তুলে মারতে গিয়ে ঢাকার অধিনায়ক ক্যাচ হন ডোয়াইন ব্রাভোর। স্বীকৃত টি-টোয়েন্টিতে এটা সাকিবের ৪০০ নম্বর উইকেট। এবারের বঙ্গবন্ধু বিপিএল তিনি শুরু করেছিলেন ৩৯৮ উইকেট নিয়ে। চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের বিপক্ষে আসরের উদ্বোধনী ম্যাচে এক উইকেট নিয়ে এই মাইলফলকের আরো কাছে গিয়ে দাঁড়ান। আরেকটি উইকেটের অপেক্ষা যখন আরো দীর্ঘায়িত হবে বলে মনে হচ্ছিল, তখনই মাহমুদের ক্যাচ টি-টোয়েন্টি ইতিহাসের পঞ্চম বোলার হিসেবে সাকিবকে পৌঁছে দেয় দারুণ এই ব্যক্তিগত অর্জনে। এই তালিকায় সবার ওপরে আছেন বরিশাল দলেই তাঁর সতীর্থ ব্রাভো, যিনি ৪০০ উইকেট পাওয়া বোলারদের মধ্যে একমাত্র পেসারও। ৪৮৬ ইনিংসে ৫৫৫ উইকেট তাঁর। সাকিবের ওপরে থাকা বাকি তিনজনের আর কারোরই অবশ্য ৪৫০ উইকেটও নেই। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৪৩৫ উইকেট দক্ষিণ আফ্রিকার লেগস্পিনার ইমরান তাহিরের। তিনি বোলিং করেছেন ৩২৯ ইনিংসে। ৩৭৭ ইনিংসে বোলিং করে ৪২৫ উইকেট নিয়ে তালিকার তিন নম্বরে আছেন ক্যারিবীয় স্পিনার সুনীল নারিন। পাঁচজনের মধ্যে সবচেয়ে কম ম্যাচ খেলে এই মাইলফলক পেরিয়েছেন আফগান লেগস্পিনার রশিদ খান। ২৯৮ ইনিংসেই ৪২০ উইকেট হয়ে গেছে তাঁর। এই মাইলফলকে পৌঁছাতে সাকিবের লাগল ৩৪৭ ইনিংস। অবশ্য ৪০০ উইকেটের পাশাপাশি পাঁচ হাজারের বেশি রান করার ‘ডাবল’ সাকিবের আগে আছে আর একজনেরই, তিনি ক্যারিবীয় ব্রাভো।



সাতদিনের সেরা