kalerkantho

মঙ্গলবার । ৪ মাঘ ১৪২৮। ১৮ জানুয়ারি ২০২২। ১৪ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

অ্যাতলেতিকোর রাতটা মেসিরও

৯ ডিসেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



অ্যাতলেতিকোর রাতটা মেসিরও

গ্রুপটা ছিল মৃত্যুকূপ। সেই ভয় জয় করে ইতিহাসই গড়ল লিভারপুল। ইংল্যান্ডের প্রথম ক্লাব হিসেবে চ্যাম্পিয়নস লিগ গ্রুপ পর্বে জিতল টানা ছয় ম্যাচ। পিছিয়ে পড়েও এসি মিলানকে হারাল ২-১ গোলে। তাতে কপাল পুড়েছে সাতবারের চ্যাম্পিয়নস লিগ জয়ী মিলানের। গ্রুপ পর্ব থেকে ছিটকে যাওয়ার পাশাপাশি ইউরোপাতেও নেই জ্লাতান ইব্রাহিমোভিচরা। গ্রুপ ‘বি’ থেকে নক আউটে লিভারপুলের সঙ্গী অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদ। নাটকীয় শেষ ম্যাচে পোর্তোকে ৩-১ গোলে হারিয়ে গ্রুপ রানার্স-আপ হয়েছে ডিয়েগো সিমিওনির দল। ৫৬ মিনিটে গ্রিয়েজমান, ৯০ মিনিটে কোররেয়া আর ইনজুরি টাইমে দ্য পলের গোলে রাতটা নিজেদের করে নেয় অ্যাতলেতিকো।

গ্রুপ ‘এ’তে ব্রুজকে ৪-১ গোলে হারানো ম্যাচে জোড়া গোল লিওনেল মেসি ও কিলিয়ান এমবাপ্পের। তাতে অফিশিয়াল গোলের হিসাবে পেলেকে পেছনে ফেলেছেন মেসি। ক্লাব ও আন্তর্জাতিক ম্যাচ মিলিয়ে পেলের গোল ৭৫৭টি। মেসির গোল এখন ৭৫৮টি। ১৭ বছর আগে চ্যাম্পিয়নস লিগে অভিষেক হওয়ার দিনটা স্মরণীয় করে রাখলেন আর্জেন্টাইন জাদুকর। এর আগে এক ক্লাবের হয়ে সর্বোচ্চ আর লাতিন দেশগুলোর হয়ে সবচেয়ে বেশি আন্তর্জাতিক গোলেও পেলেকে পেছনে ফেলেছেন মেসি। ৭৫৯ গোল নিয়ে জোসেফ বাইকন এবং ৮০১ গোল নিয়ে ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোই শুধু এগিয়ে মেসির চেয়ে। এছাড়া চ্যাম্পিয়নস লিগে সবচেয়ে কম বয়সে ৩০ গোলের রেকর্ড গড়েছেন এমবাপ্পে, তিনি পেছনে ফেলেন মেসিকে।

গ্রুপের আরেক ম্যাচে লিপজিগের কাছে ২-১ গোলে হেরেও শীর্ষস্থান ম্যানচেস্টার সিটির। পিএসজি নক আউটে রানার্স-আপ হয়ে আর কোচ বদলে খেলা লিপজিগ নেমে গেছে ইউরোপা লিগে। গ্রুপ ‘ডি’র শেষ ম্যাচে ইন্টার মিলানকে ২-০ গোলে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন রিয়াল।  ইএসপিএন



সাতদিনের সেরা