kalerkantho

সোমবার । ৩ মাঘ ১৪২৮। ১৭ জানুয়ারি ২০২২। ১৩ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

৮০০ গোলের চূড়ায়

৪ ডিসেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



৮০০ গোলের চূড়ায়

নিজের জার্সির রং বদলায়, বদলায় প্রতিপক্ষ। কিন্তু ম্যাচের পর ম্যাচ, দিনের পর দিন শিকারি পাখির চোখ আর ক্ষিপ্রতা নিয়ে তিনি গোলের পর গোল করে চলেন। এই করে করেই পরশু রাতে ইতিহাসের প্রথম ফুটবলার হিসেবে ৮০০ গোলের মাইলফলকে পৌঁছে গেছেন ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো।

এর আগেও অনেক প্রথমের জন্ম দিয়েছেন তিনি। জাতীয় দলের জার্সিতে পেলে, পুসকাসকে ছাড়িয়ে সবচেয়ে বেশি গোলের রেকর্ড তাঁর, রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে তাঁর চেয়ে বেশি গোল নেই কারো। ইউরোপীয় শ্রেষ্ঠত্বের আসর চ্যাম্পিয়নস লিগেও তিনি সর্বোচ্চ গোলের চূড়ায়। পরশু আর্সেনালের বিপক্ষে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের ৩-২ গোলের জয়ে জোড়া গোল করে ক্লাব, জাতীয় দল মিলিয়ে ৮০১ গোলের আনকোরা আরেক চূড়ায় পা রেখেছেন পর্তুগিজ যুবরাজ। ম্যানইউতে ফিরে ১৬ ম্যাচে এরই মধ্যে ১২ গোল করে ফেলেছেন তিনি, তার আগে ছিল ১১৮ গোল। ৮০১ গোলের ১৩০টি তাই রেড ডেভিলের জার্সি গায়ে জড়িয়ে।

সবচেয়ে বেশি ৪৫০ গোল রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে, জুভেন্টাসের জার্সিতে করেছেন ১০১টি আর শুরুর স্পোর্তিংয়ের হয়ে ৫ গোল। এর সঙ্গে জাতীয় দলের জার্সিতে ১১৫ গোল মিলিয়েই ৮০১ গোলের যে পাহাড় দাঁড় করিয়েছেন, সেখানে পৌঁছা হালের এক লিওনেল মেসি ছাড়া আর কারো পক্ষে সম্ভব কি না কে জানে। মেসির গোল এখন ৭৫৬টি। ৭৬৯ গোল নিয়ে রোনালদোর পর এই তালিকার দ্বিতীয় স্থানে পেলে, সমান ৭৬১ গোল নিয়ে এরপর রোমারিও ও ফেরেংক পুসকাস, তারপর সেমি। পেলে রোমারিও অবশ্য হাজার গোলের দাবি করেন। তবে অনেক প্রীতি ম্যাচের গোল বাদ দিয়ে সেই সংখ্যাটা সাত শর ঘরে নেমে আসে। চেক প্রজাতন্ত্রের ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন জোসেফ বাইকানের ৮২১ গোলের হিসাব দেয়, কোথাও সেটি ৮০৫। তবে তাতেও রিজার্ভ দলের হয়ে খেলা এবং কিছু আন-অফিশিয়াল ম্যাচ বাদ দিলে তাঁর গোলও আরো কমে আসে।

রোনালদোকেই তাই এই সিংহাসনে মেনে নিয়েছে সবাই। বিবিসি



সাতদিনের সেরা