kalerkantho

শনিবার ।  ২১ মে ২০২২ । ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ । ১৯ শাওয়াল ১৪৪৩  

চার জাতি ফুটবল

ব্যর্থতার দায় নিচ্ছেন খেলোয়াড়রা

১৯ নভেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ক্রীড়া প্রতিবেদক : আরেকটি ব্যর্থতা সঙ্গে নিয়ে ফিরেছে বাংলাদেশ ফুটবল দল। কলম্বোর চার জাতি ফুটবলে ফাইনালে ওঠার ম্যাচে শ্রীলঙ্কার কাছে হেরে বিদায় নিয়ে ফেরার পর ব্যর্থতার দায় স্বীকার করে ফরোয়ার্ড সুমন রেজা বলেছেন, ‘ম্যাচটি আমাদের হাতে ছিল, কিন্তু আমাদের ব্যর্থতার কারণে জিততে পারিনি। ফরোয়ার্ড লাইনে আমাদের ফিনিশিংয়ের অভাব আছে। ’

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ড্রয়ের কাছাকাছি গিয়েও বাংলাদেশ ছিটকে গেছে শেষ মুহূর্তে গোল হজম করে।

বিজ্ঞাপন

এই দলের অন্তর্বর্তীকালীন কোচ মারিও লেমোসের হতাশা লক্ষ্য পূরণ না হওয়ার, ‘আমার লক্ষ্য ছিল ফাইনাল খেলার, কিন্তু যেভাবে হেরেছি সেটা ভীষণ হতাশার। নিশ্চয়ই আরেকটু ভালো করার সুযোগ ছিল এ ম্যাচে। ’ বাংলাদেশের বিপক্ষে এই জয়ে শ্রীলঙ্কা পৌঁছে গেছে ফাইনালের মঞ্চে, শিরোপার ম্যাচে আজ তারা মুখোমুখি হবে সেশেলসের। ফাইনালের লক্ষ্য পূরণ না হওয়ার জন্য বিশেষ কিছু সময়কে চিহ্নিত করেছেন সত্যজিৎ দাস রূপু, ‘প্রত্যাশা পূরণ না হওয়ার কারণ বিশ্লেষণ করলে দেখা যাবে সেশেলসের বিপক্ষে শেষ তিন মিনিট ও শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে শেষ দুই মিনিটে ম্যাচ হাতছাড়া হয়ে যায় আমাদের। ’ মাঠে দাপটের সঙ্গে খেললেও এই ছোট ছোট সময়ের ভুলেই তপু-জামাল ভূঁইয়া ছিটকে গেছেন টুর্নামেন্ট থেকে। এটাকে মনোযোগের অভাব হিসেবেই দেখছেন দলের ম্যানেজার।

সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের পর এই চার জাতি টুর্নামেন্ট অর্থাৎ টানা দুই টুর্নামেন্টে ফাইনালের চৌকাঠ থেকে ফিরেছেন জামাল ভূঁইয়ারা। এসব ব্যর্থতার স্মৃতি পেছনে ফেলে মারিও লেমোস বলেছেন এগিয়ে যাওয়ার কথা, ‘যা হয়েছে তা আর ফেরানোর উপায় নেই। কিন্তু এগিয়ে যেতে হবে আমাদের। আমি আমার সেরাটা দিয়ে চেষ্টা করেছি, ছেলেরাও সর্বোচ্চটুকু দিয়েছে। আশা করি পরের টুর্নামেন্টে ভালো হবে। ’ এভাবেই জাতীয় দলকে বিদায় বলছেন পর্তুগিজ কোচ। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে এই টুর্নামেন্টেই শেষ হয়েছে লেমোসের জাতীয় দল অধ্যায়।



সাতদিনের সেরা