kalerkantho

শনিবার । ১৫ মাঘ ১৪২৮। ২৯ জানুয়ারি ২০২২। ২৫ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

দুই দলের ট্রাম্প কার্ড

মুখোমুখি

১১ নভেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



দুই দলের ট্রাম্প কার্ড

টুর্নামেন্টজুড়ে বাবর আজম অসাধারণ খেলছেন। সঙ্গে মোহাম্মদ রিজওয়ান, মোহাম্মদ হাফিজ, শোয়েব মালিক, আসিফ আলীরা মিলে দলটাকে শিরোপার দাবিদার করে তুলেছেন। তবে পাকিস্তানের এই অজেয় চেহারার ভিত গড়া হয়েছিল প্রথম ম্যাচে ভারতের বিপক্ষে শাহীন শাহ আফ্রিদির প্রথম কয়েক ওভারেই।

তাঁর আগুন ঝরানো বোলিংয়ে দারুণ এক সূচনা পাওয়া পাকিস্তানকে এরপর আর পেছন ফিরে তাকাতে হয়নি।

বিজ্ঞাপন

আজ অস্ট্রেলিয়া তাদের থামাতে চাইলে শুরুতে আফ্রিদিকেই থামাতে হবে, কোনো সন্দেহ নেই। সেই কাজটা করার জন্য ডেভিড ওয়ার্নারের চেয়ে যোগ্য আর কে আছেন! প্রতিপক্ষ বোলারদের আত্মবিশ্বাস চুরমার করে দেওয়ার জন্য ওয়ার্নারের ফর্মে থাকাটাই যথেষ্ট। অফ ফর্মে থেকে বিশ্বকাপে এসে ফর্ম ফিরে পেয়েছেন বলা যাবে না, বরং ধারাবাহিকতার অভাব দেখা গেছে তাঁর ব্যাটে। পাঁচ ম্যাচের দুটিতে রান পেয়েছেন, তিনটিতে নিজের ছায়া হয়ে ছিলেন। শ্রীলঙ্কা ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে শেষ ম্যাচেই কেবল চওড়া ব্যাটে খেলতে দেখা গেছে তাঁকে। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ৪২ বলে করেছিলেন ৬৫, ওয়েস্ট ইন্ডিজের ৫৬ বলে ৮৯। এ রকমই আরেকটা দিন চাই তাঁর। সেই দিনটি আজ হলে আফ্রিদির আগুনে শুরু থেকে হয়তো বঞ্চিত হবে পাকিস্তান। তাতে অস্ট্রেলিয়ার জয়ের সম্ভাবনা যাবে বেড়ে।

তাই চোখ বুজে বলে দেওয়া যায়, ওয়ার্নারকে এ ম্যাচেও চাপে রাখতে চাইবেন আফ্রিদি। তাঁর ভয়ংকর সব ইনসুইং ডেলিভারিতে রাজত্ব করতে চাইবেন পাওয়ার প্লের ওভারগুলোতে। অস্ট্রেলিয়ার আরেক ওপেনার ও অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ মানছেন আফ্রিদিকে সামলানোর চ্যালেঞ্জটা, ‘পাকিস্তানের অন্যতম ইনফর্ম খেলোয়াড় এখন সে। ওকে সামলানোটা আসলেই বিশেষ কিছু হবে আমাদের জন্য। আর শুরুর এই পাওয়ার প্লেটাও ভীষণ গুরুত্বপূর্ণ। এ পর্যন্ত যা দেখেছি তাতে মাঝের এবং শেষের ওভারগুলোর পরিসংখ্যান মোটামুটি একই রকম। পার্থক্যটা হয়ে যাচ্ছে পাওয়ার প্লেতেই। ’ তাতে নিজেদের জন্য ওয়ার্নারই যে বড় বাজি সেটাও মানছেন ফিঞ্চ, ‘ওয়ার্নারের ফর্ম নিয়ে আমি মোটেও ভাবছি না। ও যে মানের খেলোয়াড় তাতে ওকে নিয়ে সংশয়ের এতটুকু সুযোগ নেই। ও যখন ব্যাটে-বলে করতে থাকে এর চেয়ে উপভোগ্য আর কিছু হয় না। ’ অস্ট্রেলিয়ার পেসাররাও এই আসরে দুর্দান্ত করছেন। সে হিসেবে বাবর-রিজওয়ানদেরও আজ নতুন চ্যালেঞ্জ নিতে হবে। মিচেল স্টার্ক, জশ হ্যাজেলউডদের শুরুর ওভারগুলোও সমান গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠতে পারে এ ম্যাচে। ক্রিকইনফো



সাতদিনের সেরা