kalerkantho

শনিবার । ৮ মাঘ ১৪২৮। ২২ জানুয়ারি ২০২২। ১৮ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

তিন ঘণ্টা তাঁরা বন্ধু নন

মুখোমুখি

১১ নভেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



তিন ঘণ্টা তাঁরা বন্ধু নন

শেফিল্ড শিল্ডে প্রথম দেখা দুজনের। বিশাল শরীরের ম্যাথু হেইডেনকে দেখে জাস্টিন ল্যাঙ্গার ভেবেছিলেন কোনো মাঠকর্মী! অবাক হয়ে যান পরদিন ব্যাট হাতে হেইডেনকে ওপেন করতে নামতে দেখে। এরপর দুজনের ক্রিকেটবিশ্বকেই অবাক করার পালা। ২০০১ সালে ওভাল টেস্টে প্রথমবার হেইডেনের সঙ্গে অস্ট্রেলিয়ার জার্সিতে ইনিংস ওপেন করতে নেমেছিলেন ল্যাঙ্গার।

বিজ্ঞাপন

বাকিটা ইতিহাস। ছয় বছর একসঙ্গে খেলে ১১৩ টেস্ট ইনিংসে ৫১.৮৮ গড়ে পাঁচ হাজার ৬৫৫ রানের জুটি গড়েছেন দুজন। উদ্বোধনী জুটিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজের গর্ডন গ্রিনিজ ও ডেসমন্ড হেইন্সই কেবল বেশি রান করেছেন হেইডেন-ল্যাঙ্গার জুটির চেয়ে।   সে সময় ক্রিকেটে অস্ট্রেলিয়ার রাজত্বে অন্যতম অবদান দুই বন্ধুর। নিয়তি আজ বিশ্বকাপ সেমিফাইনালে মুখোমুখি করাচ্ছে দুজনকে।

ল্যাঙ্গার এখন অস্ট্রেলিয়া জাতীয় দলের কোচ। আর হেইডেন পাকিস্তানের ব্যাটিং পরামর্শক। প্রিয় বন্ধুর বিপক্ষে ম্যাচ বলে বিন্দু পরিমাণ ছাড় দিতে চান না ল্যাঙ্গার, ‘হেইডেনের জন্য ভালো লাগছে। পাকিস্তানের হয়ে দুর্দান্ত কাজ করছে ও। টিম হোটেলে আড্ডা দিয়েছি দুজন। তবে সেমিফাইনালে তিন ঘণ্টার জন্য বন্ধুত্বটা তোলা থাকবে। তখন শুধুই জেতার জন্য খেলব আমরা। ’

মিসবাহ উল হক, ওয়াকার ইউনুসরা বিশ্বকাপের ঠিক আগে পদত্যাগ করেন পাকিস্তানের কোচিং প্যানেল থেকে। নতুন পিসিবি প্রধান রমিজ রাজা হাল না ছেড়ে ব্যাটিং পরামর্শক হিসেবে নিয়োগ দেন হেইডেনকে। হঠাৎ দায়িত্ব পেলেও অল্প সময়ে বাবর আজম, আসিফ আলী, মোহাম্মদ রিজওয়ানদের মন জয় করেছেন তিনি। পাকিস্তানের ঘরোয়া ক্রিকেটে বিগ হিটারখ্যাত আসিফ আরো পরিণত হয়েছেন হেইডেনের ছোঁয়ায়। সময়ের অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যান বাবর আজম বিশ্বকাপের পাঁচ ম্যাচে করেছেন চার ফিফটি। শিষ্যদের নিয়ে জন্মভূমি ও প্রিয় বন্ধু ল্যাঙ্গারের দল অস্ট্রেলিয়াকে হারাতে মুখিয়ে হেইডেন, ‘বিশ্বকাপের মতো কঠিন টুর্নামেন্টের সেমিফাইনাল খেলাটা রোমাঞ্চকর। সামনে এখন অস্ট্রেলিয়া। ল্যাঙ্গার দায়িত্বে ওদের। ওয়ানডে বিশ্বকাপে অনেক শিরোপা অস্ট্রেলিয়ার। অস্ট্রেলিয়া আর ল্যাঙ্গারের মুখোমুখি হওয়াটা অস্বস্তির। তবে পাকিস্তান ক্রিকেটের অংশ হতে পারাটা সম্মানের। দুই দশক যোদ্ধা ছিলাম অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটের। এটা সাহায্যই করবে আমাকে। ’

হেইডেনের মত দক্ষিণ আফ্রিকার ভারনান ফিল্যান্ডারকে বিশ্বকাপের ঠিক আগে বোলিং কোচ হিসাবে নিয়োগ দিয়েছে পিসিবি। বিশ্বকাপে ফিল্যান্ডারের কাজের প্রশংসা করলেন হেইডনে,‘ ভারনান অল্প সময়ে ভালো করেছে। বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচে দুবাইয়ে ভীষণ চাপ ছিল ভারতের বিপক্ষে যা একমাত্র অ্যাশেজের সঙ্গে তুলনা করা যেতে পারে। ছেলেরা ঠান্ডা মাথায় সেটা সামলেছে। ’

২০০১ সালে ওভাল টেস্টে হেইডেনের সঙ্গে জুটি বাঁধার আগে ছন্দ হারিয়েছিলেন ল্যাঙ্গার। পরিবারের সদস্যদের বলেও রেখেছিলেন, ওভালে খারাপ খেললে নিয়ে ফেলবেন অবসর। তবে পাশে হেইডেনকে পেয়ে সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে বসেন ল্যাঙ্গার। এর পর থেকে শুধু জাতীয় দলে নয়, দুজন মাঠের বাইরেও হয়ে যান ঘনিষ্ঠ বন্ধু। অ্যাডিলেডে ল্যাঙ্গারের বাড়িতে পরিবার নিয়ে প্রায়ই আড্ডা দিতেন হেইডেন। এত দিন বাদে স্মৃতিকাতর হয়ে উঠলেন ল্যাঙ্গার, ‘ওপেনিং জুটির মধ্যে সম্পর্কটা হওয়া উচিত ভাইয়ের মতো। আমাদের দুজনেরও তা-ই ছিল। ’ সেই দুই ‘ভাই’ বা বন্ধুর একজনের দল বাদ পড়বে আজ। শেষ হাসিটা হাসবেন কে, হেইডেন নাকি ল্যাঙ্গার?



সাতদিনের সেরা