kalerkantho

শনিবার । ১৫ মাঘ ১৪২৮। ২৯ জানুয়ারি ২০২২। ২৫ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

ফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে

অভিজ্ঞতা বড় অস্ত্র কিউইদের

৯ নভেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



অভিজ্ঞতা বড় অস্ত্র কিউইদের

নিউজিল্যান্ড টেস্টে সেরা। আইসিসির টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের রাজদণ্ড এখন তাদের কাছে। এক বলের এদিক-ওদিকে ওয়ানডে বিশ্বকাপের শিরোপাটাও হতে পারত তাদের। সেই নিউজিল্যান্ড টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের শেষ চারে থাকবে, এতে আর অবাক হওয়ার কী!

একটা সময় ছিল কিউইদের নিয়ে সেমিফাইনালের বেশি ভাবা যেত না।

বিজ্ঞাপন

কিন্তু গত কয়েক বছরে দলটা যেকোনো বিশ্ব আসরে শিরোপার অন্যতম দাবিদার হয়ে উঠেছে। ২০১৫-এর পর টানা দ্বিতীয় বিশ্বকাপ ফাইনাল খেলেছে তারা ২০১৯-এ। ইংল্যান্ডে সেবার সুপার ওভার শেষে হার মেনেছে তারা। তবে কিছুদিন আগে ভারতকে হারিয়ে আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ জিতে শিরোপা ক্ষুধা মেটায় তারা। এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপেও সেই নিউজিল্যান্ডকেই দেখা যাচ্ছে। পাকিস্তানের কাছে হেরে টুর্নামেন্ট শুরু করলেও সেমিতে যেতে যা যা করার সবই করেছে তারা।

পাকিস্তানের কাছে হারের ধাক্কা কাটাতে পারেনি ভারত, কিন্তু কিউইরা ঠিকই ঘুরে দাঁড়িয়েছে। পার্থক্য গড়ে দিয়েছে দুই দলের মুখোমুখি লড়াইটাই, যে ম্যাচে ভারতকে ৮ উইকেটে হারিয়েছে কেন উইলিয়ামসের দল। স্কটিশরা তাদের পরীক্ষায় ফেলেছিল, কিন্তু শেষ পর্যন্ত পারেনি। চোখ রাঙিয়েছিল নামিবিয়াও, কিন্তু পেশাদার নৈপুণ্যে কিউইরা সুযোগ দেয়নি। আফগানিস্তানের বিপক্ষে সেমিফাইনাল নিশ্চিত করার সবচেয়ে কঠিন ম্যাচটাও কিউইরা পার হয়ে গেছে ঠাণ্ডা মাথায়। ম্যাচের আগেই যা উত্তাপ ছিল ভারতের সম্ভাবনা নিয়ে, ম্যাচে শুধুই কিউই দাপট। আরব আমিরাতের কিছুটা মন্থর উইকেটেও ট্রেন্ট বোল্ট, টিম সাউদি, অ্যাডাম মিলনেরা দেখিয়েছেন কিভাবে সফল হতে হয়।

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সেমিফাইনালে যে তারা বড় অস্ত্র হয়ে উঠবেন, এতে সন্দেহ নেই। নিজেদের কার্যকারিতার ওপর আস্থাও আছে বোল্টের, ‘এই উইকেটে পারফরম করা সত্যি চ্যালেঞ্জিং। যত সময় গড়ায় উইকেটের আচরণ বদলে যায়। তবে আমরা অনেক দিন ধরে এখানে আছি, ফলে এটা মানিয়ে নিতেও শিখেছি। এ ক্ষেত্রে বড় অস্ত্র হলো অভিজ্ঞতা, সত্যি বলতে আমাদের দলে সেই অভিজ্ঞতার অভাব নেই। ’ টুর্নামেন্টের ফেভারিট ইংল্যান্ডের জন্যও তাই বড় চ্যালেঞ্জই অপেক্ষা করছে শেষ চারে। আইসিসি



সাতদিনের সেরা