kalerkantho

শনিবার । ১৫ মাঘ ১৪২৮। ২৯ জানুয়ারি ২০২২। ২৫ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

সেমিফাইনালের সুযোগ আছে সবারই

‘অ্যাশেজ’-এ পুড়ে ছাই অস্ট্রেলিয়া। চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ইংল্যান্ড ৫০ বল বাকি থাকতে ৮ উইকেটে হারিয়েছে অস্ট্রেলিয়াকে। তাতে পয়েন্ট টেবিলের তিনে নামার পাশাপাশি রান রেটও কমেছে অ্যারন ফিঞ্চদের। অস্ট্রেলিয়ার এমন হারে জমে উঠেছে গ্রুপ-১ থেকে সেমিফাইনালে পৌঁছানোর লড়াই। এমনকি সম্ভাবনা আছে বাংলাদেশেরও! কিভাবে? সেই পথেরই নির্দেশিকা

১ নভেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ইংল্যান্ড

টানা তিন জয়ে ইংল্যান্ডের পয়েন্ট ৬। রান রেটও সবচেয়ে বেশি ৩.৯৮৪। শেষ দুই ম্যাচে শ্রীলঙ্কা আর দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে হারলে পয়েন্ট ৬ থাকবে ইংল্যান্ডের। অস্ট্রেলিয়া ও দক্ষিণ আফ্রিকা নিজেদের বাকি দুই ম্যাচ জিতলে পয়েন্ট হবে সমান ৮।

বিজ্ঞাপন

সে ক্ষেত্রে বাদ পড়ে যাবে ইংল্যান্ড! তবে আর এক ম্যাচ জিতলে রান রেট ভালো থাকায় সেমিফাইনাল নিশ্চিত হবে এউইন মরগানদের।

 

দক্ষিণ আফ্রিকা

তিন ম্যাচে পয়েন্ট ৪। শেষ দুই ম্যাচ জিতলে পয়েন্ট হবে ৮। ম্যাচ দুটির প্রতিপক্ষ ইংল্যান্ড ও বাংলাদেশ। সমান ৮ পয়েন্ট হওয়ার সুযোগ আছে ইংল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়ার। তখন নেট রান রেটে নির্ধারিত হবে তাদের ভাগ্য। অস্ট্রেলিয়ার রান রেট --০.৬২৭ হওয়ায় সুযোগ বেশি দক্ষিণ আফ্রিকার। আবার ৬ পয়েন্ট নিয়েও প্রোটিয়ারা সেমিফাইনালে যেতে পারে, অন্য ম্যাচের ফল পক্ষে এলে।

 

অস্ট্রেলিয়া

অ্যারন ফিঞ্চের দলের সমীকরণও দক্ষিণ আফ্রিকার মতো। তিন ম্যাচে পয়েন্ট ৪। বাকি দুই ম্যাচ জিতলে পয়েন্ট হবে ৮। নেট রান রেট কম থাকায় শেষ দুটি ম্যাচ বড় ব্যবধানে জেতার লক্ষ্য তাদের। ইংল্যান্ড, দক্ষিণ আফ্রিকার পয়েন্টও ৮ হলে নেট রান রেটের জন্য বাদ পড়ার শঙ্কা থাকবে অস্ট্রেলিয়ার। একইভাবে অন্য ম্যাচের ফল পক্ষে এলে সম্ভব ৬ পয়েন্ট নিয়ে সেমিফাইনালে যাওয়া।

 

শ্রীলঙ্কা

তিন ম্যাচে এক জয়ে শ্রীলঙ্কার পয়েন্ট ২। একমাত্র জয়টি এসেছে বাংলাদেশের বিপক্ষে। শেষ ২ ম্যাচে প্রতিপক্ষ ইংল্যান্ড ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ। জিততে পারলে পয়েন্ট হবে ৬। অস্ট্রেলিয়া আর দক্ষিণ আফ্রিকা নিজেদের দুই ম্যাচ হারলে তখন ইংল্যান্ডের সঙ্গে সেমিফাইনালে যাবে শ্রীলঙ্কা। তবে বাস্তবতা হচ্ছে, অন্তত ৩টি দলের সম্ভাবনা আছে ৮ পয়েন্ট পাওয়ার। তাই নিজেদের ২ ম্যাচ জিতলেও সৌভাগ্যের ছোঁয়া লাগবে লঙ্কানদের।

 

ওয়েস্ট ইন্ডিজ

দুই বারের চ্যাম্পিয়ন ওয়েস্ট ইন্ডিজের সমীকরণ শ্রীলঙ্কার মতো। তিন ম্যাচে পয়েন্ট মাত্র ২। হারতে হারতে একমাত্র জয়টা বাংলাদেশের সঙ্গে। শেষ দুই ম্যাচের প্রতিপক্ষ শ্রীলঙ্কা আর অস্ট্রেলিয়া। অস্ট্রেলিয়া ও দক্ষিণ আফ্রিকা নিজেদের দুই ম্যাচ হারলে ৬ পয়েন্ট নিয়ে সেমিফাইনালে যেতেই পারে ক্যারিবীয়রা। কিন্তু রান রেট কম থাকায় অন্য দুই দলের পয়েন্ট ৬ হলে সুযোগ কমবে কিয়েরন পোলার্ডের দলের।

 

বাংলাদেশ

শেষ দুই ম্যাচ জিতলে বাংলাদেশের পয়েন্ট হবে ৪। নেট রান রেট -১.০৬৯। তাই জিততে হবে বড় ব্যবধানে। আশায় থাকতে হবে ইংল্যান্ড যেন শেষ দুই ম্যাচ জিতে। সে ক্ষেত্রে হারছে শ্রীলঙ্কা আর দক্ষিণ আফ্রিকা। ওয়েস্ট ইন্ডিজকে অবশ্যই জিততে হবে অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে। আর শ্রীলঙ্কার জিততে হবে ওয়েস্ট ইন্ডিজের সঙ্গে। তখন বাকি ৫ দলের পয়েন্ট হবে সমান ৪। বড় ব্যবধানে জিতে রান রেট বাড়াতে পারলে মিলে যেতে পারে বাংলাদেশের জটিল অঙ্কটাও!



সাতদিনের সেরা