kalerkantho

বুধবার । ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ১ ডিসেম্বর ২০২১। ২৫ রবিউস সানি ১৪৪৩

ম্যাচের আগে

কঠিন চ্যালেঞ্জের প্রত্যাশায় বাটলার

২৭ অক্টোবর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



কঠিন চ্যালেঞ্জের প্রত্যাশায় বাটলার

ক্রীড়া প্রতিবেদক : আবুধাবির ৩২ ডিগ্রি তাপমাত্রায় পারবে তো ইংল্যান্ড? গরম আর ধীরগতির উইকেটে খেলাটা তাদের মতো দলের জন্য কঠিন। তবে রেকর্ড বলছে অন্য কথা। আরব আমিরাতের তিন ভেন্যু শারজা, আবুধাবি ও দুবাইয়ে দাপট তাদেরই। আবুধাবিতে ২০১২ সালে পাকিস্তানের বিপক্ষে একটিই টি-টোয়েন্টি খেলেছে ইংল্যান্ড। ৫ রানের রুদ্ধশ্বাস জয়ে মাঠ ছেড়েছিল ইংলিশরা। ২০১৫ সালে শারজায়ও পাকিস্তানের বিপক্ষে একবার মুখোমুখি ইংল্যান্ড। টাই হয়েছিল ম্যাচটি। দুবাইয়ে তারা সাত টি-টোয়েন্টির পাঁচটিই জিতেছে। সর্বশেষ চার ম্যাচের ফলও ইংলিশদের পক্ষে।

আরব আমিরাতের কন্ডিশনে এমন দাপুটে রেকর্ডের সুবাদে ইংলিশ সাবেক অধিনায়ক মাইকেল ভন শুধু আজ বাংলাদেশের বিপক্ষে ম্যাচ নয়, টুর্নামেন্টেরই ফেভারিট বললেন ইংল্যান্ডকে, ‘জানি না ভারতকে সবাই কেন ফেভারিট বলছে। আমার তো মনে হয় এই বিশ্বকাপে ইংল্যান্ড ফেভারিট।’ ইংল্যান্ডের চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী অস্ট্রেলিয়ান কিংবদন্তি শেন ওয়ার্নও দ্বিমত করেননি ভনের সঙ্গে, ‘আমার মনে হয় ইংল্যান্ড আর ভারত এবারের বিশ্বকাপে ফেভারিট।’

তবে গতকাল সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশকে সমীহই করলেন  ইংল্যান্ডের উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান জস বাটলার। কঠিন চ্যালেঞ্জ প্রত্যাশা করছেন তিনি, ‘বাংলাদেশ ঘরের মাঠে খুব ভালো দল। আবুধাবির কন্ডিশন অনেকটা ওদের দেশের মতো। এখানে যে ধরনের কন্ডিশন থাকবে এর সঙ্গে বাংলাদেশের পরিচয় থাকার কথা। কঠিন চ্যালেঞ্জের প্রত্যাশা করছি আমরা।’

বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের নিয়ে ভালো ধারণার কথাও জানিয়ে গেলেন বাটলার, ‘বাংলাদেশ সাধারণত স্পিননির্ভর দল। অনেক ফিঙ্গার স্পিনার খেলায় ওরা। সাকিব আল হাসান ভীষণ অভিজ্ঞ, অনেক টি-টোয়েন্টি খেলেছে ও। স্কয়ার অব দ্য উইকেটে শক্তিশালী বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা। অনেক দিন ধরেই খেলছে সাকিব, মাহমুদ, মুশফিকরা।’

বিস্ময়করভাবে টি-টোয়েন্টিতে এখনো দেখা হয়নি বাংলাদেশ ও ইংল্যান্ডের। সেই খরাটা কাটবে আজ। আর প্রথম দেখায় নিজের হারানো ফর্ম খুঁজে পেতে মরিয়া ইংলিশ হার্ডহিটার লিয়াম লিভিংস্টোন। এ বছরের জুলাইয়ে পাকিস্তানের বিপক্ষে ৪২ বলে সেঞ্চুরি করেছিলেন তিনি, যা ইংলিশ ব্যাটারদের মধ্যে দ্রুততম। ইংল্যান্ডের টি-টোয়েন্টি ব্লাস্টে সেঞ্চুরি করেছেন ৪৯ বলে। সেই তিনি আইপিএলে পাঁচ ইনিংসের চারটিতে আউট ১০ রানের কমে। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচেও করেছেন মাত্র ১। আজ ঘুরে দাঁড়াতে মরিয়া লিভিংস্টোন, ‘কঠোর পরিশ্রম করছি। অনুশীলনে ভালো একটা সেশন কাটিয়েছি, এরপর মনে হচ্ছে গত গ্রীষ্মের মতো বল ব্যাটে আসছে। আশা করছি, পরের ম্যাচগুলোয় এটা করে দেখাতে পারব।’



সাতদিনের সেরা