kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ৩০ নভেম্বর ২০২১। ২৪ রবিউস সানি ১৪৪৩

এই ম্যাচ সব সময় চাপের

২৪ অক্টোবর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



এই ম্যাচ সব সময় চাপের

বিশ্বকাপ শুরু না হতেই বিশৃঙ্খলা। একেবারে শেষ দিনে এসে তিনজন বদলে ফেলেছে পাকিস্তান। ইনজুরির জন্য বাদ পড়েছে আরেকজন। নিয়ে আসা হলো শোয়েব মালিককে, অথচ ও সেরা ছন্দে নেই। এ থেকেই বোঝা যায় নির্বাচকদের যথেষ্ট পরিকল্পনা ছিল না।

ভারতের বিপক্ষে খেলা সব সময় চাপের। বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচে সেটা আরো বেশি। এই ম্যাচে পাকিস্তানকে বিপদে ফেলতে পারে বরুণ চক্রবর্তী। এই স্পিনারের বল কখনো খেলেনি পাকিস্তান। ম্যাচের আগে অবশ্যই বরুণের বলের ভিডিও দেখা উচিত ব্যাটারদের। কিভাবে ওকে সামলানো যাবে, সেই পথটা খুঁজে বের করতে হবে। একাদশে থাকলে অবশ্যই বরুণ ঝামেলায় ফেলতে পারে পাকিস্তানকে, বিশেষ করে মিডল অর্ডারে।

এবারের বিশ্বকাপে ভারত আমার ১ নম্বর ফেভারিট। দুইয়ে রাখব ওয়েস্ট ইন্ডিজকে, ওরা সব সময় ভয়ংকর দল। চার, পাঁচ বা ছয়—যত উইকেট যাক, ওরা পাত্তা না দিয়ে মারতেই থাকে। ওয়েস্ট ইন্ডিজ এবার সুনীল নারিনের মতো পারফরমারকে রাখেনি, যা অবাক করার মতো। পাকিস্তানকে আমি সেমিফাইনালে দেখছি। শেষ চারের ভালো সুযোগ আছে বাবর আজমের দলের। সেমিফাইনালে চতুর্থ দল হিসেবে ইংল্যান্ডকে রাখব।

ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ বলে তুলনা চলে আসছে বিরাট কোহলি-বাবর আজমের। কোহলি একজনই, ও সর্বকালের সেরাদের একজন। বিশ্বকাপের পর নেতৃত্ব ছাড়াটা শাপে বর হবে কোহলির। আরো সাহসী ব্যাটিং করতে পারবে ও। বাবরও উন্নতি করছে দ্রুত। তিন ফরম্যাটে ভালো করছে। কোহলি যেসব শৃঙ্গে পৌঁছেছে, বাবরের সামর্থ্য আছে সেই উচ্চতায় পৌঁছানোর। দুজনের ব্যাটিং দেখতে মুখিয়ে আছি।

পাকিস্তানি সাবেক অধিনায়ক

সৌজন্যে : আজতক



সাতদিনের সেরা