kalerkantho

রবিবার । ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ২৮ নভেম্বর ২০২১। ২২ রবিউস সানি ১৪৪৩

ছোট দলেরও লক্ষ্য বড়

১৭ অক্টোবর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ছোট দলেরও লক্ষ্য বড়

আইসিসির সহযোগী সদস্য। বিশ্বকাপের মঞ্চে এদের বলা হয় ‘মিনোজ’, ছোট দল। ক্রিকেটবিশ্বের ছোট দল হলেও বৈশ্বিক আসরে বড় স্বপ্ন নিয়েই এসেছে স্কটল্যান্ড। আজ বাংলাদেশের বিপক্ষে এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচেও যথেষ্ট আত্মবিশ্বাসের সঙ্গেই নামছে দলটি। স্কটল্যান্ডের কোচ শেন বার্গার তো মনে করেন যেকোনো দলকে চমকে দেওয়ার সামর্থ্য তাঁর শিষ্যদের আছে।

স্কটল্যান্ডের সঙ্গে বাংলাদেশের ক্রিকেট-রূপকথা জড়িয়ে। ওয়ানডে বিশ্বকাপে বাংলাদেশের প্রথম জয় তো এই দলটির বিপক্ষেই। তখন স্কটল্যান্ডও হুমকি ছিল বাংলাদেশের জন্য। কিন্তু এরপর সময় যত গড়িয়েছে, ততই স্কটল্যান্ডের ক্রিকেটীয় সামর্থ্যের সঙ্গে ব্যবধান বাড়িয়েছে বাংলাদেশ। কিন্তু বার্গার আশাবাদী, ‘আমরা বিশ্বাস করি, যদি নিজেদের সেরা ক্রিকেটটা খেলতে পারি, তাহলে যেকোনো দলকে বিপদে ফেলতে পারব।’

এবারের আসরের প্রস্তুতি ম্যাচের নৈপুণ্যও আত্মবিশ্বাস জুগিয়ে থাকবে স্কটল্যান্ড দলকে। প্রায় সমশক্তির নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে ৬ উইকেটে মাত্র ১২২ তুলেও কিন্তু ৩১ রানে ম্যাচটি জেতে স্কটল্যান্ড। আমিরাতের কন্ডিশন স্পিন সহায়ক। দলটির বাঁহাতি স্পিনার মার্ক ওয়াট ও লেগ স্পিনার ক্রিস গ্রেভস চারটি করে উইকেট নিয়ে বুঝিয়ে দিয়েছেন, অচেনা কন্ডিশনের জন্য ভালোমতোই প্রস্তুত তারা। পরের ম্যাচে নামিবিয়ার বিপক্ষে স্কটল্যান্ড দেখিয়েছে তাদের ব্যাটিং শক্তি। জর্জ মুনসে ও ম্যাথিউ ক্রসের ফিফটিতে ৭ উইকেটে ২০৩ রানের পাহাড় গড়ে ম্যাচটি জিতেছে স্কটল্যান্ড।

প্রতিপক্ষ যে দলই হোক, ব্যাটে-বলের এই দাপট নিঃসন্দেহে আত্মবিশ্বাস জোগাবে স্কটল্যান্ডকে। দলটির কোচ বার্গার আরেকটি কারণে নিজেদের সম্ভাবনা দেখছেন, ‘ফরম্যাট ছোট হওয়ায় দুই দলের সামর্থ্যের ব্যবধান কমে যায়। আমরা জানি সেটুকু ব্যবধানও কমিয়ে আনার সামর্থ্য আমাদের আছে। মাঠে সেটা করে দেখাতে পারলে যেকোনো দলকে হারাতে পারি, হোক সেটা বাংলাদেশ, ওমান অথবা পাপুয়া নিউ গিনি।’

এখানেই থামেননি স্কটল্যান্ড কোচ, ‘গ্রুপ ম্যাচের পাল্লায় যদি মাপি, তাহলে তো বাংলাদেশকে ওমান কিংবা পাপুয়া নিউ গিনির চেয়ে শক্তিশালী দল বলে মনে হয় না। এই গ্রুপের প্রতিটি দলকে আমরা ভালোভাবে জানি। বরং ওদের কষ্ট হবে আমাদের হারাতে। আমরা সব রকমের প্রস্তুতি নিয়েছি।’

শেন বার্গারের এই আত্মবিশ্বাসের উৎস প্রস্তুতি ম্যাচ দুটিতে জয়। ‘নেদারল্যান্ডস এবং নামিবিয়ার বিপক্ষে জয় আমাদের দারুণ আত্মবিশ্বাস জোগাচ্ছে। প্রথমবার টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে নামার আগে এই ছন্দটা দরকার ছিল। বিশেষ করে বাংলাদেশের মতো দলের বিপক্ষে মাঠে নামার আগে এই আত্মবিশ্বাস সাহায্য করবে। ম্যাচগুলোয় আমরা ছোটখাটো ভুল করেছি। তবু বলব, গত এক মাসে আমরা ভালো ক্রিকেট খেলেছি।’ আজকের প্রতিপক্ষ বাংলাদেশকে প্রচ্ছন্ন হুমকিও দিয়ে রাখলেন স্কটল্যান্ড কোচ, ‘রবিবার (আজ) দিন। অতীতে কী করেছি সেসব ভেবে লাভ নেই। নির্দিষ্ট দিনে ভালো খেলতে হবে। প্রত্যেককে সেরা ক্রিকেটটা খেলতে হবে।’ ক্রিকইনফো



সাতদিনের সেরা