kalerkantho

বুধবার । ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ১ ডিসেম্বর ২০২১। ২৫ রবিউস সানি ১৪৪৩

বিশ্বকাপের আরো কাছে ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা

১৬ অক্টোবর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



বিশ্বকাপের আরো কাছে ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা

নেইমার স্বর্গে খেললে সেই ফুটবল দেখার জন্য নাকি মরতেও রাজি ছিলেন রিচার্লিসন। কাসেমিরো, ফ্রেদরাও অবসরের চিন্তা মাথা থেকে ঝেড়ে ফেলতে বলেন নেইমারকে। তাতেই সরেছে অনন্ত চাপের পাহাড়। আর ছন্দে থাকা নেইমার কতটা ভয়ংকর তা ভালোভাবে টের পেল উরুগুয়ে। ব্রাজিলিয়ান এই তারকার চোখ-ধাঁধানো ফুটবলে ৪-১ গোলের দাপুটে জয় পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের। এক গোল আর দুটি অ্যাসিস্ট ছিল নেইমারের। অন্য গোলটিতেও ছিল তাঁর ছোঁয়া। পাশাপাশি তৈরি করেছিলেন আরো অসংখ্য সুযোগ। লুই সুয়ারেসের সঙ্গে লড়াইটা তাই একতরফা জিতলেন নেইমার।

বিশ্বকাপ বাছাই পর্বের অন্য ম্যাচে পেরুর জালে তিনবার বল পাঠিয়েছিল আর্জেন্টিনা। তবে বাতিল হয় দুটি গোল। শেষ পর্যন্ত ১-০ ব্যবধানের জয়ে কাতার বিশ্বকাপের পথে আরো এক ধাপ এগিয়ে গেলেন লিওনেল মেসিরা। পেরুর ইয়োশিমার ইয়োতুন পেনাল্টি মিস না করলে অবশ্য ড্রও হতে পারত ম্যাচটি। ১১ ম্যাচ শেষে ব্রাজিলের পয়েন্ট ৩১ আর আর্জেন্টিনার ২৫। বিশ্বকাপের টিকিট নিশ্চিত করাটা এখন শুধু সময়ের ব্যাপার দুই দলের। অন্য ম্যাচে বলিভিয়ার কাছে ৪-০ গোলে হারের পর বরখাস্ত হয়েছেন প্যারাগুয়ের কোচ এদুয়ার্দো বেরিজ্জো।

বাছাই পর্বে টানা ৯ জয়ের পর কলম্বিয়ার কাছে হোঁচট খেয়েছিল ব্রাজিল। গতকাল ৫৫ শতাংশ বলের দখল আর পোস্টে নেওয়া ২২ শটের ১৩টি লক্ষ্যে রেখে ব্রাজিল জয়ে ফিরল সাম্বার ছন্দে। ফ্রেদের পাস বুক দিয়ে নামিয়ে গোলরক্ষককে বোকা বানানোর পর দুই ডিফেন্ডারের মাঝখান দিয়ে নেওয়া শটে দশম মিনিটে ব্রাজিলকে এগিয়ে নেন নেইমার। জাতীয় দলে এটা তাঁর ৭০তম গোল। ১৮ মিনিটে নেইমারের বাঁকানো শট গোলরক্ষক ফের্নান্দো মুসলেরা কোনোমতে ফেরালেও ফিরতি বল জালে জড়িয়ে দেন রাফিনহা। ৫৮ মিনিটে আবারও এই যুগলের জাদু। নেইমারের পাসে ব্যবধান ৩-০ করেন রাফিনহা। ৭৭ মিনিটে ফ্রিকিকে এক গোল ফিরিয়েছিলেন সুয়ারেস। তবে ৮৩ মিনিটে নেইমারের ক্রসে গ্যাব্রিয়েল বারবোসার হেডে ৪-১ ব্যবধানের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে ব্রাজিল। বিশ্বকাপ বাছাই পর্বের নতুন সংস্করণে চিলির অ্যালেক্সিস সানচেজের সমান রেকর্ড ১৫টি অ্যাসিস্ট এখন নেইমারের। ম্যাচে তাঁর নিখুঁত পাস ৪১টি, গোল হওয়ার মতো ছিল আটটি, প্রতিপক্ষের কাছ থেকে বলও কেড়েছেন ১৪ বার। ম্যাচটি ছিল নেইমারময়।

আন্তর্জাতিক ম্যাচে আর্জেন্টিনা সর্বশেষ হেরেছিল ২০১৯ কোপা আমেরিকার সেমিফাইনালে। ব্রাজিলের কাছে ২-০ গোলে হারের পর থেকে টানা ২৫ ম্যাচ অপরাজিত লিওনেল স্কালোনির দল। এই পথে ব্রাজিলকেও হারিয়েছে দুইবার। আগের ম্যাচে উরুগুয়েকে বিধ্বস্ত করা আর্জেন্টিনা গতকালও শুরু করেছিল দাপটে। ঘরের মাঠে অ্যাওয়ে জার্সিতে খেলা দলের হয়ে নবম মিনিটে হেডে বল জালে জড়ান ক্রিস্তিয়ান রোমেরো। অফসাইডের জন্য বাতিল হয় গোলটি। গুটিয়ে না থেকে পেরু খেলেছে আক্রমণাত্মক ফুটবল। জিয়ানলুকা লাপাদুলা বিরতির আগে দুইবার ভালো সুযোগ পেয়েছিলেন পেরুকে এগিয়ে নেওয়ার। তিনি না পারলেও ৪৩ মিনিটে নাহুয়েল মোলিনার ক্রসে নেওয়া বুলেট হেডারে আর্জেন্টিনার হয়ে কাঙ্ক্ষিত গোলটি করেন লাউতারো মার্তিনেজ। সর্বশেষ আট ম্যাচে এটা তাঁর ষষ্ঠ গোল। স্কালোনির অধীনে ৩৩ ম্যাচে এটা মার্তিনেজের ১৭তম গোল, এই সময়ে আর্জেন্টিনার আর কোনো স্ট্রাইকার পাননি এত গোল।

৬৬ মিনিটে গোলরক্ষক এমিলিয়ানো মার্তিনেজ বক্সে জেফারসন ফারফানকে ফাউল করলে পেনাল্টি পায় পেরু। ইয়োশিমার ইয়োতুনর শট ক্রসবারে লাগলে সমতা ফেরানোর সুযোগ নষ্ট হয় তাদের। ফাউলের কারণে আর্জেন্টিনার গিদো রদ্রিগেজের গোল বাতিল হয় হওয়ায় ন্যূনতম ব্যবধানেই সন্তুষ্ট থাকতে হয় আর্জেন্টিনাকে। ইএসপিএন



সাতদিনের সেরা