kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১২ কার্তিক ১৪২৮। ২৮ অক্টোবর ২০২১। ২০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

এশিয়াডে ব্যক্তিগত ইভেন্টে একমাত্র পদকজয়ীর করুণ জীবনসংগ্রাম

দায় এড়িয়ে যান সংশ্লিষ্টরা

১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ১ মিনিটে



গত সপ্তাহে আইপিএল খেলতে যাওয়ার আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেছেন ক্রিকেটার সাকিব আল হাসান। ২০১৮ সালের অক্টোবরে প্রয়াত তিন তারকা ফুটবলার মোনেম মুন্না, হকি খেলোয়াড় জাহিদুর রহমান পুশকিন ও জুম্মন লুসাইয়ের স্ত্রীসহ ১২ পরিবারের হাতে প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিল থেকে এক কোটি ৮২ লাখ টাকার অনুদান নিজ হাতে তুলে দিয়েছেন শেখ হাসিনা। খেলোয়াড় ও তাঁদের পরিবারকে এমন অসংখ্যবার সহায়তা ও পুরস্কৃত করেছেন তিনি। তাই মোশাররফ হোসেনও আশায়, প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাতের। তাঁর দুর্দশা জানলে নিশ্চিতভাবেই এগিয়ে আসবেন শেখ হাসিনা। সেই আর্তি বারবার বক্সিং ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক মাজহারুল ইসলাম তুহিনের কাছে জানিয়ে এসেছেন তিনি। কিন্তু ব্যর্থ তুহিন আর বক্সিং ফেডারেশন। তুহিন জানালেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে মোশাররফের সাক্ষাৎ করানো কঠিন।’ তাই বলে অসুস্থতার বার্তাটাও কি পাঠানো যাবে না? তুহিনের জবাব, ‘চেষ্টা করছি।’

বাংলাদেশ অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশনের মহাসচিব সৈয়দ শাহেদ রেজা জানালেন, ‘ফোনে এসব হয় না। কাগজপত্র আনতে বলুন। আমরা দেখছি।’ তাহলে কি মোশাররফের মতো তারকাকে পঙ্গু শরীর নিয়ে কড়া নাড়তে হবে অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশনের দরজায়?



সাতদিনের সেরা