kalerkantho

রবিবার । ৪ আশ্বিন ১৪২৮। ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১। ১১ সফর ১৪৪৩

তামিম-মুশফিকের পর লিটনও নেই

২৭ জুলাই, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



তামিম-মুশফিকের পর লিটনও নেই

ক্রীড়া প্রতিবেদক : অস্ট্রেলিয়া দল ওয়েস্ট ইন্ডিজে যাওয়ার আগেই জানা হয়ে গিয়েছিল যে বাংলাদেশ সফরে আসছেন না ডেভিড ওয়ার্নার, স্টিভেন স্মিথ, গ্লেন ম্যাক্সওয়েল, মার্কাস স্টয়েনিস ও প্যাট কামিন্সের মতো তারকা ক্রিকেটাররা। তবে ক্যারিবীয় দ্বীপপুঞ্জ সফরের শেষ দিকে হাঁটুর চোটে ছিটকে পড়েছেন অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চও। অবশ্য ২৯ জুলাই ঢাকায় পা রাখার আগে শক্তিক্ষয় যে শুধু অস্ট্রেলিয়ারই হচ্ছে বিষয়টি এমনও নয়, শক্তি হারাচ্ছে বাংলাদেশও। তামিম ইকবাল ও মুশফিকুর রহিমের পর এবার অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ থেকে লিটন কুমার দাসও ছিটকে পড়েছেন বলে নিশ্চিত করেছেন বিসিবির ক্রিকেট অপারেশনস কমিটির প্রধান আকরাম খান।

মুশফিকের যে কারণে এই সিরিজ খেলা হচ্ছে না, লিটনের ক্ষেত্রেও ব্যাপারটি ঠিক তা-ই। জিম্বাবুয়েতে ২৫ জুলাই খেলা শেষ হয়ে গেলেও বাংলাদেশ দল দেশে ফিরছে অস্ট্রেলিয়া আসার দিনই। কিন্তু লিটন ব্যক্তিগত কারণে এর আগেই দেশে ফিরছেন বলে জানিয়েছেন আকরাম, ‘লিটনের পরিবারের একজন সদস্য অসুস্থ। সে জন্য সে (দলের) আগেই দেশে ফিরছে। চোট থাকায় অস্ট্রেলিয়া সিরিজের প্রথম দুই ম্যাচে আমরা এমনিতেও হয়তো ওকে পেতাম না। এখন অসুস্থ পরিবারের সদস্যের পাশে থাকার জন্য আগেই ফিরতে হচ্ছে ওকে।’ আগেই দলছুট হয়ে যাওয়ার জন্য পুরো অস্ট্রেলিয়া সিরিজ থেকে এমনিতেই বেরিয়ে যেতে হচ্ছে তাঁকে। কারণ সফরে আসার জন্য অস্ট্রেলিয়ার দেওয়া নানা পূর্বশর্তের অন্যতম এটি যে বায়ো বাবল বা জৈব সুরক্ষা বলয়ের বাইরে থাকা ক্রিকেটারদের এই সিরিজ খেলতে হলে (অস্ট্রেলিয়া দল আসার) অন্তত ১০ দিন আগে থেকে কোয়ারেন্টিন শুরু করতে হবে। ব্যক্তিগত কারণে জিম্বাবুয়ের বলয় থেকে বেরিয়ে আসা লিটনের জন্য সেই সময়টিও আর নেই। মা-বাবার অসুস্থতার জন্য ওয়ানডে সিরিজ না খেলেই দেশে ফেরা মুশফিকের ক্ষেত্রেও তা-ই ঘটেছে। হাঁটুর চোটের পুনর্বাসনের জন্য দুই মাসের বিশ্রাম পাওয়া তামিম ইকবালের অবশ্য এমনিতেও এই সিরিজ খেলা হতো না। জিম্বাবুয়ে সফরের প্রস্তুতি ম্যাচে পাওয়া গোড়ালির চোটের জন্য অস্ট্রেলিয়া সিরিজের সব ম্যাচে মুস্তাফিজুর রহমানকে পাওয়া নিয়েও আছে সংশয়। টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচে ফিল্ডিং করতে গিয়ে ঊরুতে চোট পেয়েছিলেন লিটনও। সেটি এমন গুরুতর ছিল যে পরের দুই ম্যাচও খেলা হয়নি তাঁর। কাজেই অস্ট্রেলিয়াই শুধু নয়, আসন্ন সিরিজে সেরা দল নামাতে পারছে না স্বাগতিকরাও।

সিরিজের পাঁচটি ম্যাচ হবে সাত দিনের মধ্যে। ৩ আগস্ট প্রথম ম্যাচ। এর আগে ২৯ জুলাই ঢাকায় আসার পর অস্ট্রেলিয়ার মতো বাংলাদেশ দলও বিমানবন্দর থেকে সরাসরি ঢুকে পড়বে হোটেলের জৈব সুরক্ষা বলয়ে। দুই দলকেই হোটেলে তিন দিনের রুম কোয়ারেন্টিনও করতে হবে। অস্ট্রেলিয়া দল ক্যারিবীয় দ্বীপপুঞ্জ থেকে চার্টার্ড ফ্লাইটে আসবে ঢাকায়। এই সিরিজের প্রতিটি ম্যাচ সন্ধ্যা ৬টায় শুরু হবে বলে জানিয়েছেন আকরাম। সেই সঙ্গে শুধু জিম্বাবুয়ে সফরের জন্য ব্যাটিং উপদেষ্টা হিসেবে নিয়োগ পাওয়া দক্ষিণ আফ্রিকার অ্যাশওয়েল প্রিন্সকে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ পর্যন্ত রেখে দেওয়ার সিদ্ধান্তও চূড়ান্ত বলে জানিয়েছেন তিনি, ‘গত দুই-তিন দিন মাননীয় বোর্ড সভাপতির সঙ্গে এটি নিয়ে কথা হয়েছে। খেলোয়াড়রা তাঁর ওপর আস্থা রেখেছে। ওরা তাঁর কাজে সন্তুষ্ট। এতটুকু নিশ্চিত যে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ পর্যন্ত তিনি আছেন।’