kalerkantho

শনিবার । ১৬ শ্রাবণ ১৪২৮। ৩১ জুলাই ২০২১। ২০ জিলহজ ১৪৪২

দুইয়ে উঠে এলো শেখ জামাল

২০ জুলাই, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



দুইয়ে উঠে এলো শেখ জামাল

ক্রীড়া প্রতিবেদক : প্রিমিয়ার লিগের শিরোপা দৌড়ে অনেক এগিয়ে বসুন্ধরা কিংস। ধরাছোঁয়ার বাইরে যেতে থাকা কিংসের পর দ্বিতীয় স্থানে এত দিন ছিল আবাহনী। গতকাল দুই গাম্বিয়ানের গোলে শেখ রাসেলকে ২-০ ব্যবধানে হারিয়ে আবাহনীকে পেছনে ফেলে দুইয়ে উঠে এলো শেখ জামাল। ১৮ ম্যাচে কিংসের পয়েন্ট ৪৯, ১৭ ম্যাচে শেখ জামালের ৩৮ আর ১৮ ম্যাচে আবাহনীর ৩৬। গতকাল ৭ গোলের রোমাঞ্চকর ম্যাচে আরামবাগকে ৪-৩-এ হারিয়ে সাইফ স্পোর্টিং এখন ছয়ে। ১৮ ম্যাচে সাইফের পয়েন্ট ২৯।

গোল উৎসব না হলেও উত্তেজনার কমতি ছিল না শেখ জামাল-শেখ রাসেল ম্যাচে। বিরতির আগে গোল পায়নি কোনো দল। ৬০ মিনিটে গাম্বিয়ান সুলেমান সিল্লাহ এগিয়ে নেন জামালকে। এই সিল্লাহর পাসেই ৬৬ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন তাঁর স্বদেশী ওমর জোবে। ২ গোলে পিছিয়ে পড়েও হাল ছাড়েনি শেখ রাসেল। দ্বিতীয় গোল হজমের পরই ফ্রিকিক থেকে বল জালে জড়ালেও বাতিল হয়ে যায় গোলটি। এরপর আর জালের দেখা পায়নি কোনো দল। এই হারে ১৮ ম্যাচে ২৭ পয়েন্ট নিয়ে শেখ রাসেল এখন ৭ নম্বরে।

আরামবাগের মতো চার ফুটবলার করোনা আক্রান্ত সাইফেরও। একাদশে একাধিক পরিবর্তন আনতে বাধ্য হওয়া দুই দলের ম্যাচ ৭২ মিনিট পর্যন্ত ছিল ১-১ সমতা। কিন্তু এর পরই রং বদলে পেন্ডুলামের মতো দুলতে থাকে ম্যাচ। শেষ ১৮ মিনিটে গোল আরো ৫টি!

২৯ মিনিটে সাইফকে এগিয়ে নিয়েছিলেন ইমানুয়েল আরিওয়াচুকু। ৩৬ মিনিটে পেনাল্টি থেকে সমতা ফেরান আবদুকদিরভ। ৭৩ মিনিটে মারাজ হোসেন আর ৭৬ মিনিটে ফয়সাল হোসেনের গোলে সাইফ এগিয়ে যায় ৩-১-এ। তবে ৭৯ মিনিটে সাইরিদ্দিন পেনাল্টি থেকে এক গোল পরিশোধের পর ৮৫ মিনিটে আরামবাগের হয়ে সমতা ফেরান আরাফাত মিয়া। এর পরই ৮৭ মিনিটে জামালের অসাধারণ ফ্রিকিক গোলে রুদ্ধশ্বাস জয় সাইফের। ৮৯ মিনিটে আবদুকদিরভের শট পোস্ট ঘেঁষে বাইরে না গেলে ৪-৪ সমতায় শেষ হতে পারত ম্যাচটি!