kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৮ আশ্বিন ১৪২৮। ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১। ১৫ সফর ১৪৪৩

বাংলাদেশের গ্রুপে স্কটল্যান্ড

১৭ জুলাই, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



বাংলাদেশের গ্রুপে স্কটল্যান্ড

ক্রীড়া প্রতিবেদক : স্কটল্যান্ডের সঙ্গে ২০১২ সালে একটাই টি-টোয়েন্টি খেলেছে বাংলাদেশ। ম্যাচটিতে বাংলাদেশ হেরেছিল ৩৪ রানে। এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে সুপার ১২-তে যাওয়ার অভিযানে সেই স্কটল্যান্ডই বড় চ্যালেঞ্জ মাহমুদ উল্লাহ-সাকিব আল হাসানদের। প্রথম পর্বের ড্রতে গ্রুপ ‘বি’তে বাংলাদেশের সঙ্গে স্কটল্যান্ড ছাড়াও আছে পাপুয়া নিউগিনি আর ওমান। বিশ্বকাপে এবারই প্রথম সুযোগ পেয়েছে পাপুয়া নিউগিনি। আরব আমিরাতের সঙ্গে টুর্নামেন্টের যৌথ আয়োজক ওমান ২০১৬ সালে প্রথমবার অংশ নিয়ে হারিয়েছিল আয়ারল্যান্ডকে। আর র‌্যাংকিংয়ে ১৪ নম্বরে থাকা স্কটল্যান্ড চতুর্থবার বিশ্বকাপে খেললেও এর আগে কখনো পার হতে পারেনি গ্রুপ পর্বের বাধা। বাংলাদেশ তাই নিজেদের গ্রুপের ফেভারিট হয়েই শুরু করবে বিশ্বকাপ অভিযান।

এ ছাড়া প্রাথমিক পর্বে গ্রুপ ‘এ’তে খেলবে শ্রীলঙ্কা, আয়ারল্যান্ড, নেদারল্যান্ডস ও নামিবিয়া। প্রতি গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন ও রানার্স আপ দল জায়গা পাবে সুপার ১২-তে। বাংলাদেশ নিজেদের গ্রুপে চ্যাম্পিয়ন হলে সুপার ১২-তে খেলবে গ্রুপ ২-এ। আর রানার্স আপ হলে জায়গা পাবে গ্রুপ ১-এ।

এ বছরের ১৭ অক্টোবর থেকে ১৪ নভেম্বর হতে যাওয়া বিশ্বকাপের সুপার ১২-র গ্রুপ ১-এ আছে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ওয়েস্ট ইন্ডিজ, ওয়ানডে বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়ন ইংল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া ও দক্ষিণ আফ্রিকা। গ্রুপ ২-এ চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারত ও পাকিস্তান। তাদের সঙ্গী আইসিসি টেস্ট বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়ন নিউজিল্যান্ড ও রশিদ খানের আফগানিস্তান। বাংলাদেশ নিজেদের গ্রুপে চ্যাম্পিয়ন হলে খেলতে হবে ভারত, পাকিস্তানের সঙ্গে।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে বাংলাদেশ অংশ নিয়েছে ছয়বার। প্রথম পর্বের বাধা পেরিয়ে পরের রাউন্ডে যেতে পেরেছে তিনবার। ২০০৭ সালের প্রথম আসরে বাংলাদেশ পৌঁছেছিল সুপার এইটে। পরের তিন আসরে ফিরতে হয় গ্রুপ পর্ব থেকে। এরপর ২০১৪ ও ২০১৬ সালের বিশ্বকাপে পায় সুপার ১০-এর টিকিট। এবার দ্বিতীয় পর্ব হবে সুপার ১২ ফরম্যাটে। গ্রুপিং জানালেও আইসিসি অবশ্য এখনো টুর্নামেন্টের সূচি ঘোষণা করেনি।

এবারের বিশ্বকাপ অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল ভারতে। করোনা মহামারিতে টুর্নামেন্টটা সরে যায় আরব আমিরাত ও ওমানে। দুবাই, আবুধাবি, শারজার মতো ভেন্যুগুলো ক্রিকেটপ্রেমীদের কাছে পরিচিত। তবে ওমান বিশ্বকাপের মতো বড় মাপের টুর্নামেন্টের আয়োজক হওয়ায় খুশি ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড প্রেসিডেন্ট সৌরভ গাঙ্গুলি, ‘বিশ্বকাপ আয়োজন করায় ওমানে জনপ্রিয়তা বাড়বে ক্রিকেটের। ওদের তরুণরা আগ্রহী হবে খেলাটায়, যা ক্রিকেটের প্রসারে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।’ আইসিসি



সাতদিনের সেরা