kalerkantho

রবিবার । ১৭ শ্রাবণ ১৪২৮। ১ আগস্ট ২০২১। ২১ জিলহজ ১৪৪২

মডরিচ জাদু, নকআউটে স্পেনও

২৪ জুন, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



মডরিচ জাদু, নকআউটে স্পেনও

২৩ বছর পর মর্যাদার কোন টুর্নামেন্টে এসেছিল স্কটল্যান্ড। স্মরনীয় হল না ফেরাটা। লুকা মডরিচ নামের এক ফুটবল জাদুকরের ঝলকে ভেঙেছে স্কটিশদের স্বপ্ন। ৩-১ গোলে জিতে রানার্সআপ হয়ে নকআউট নিশ্চিত করেছে ক্রোয়েশিয়া। অসাধারণ এক গোল করার পাশাপাশি আরেক গোলের অ্যাসিস্টে ম্যাচ সেরা মডরিচ। অপর ম্যাচে চেক প্রজাতন্ত্রকে ১-০ গোলে হারিয়ে  গ্রুপ ‘ডি’র চ্যাম্পিয়ন হয়েছে ইংল্যান্ড। ৩ ম্যাচ শেষে ইংল্যান্ডের পয়েন্ট ৭, ক্রোয়েশিয়ার ৪, চেক প্রজাতন্ত্রের ৪ আর বিদায় নেওয়া স্কটল্যান্ডের ১।

নকআউটে ক্রোয়েশিয়া খেলবে স্পেনের বিপক্ষে। গতকাল স্লোভাকিয়াকে ৫-০ গোলে বিধ্বস্ত করে স্পেন হয় গ্রুপ রানার্সআপ। এবারের ইউরোয় এটিই সবচেয়ে বড় ব্যবধানের জয়। আর পোল্যান্ডকে ৩-২ গোলে হারিয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন সুইডেন। জোড়া গোল করেও পোল্যান্ডের বিদায় ঠেকাতে পারেননি রবার্ট লেভানদোস্কি।

মডরিচের কাঁধে চড়েই প্রথমবার বিশ্বকাপ ফাইনাল খেলেছিল ক্রোয়েশিয়া। সেই সাফল্যের অন্যতম কারিগর মারিও মানজুকিচ, দানিয়েল সুবাসিচ আর ইভান রাকিতিচ এখন অবসরে। অথচ তিনজনই মডরিচের চেয়ে বয়সে ছোট। ৩৫ বছর বয়সী মডরিচ ভেবেছিলেন এখনও কিছু দেওয়ার বাকি আছে দেশকে। সবচেয়ে প্রয়োজনের সময়েই খুললেন জাদুর ঝাঁপিটা। ম্যাচ জুড়ে বলে টাচ সর্বোচ্চ ১১৫টি, পাসও দিয়েছেন সবচেয়ে বেশি, ৯৮টি।

বিরতির আগে ম্যাচে সমতা ছিল ১-১ গোলে। ১৭ মিনিটে নিকোলা ভ্লাসিচের গোল ৪২ মিনিটে ফিরিয়ে দিয়ে সমতা আনেন স্কটল্যান্ডের কালাম ম্যাকগ্রেগর। ৬২ মিনিটে মাতেয়ো কোভাসিচের কাছ থেকে বল পেয়ে প্রথম স্পর্শে ২০ গজ দূর থেকে ডান পায়ের বাইরের পাশ দিয়ে নেওয়া দূর্দান্ত শটে লক্ষ্যভেদ করেন মডরিচ। গোলটাকে বলা হচ্ছে এবারের ইউরোর অন্যতম সেরা। ২০০৮ সালে ২২ বছর ৭৩ দিনে ক্রোয়েশিয়ার হয়ে সবচেয়ে কম বয়সে গোলের রেকর্ড গড়েছিলেন মডরিচ। পরশু ৩৫ বছর ২৮৬ দিনে লক্ষ্যভেদে কীর্তি গড়লেন দেশের হয়ে  সবচেয়ে বেশি বয়সে গোল করারও!

৭৭ মিনিটে মডরিচের অসাধারণ কর্নার থেকে মাথা ছুঁইয়ে ক্রোয়েশিয়াকে ৩-১ ব্যবধানের স্বস্তির জয় এনে দেন ইভান পেরিসিচ। তাঁর এমন পারফর্ম্যান্সে বিস্মিত ক্রোয়াট কোচ জ্লাতকো দালিচও,‘ অনেকে ভেবেছিল মডরিচ ফুরিয়ে গেছে। প্রথম দুই ম্যাচে নিস্প্রভও ছিল ও। কিন্তু ঠিক সময়েই দলের হাল ধরে নিজেকে প্রমাণ করল আরও একবার।’

অপর ম্যাচে ওয়েম্বলিতে রহিম স্টার্লিংয়ের ১২তম মিনিটের একমাত্র গোলে চেক প্রজাতন্ত্রকে হারায় ইংল্যান্ড। বাছাইপর্বে সবশেষ দেখায় স্টার্লিংয়ের হ্যাটট্রিকে ওয়েম্বলিতেই ইংলিশরা জিতেছিল ৫-০ গোলে। এবার ব্যবধান কম হলেও খুশি ইংলিশ কোচ গ্যারেথ সাউথগেট,‘ কয়েকজন খেলোয়াড়কে বিশ্রাম দিয়ে সতেজ রাখতে পেরেছি নকআউটের জন্য। এটা ইতিবাচক দিক। তিনটা ম্যাচেই পোস্টে বল লেগে ফিরেছে আমাদের কয়েকটা আক্রমণ। গোল করার পথটা আমাদেরই খুঁজে বের করতে হবে।’ নকআউটে ফ্রান্স, জার্মানি, পর্তুগালের কোন একটি দলের সঙ্গে দেখা হতে পারে ইংল্যান্ডের। তাই গোলের পথ খুঁজে বের করতে না পারলে কোয়ার্টার ফাইনাল পাড়ি দেয়া কঠিন হবে ইংলিশদের জন্য। এএফপি



সাতদিনের সেরা