kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৪ শ্রাবণ ১৪২৮। ২৯ জুলাই ২০২১। ১৮ জিলহজ ১৪৪২

হকি কমিটি ভেঙে দিতে সাত ক্লাবের চিঠি

২১ জুন, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ক্রীড়া প্রতিবেদক : হকিতে আবার বিদ্রোহ। বর্তমান কার্যনির্বাহী কমিটি ভেঙে দিতে যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী বরাবর চিঠি দিয়েছে প্রিমিয়ার লিগের সাত ক্লাব। সাধারণ সম্পাদকহীন (এখন আছেন ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক) বর্তমান কমিটির অধীনে লিগ বা অন্যান্য ঘরোয়া টুর্নামেন্টে খেলতে আপত্তির কথা জানিয়েছে তারা সেই চিঠিতে।

বর্তমান কমিটির সহসভাপতি জাকি আহমেদ রিপন আবাহনীর পক্ষে কমিটি পুনর্গঠনের চিঠিতে সই করেছেন। রিপন যদিও ফেডারেশন কর্মকর্তা হিসেবে এ ব্যাপারে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি। তবে আবাহনী প্রতিনিধি হিসেবে তাঁর বক্তব্য, ‘সাধারণ সম্পাদক ছাড়া এভাবে একটা ফেডারেশন চলতে পারে না। আমরা লিগ বা অন্যান্য খেলা খেলব কার ভরসায়! ভারপ্রাপ্ত দিয়ে তো সাধারণ সম্পাদকের কাজ চলে না। ২০১৮-র পর থেকে লিগ নেই। তা মাঠে ফেরাতে এই কমিটির উদ্যোগ মোটেও যথেষ্ট না।’ চিঠিতে বাংলাদেশ স্পোর্টিংয়ের পক্ষে সই করা হাজী মোহাম্মদ হুমায়ুন হলেন দ্বিতীয়জন, যিনি বর্তমান কমিটিতে আছেন কোষাধ্যক্ষ হিসেবে। সাত ক্লাবের অন্য পাঁচটি হলো মোহামেডান, অ্যাজাক্স, ঢাকা ওয়ারী, আজাদ স্পোর্টিং ও ভিক্টোরিয়া। প্রিমিয়ার লিগের ১২ দলের মধ্যে পাঁচটি—সোনালী ব্যাংক, সাধারণ বীমা, ঢাকা মেরিনার ইয়াংস, পুলিশ এফসি ও দিলকুশা স্পোর্টিং এই দলে নেই। তবে বিরোধীদের দলটাই ভারী। প্রতিমন্ত্রী ছাড়াও চিঠির অনুলিপি দেওয়া হয়েছে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়, জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের সচিব ও হকি ফেডারশন সভাপতিকে। ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ ইউসুফ অবশ্য বলেছেন তাঁরা এই চিঠির ব্যাপারে এখনো অবগত না, ‘আমাকে এ ব্যাপারে কেউ কিছু বলেনি। আর ফেডারেশনে কোনো চিঠি এসেছে কি না এখনো জানি না। পেলে এ ব্যাপারে মন্তব্য করতে পারব।’ ২০১৯-এর এপ্রিলে হকি ফেডারেশনে সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন মমিনুল হক সাঈদ। পরে ক্যাসিনো কেলেঙ্কারিতে অভিযুক্ত হয়ে তিনি একরকম নিখোঁজ রয়েছেন। ফেডারেশনে নতুন সাধারণ সম্পাদকের দাবি এর আগে বিক্ষিপ্তভাবে শোনা গেলেও কালই তা আনুষ্ঠানিকতা পেল সাত ক্লাবের চিঠিতে।

হকিতে খেলার বদলে অনাস্থা, বয়কট এসব আসলে প্রথা হয়ে দাঁড়িয়েছে। এর আগে বিভিন্ন সময় খেলোয়াড়রা লিগের দাবিতে আন্দোলন করেছেন, জাতীয় দলের ক্যাম্প বয়কট করেছেন। নির্বাচনকে কেন্দ্র করে কিছু ক্লাব বিরত থেকেছে হকির কর্মকাণ্ড থেকে। তারই ধারাবাহিকতায় আবার সাত ক্লাবের এই চিঠি।