kalerkantho

রবিবার । ১৭ শ্রাবণ ১৪২৮। ১ আগস্ট ২০২১। ২১ জিলহজ ১৪৪২

দুর্বল মিডফিল্ডের ওমান চ্যালেঞ্জ

১২ জুন, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



দুর্বল মিডফিল্ডের ওমান চ্যালেঞ্জ

ক্রীড়া প্রতিবেদক : ইনজুরি আর কার্ডের খাঁড়ায় একদম কানা হয়ে গেছে বাংলাদেশের মাঝমাঠ। ওমান ম্যাচে এই জায়গায় আসবে নতুন মিডফিল্ডার। একাদশে ঢুকতে পারেন আবদুল্লাহ-ইব্রাহিমরা। বাছাই পর্বের শেষ ম্যাচটিকে তাঁরা দেখছেন বড় চ্যালেঞ্জ হিসেবে।

কার্ড ও চোটে বাংলাদেশ দলের মাঝমাঠ একরকম ফাঁকা হয়ে গেছে। চোট পেয়ে ছিটকে গেছেন সোহেল রানা ও মাশুক মিয়া। দুটো করে হলুদ কার্ড দেখে নিষিদ্ধ হয়েছেন জামাল ভুঁইয়া ও বিপলু আহমেদ। অর্থাৎ দলের নিয়মিত মিডফিল্ডার বলতে কেউ আর নেই। তাতে করে প্রথম একাদশে জায়গা করে নেওয়ার ভালো সুযোগ আছে আবদুল্লাহর। শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্রের এই মিডফিল্ডার পজিটিভ ফুটবল খেলে চ্যালেঞ্জটা উতরাতে চান, ‘কার্ড ও চোটের কারণে ওমানের বিপক্ষে ম্যাচে আমাদের কয়েকজন মিডফিল্ডার খেলতে পারবে না। এখন আমরা যারা মাঝমাঠের খেলোয়াড় আছি, তাদের জন্য এটা বড় চ্যালেঞ্জ। আশা করি, সামনের ম্যাচে দায়িত্ব নিয়ে আমরা পজিটিভ ফুটবল খেললে খেলাটা সহজ হবে।’

নিয়মিতদের অনুপস্থিতি দলের জন্য ধাক্কা। আবার অন্যদের জন্য এটা সুযোগও বটে। উইঙ্গার ইব্রাহিমও চাইছেন সুযোগটা কাজে লাগাতে, ‘ম্যাচটি কঠিন হবে। তবে এই সুযোগটা আমি কাজে লাগাতে চাই ভালো খেলে। চোট ও কার্ডের কারণে দলে এ রকম সংকট তৈরি হতেই পারে। তখন অন্যদের এগিয়ে আসতে হবে।’ বাংলাদেশ দলে জায়গা পূরণও খুব কঠিন কিছু নয়। কারণ দলটা আক্রমণাত্মক ফুটবল খেলে না। তাই ওমানের বিপক্ষে গোল করার চাপ নিতে হবে না, রক্ষণভাগকে বাড়তি ছায়া দেওয়াই হবে মিডফিল্ডারদের কাজ। ট্রেনিংয়েও চলছে সেই রক্ষণ সামলানোর প্রস্তুতি। আবদুল্লাহ বলেছেন, ‘ভারতের ম্যাচটি ভোলার চেষ্টা করছি আমরা। ওমানের ম্যাচে কিভাবে খেললে ভালো হবে, সেটা নিয়ে কোচ কাজ করছেন। এ ম্যাচে যারা সুযোগ পাবে তারা নিজেদের শতভাগ দিয়ে খেললে ম্যাচটি সহজ হবে।’ ওমানের বিপক্ষে আগের ম্যাচে বাংলাদেশ হেরেছিল ৪-১ গোলে। তাই ১০৪ ধাপ এগিয়ে থাকা দলের বিপক্ষে ফিরতি ম্যাচটি কঠিন হওয়ারই কথা।



সাতদিনের সেরা