kalerkantho

মঙ্গলবার । ৮ আষাঢ় ১৪২৮। ২২ জুন ২০২১। ১০ জিলকদ ১৪৪২

মোহামেডানের টানা তৃতীয় হার

ক্রীড়া প্রতিবেদক   

১১ জুন, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



মোহামেডানের টানা তৃতীয় হার

মিরপুরে রানহীন সাকিবকে উইকেটশূন্য রেখে নিজেদের দ্বিতীয় জয় তুলে নিয়েছে রূপগঞ্জ।

সাকিব আল হাসানের ব্যাটে রান নেই, গতকাল উইকেটহীনও থেকেছেন। তাই শুভাগত হোমের ২৯ বলের ফিফটিও জলে গেছে। নামি এই ক্লাবটি টানা তৃতীয় হারের শিকার হয়েছে লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জের কাছে। বিকেএসপিতে মহাকাব্য প্রায় লিখেই ফেলেছিলেন কামরুল ইসলাম রাব্বি। রুবেল হোসেনের করা শেষ ওভারে তিন ছক্কায় একতরফা ম্যাচে উত্তেজনার বারুদ ছিটিয়ে দিয়েছিলেন। কিন্তু শেষ বলটি কামরুল সীমানা পার করতে পারেননি, জিতেছে প্রাইম ব্যাংকই। সুবাদে মৌসুমে প্রথম হার হয়েছে প্রাইম দোলেশ্বরের। দিনের অন্য চারটি ম্যাচ নিস্তরঙ্গভাবেই শেষ হয়েছে। জিতেছে আবাহনী, শেখ জামাল ধানমণ্ডি, গাজী গ্রুপ ও খেলাঘর।

আজ মিরপুরে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী আবাহনীর মুখোমুখি হবে মোহামেডান। সেটির সম্ভাব্য গতি-প্রকৃতি সম্পর্কে গতকাল এক রকম ধারণাও মিলল বৈকি! মিরপুরে রূপগঞ্জের বোলারদের সামনে নতজানু মোহামেডান আর বিকেএসপিতে একই সময়ে শাইনপুকুরের বোলারদের কচুকাটা করেছে আবাহনী। টস জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে মাত্র ২৭ রানে ৬ উইকেট খুইয়ে ভূমিশয্যায় যখন মোহামেডান, তখন নাঈম শেখের (৭০) সঙ্গে পদোন্নতি পেয়ে ওপেন করতে নামা আফিফ হোসেন (৫৪) ব্যাটিং প্র্যাকটিস করেছেন। ১২ ওভারে ১১২ রান উঠেছে এই জুটিতে। ওদিকে মোহামেডান পুরো দল মিলেই করেছে ১১৩ রান। তবু ভালো যে ৭ নম্বরে নামা শুভাগত হোম (৫২) ও আবু হায়দার ৬৬ রানের জুটি গড়েছিলেন। অন্যদিকে অন্যদের প্রস্তুতির সুযোগ করে দিতে ব্যাটিংয়েই নামেননি আবাহনী অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম। এর পরও ৫ উইকেটে ১৮৩ তুলেছে তাঁর দল, যা শাইনপুকুরের জন্য অনতিক্রম্য। বৃষ্টি হানা দেওয়ায় ১৭ ওভারে পুনর্নির্ধারিত ১৪৯ রানের লক্ষ্যের পিছু নিয়ে তারা থেমেছে ৫ উইকেটে ১২৩ রানে। আর মিরপুরে রানহীন সাকিবকে উইকেটশূন্য রেখে নিজেদের দ্বিতীয় জয় তুলে নিয়েছে রূপগঞ্জ। ব্যাটে ছন্নছাড়া মোহামেডানের বোলিং দুর্দশার চিত্র ফুটে উঠেছে রূপগঞ্জের দুই ওপেনার পিনাক ঘোষ (৫১*) ও মেহেদী মারুফের (৪১) ব্যাটে।

 

মিরপুরে সকালের ম্যাচে মাহমুদুল হাসান জয়ের (৫৫ বলে ৮৭*) বীরত্বেও ওল্ড ডিওএইচএস থেমেছে ৭ উইকেটে ১৩৬ রান তুলে। মেহেদী হাসান ও সৌম্য সরকারের শুরুর ঝড়ের পর বাকি পথটুকু আয়েশেই পাড়ি দিয়েছে গাজী গ্রুপ। দিনের সফলতম বোলার অবশ্য শেখ জামাল ধানমণ্ডির সালাউদ্দিন শাকিল। এই বাঁহাতি পেসার মাত্র ১৬ রানে ৫ উইকেট নেওয়ায় ১০৪ রানেই গুটিয়ে গেছে পারটেক্স। শুরুটা ভালো না হলেও নুরুল হাসান (৩০) ও ইলিয়াস সানির (২৭) হিসাবি ব্যাটিংয়ে ৬ উইকেটে জিতেছে শেখ জামাল। বৃষ্টিবিঘ্নিত আরেক ম্যাচে ব্রাদার্সকে ৫ রানে হারিয়েছে খেলাঘর।

বিকেএসপিতে মোহাম্মদ মিঠুনের (৫৫) ফিফটিতে ৭ উইকেটে ১৫১ রান তোলা প্রাইম ব্যাংক জয় নিশ্চিত ভেবেই শুরু করেছিল ম্যাচের শেষ ওভার। শেষ উইকেট জুটি ৯ বলে ৩৩ রান তুলে নেবে, কে ভেবেছিল। কিন্তু দোলেশ্বরের পেসার কামরুল প্রাইম ব্যাংকের ভল্ট প্রায় ভেঙেই ফেলেছিলেন চার-ছক্কায়। কিন্তু ১২ বলে ৩৮ রানে অপরাজিত থাকা কামরুল শেষ বলটি কাঙ্ক্ষিত গন্তব্যে পাঠাতে পারেননি, ৩ রানে জিতেছে প্রাইম ব্যাংক।