kalerkantho

মঙ্গলবার । ৮ আষাঢ় ১৪২৮। ২২ জুন ২০২১। ১০ জিলকদ ১৪৪২

ভারতের ম্যাচকে ঘিরে স্বপ্ন কিন্তু...

১৯ মে, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ভারতের ম্যাচকে ঘিরে স্বপ্ন কিন্তু...

ক্রীড়া প্রতিবেদক : পয়েন্টের জন্য ভারত ও আফগানিস্তান ম্যাচের দিকেই তাকিয়ে তারা। তবে বড় স্বপ্ন ভারত ম্যাচকে ঘিরে, বাস্তবতাকে পাশে ঠেলে আনিসুর-জামালরা আবেগ আর মনোবলের জোরে চেষ্টা করছেন জয়ের অঙ্ক মেলাতে। অঙ্ক মেলানোর একমাত্র উপায় গোল, তাই গোলের সন্ধানে সবাই মিলে শ্যুটিং চর্চা করছেন ট্রেনিংয়ে।

কাতারে বিশ্বকাপ বাছাইয়ের শক্তিশালী প্রতিপক্ষ ওমানকে নিয়ে বাংলাদেশের বড় ভাবনা নেই। বাকি দুই প্রতিপক্ষ ভারত ও আফগানিস্তানের ম্যাচ দুটি নিয়েই তাদের পয়েন্টের অঙ্ক। সেখানে আবার ভারত ম্যাচ নিয়ে জামাল ভুঁইয়াদের অনুপ্রেরণার ঘাটতি নেই। বাংলাদেশ অধিনায়ক কাল অনুশীলন শেষে বলেছেন, ‘ভারতের বিপক্ষে খেলতে নামলে আপনা-আপনি অনুপ্রাণিত হয় দল। ওই ম্যাচে বাড়তি অনুপ্রেরণার দরকার নেই। ওদের বিপক্ষে শতভাগ দিয়েছিল সবাই, চমত্কার খেলেছিলাম আমরা।’ কলকাতায় সেই অ্যাওয়ে ম্যাচে দুর্দান্ত খেলে লিড নিয়েও তারা জিততে পারেনি ম্যাচটি। শেষদিকে গোল খেয়ে ম্যাচটি ১-১ গোলে শেষ হয়, সুবাদে বাংলাদেশের সংগ্রহ ওই ১ পয়েন্টই। জিততে জিততে ড্র হওয়া ওই ম্যাচটিই জোগাচ্ছে আত্মবিশ্বাস। ফিফা র‌্যাংকিংয়ে ভারত যতই এগিয়ে থাকুক কিংবা ফুটবল মানে এগিয়ে যাক, জামালদের কাছে যেন সেটা পাশের বাড়িই, অমন আহামরি কোনো ব্যাপার না। তাই বলছেন, ‘কাছাকাছি থাকি আর ওদের সঙ্গে আমাদের একটা ইতিহাস আছে বলেই আমরা ভালো পারফরম করি। এখানকার সবাই ভারতের বিপক্ষে জিততে চায় আর ইতিহাস মানে কলকাতার মতো এখানেও বাংলায় কথা বলি আমরা।’

সুতরাং ভারতীয় ফুটবলে যতই বিপ্লব ঘটুক, তাদের বিপক্ষে জয়ের স্বপ্ন নিয়েই মাঠে নামবে বাংলাদেশ। জয়ের জন্য গোল লাগবে আর সেই গোলের খোঁজ চলছে প্রাত্যহিক ট্রেনিংয়েও। সদলবলে শ্যুটিং প্র্যাকটিস করছেন তাঁরা ডি বক্সের বাইরে থেকে। কোচ জেমি ডে’রও হঠাত্ মনে হচ্ছে, প্রতিপক্ষে যথেষ্ট শট নেওয়া হচ্ছে না তাদের। বাংলাদেশ অধিনায়কও বলছেন, ‘আমাদের গোল দরকার। তাই শ্যুটিং প্র্যাকটিস হচ্ছে। আজ পাঁচটি শট করে চারটি গোল করেছি। অন্যদেরটা আমি বলতে পারব না।’ লাল-সবুজের ফুটবলে গোল এখন সোনার হরিণ। বাছাই পর্বের আগের পাঁচ ম্যাচে করেছে মাত্র দুটি গোল, একটি সাদউদ্দিন অন্যটি বিপলু আহমেদের। ফরোয়ার্ডদের পায়ে গোল নেই, ওদিকে নাবিব নেওয়াজ ইনজুরিতে মাঠের বাইরে। তা ছাড়া কাউন্টারে নিখুঁত পাস বাড়ানোরও সামর্থ্য নেই। তাই ফুটবলারদের শ্যুটিং চর্চায় সেই অঙ্ক মেলানোর নব উদ্যোগ নিয়েছেন কোচ।